বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির কল্যাণে এগিয়ে যাচ্ছে বিশ্ব

প্রিমিয়ার ভার্সিটির অনুষ্ঠানে অনুপম সেন

মঙ্গলবার , ৩০ এপ্রিল, ২০১৯ at ১০:২০ পূর্বাহ্ণ
15

প্রিমিয়ার ইউনিভার্সিটির উপাচার্য প্রফেসর ড. অনুপম সেন বলেছেন, আজকের বিশ্ব বিজ্ঞানের বিশ্ব। বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির কল্যাণে ক্রমশ এই বিশ্ব এগিয়ে যাচ্ছে। এক সময় এই পৃথিবীতে বিদ্যুৎ ও কম্পিউটারসহ অনেক কিছুই ছিল না। তারপর শুধু বিদ্যুৎ ও কম্পিউটার নয়, একে একে আরো কতোকিছু আবিষ্কৃত হয়েছে ! ফলে পৃথিবীতে ঘটেছে প্রথম, দ্বিতীয় ও তৃতীয় শিল্প-বিপ্লব। এখন কম্পিউটার সায়েন্স এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং-এর কল্যাণে ঘটছে চতুর্থ শিল্পবিপ্লব।
গতকাল ২৯ এপ্রিল নগরীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশনে প্রিমিয়ার ইউনিভার্সিটির কম্পিউটার সায়েন্স এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের ৩৩, ৩৪ ও ৩৫ তম ব্যাচের নবীন বরণ এবং ২৬ ও ২৭ তম ব্যাচের বিদায় সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখতে গিয়ে তিনি এসব কথা বলেন। প্রকৌশল অনুষদের ডিন ও কম্পিউটার সায়েন্স এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের চেয়ারম্যান প্রফেসর ড. তৌফিক সাঈদের সভাপতিত্বে এতে প্রধান অতিথির বক্তব্যে প্রফেসর ড. অনুপম সেন নবীন শিক্ষার্থীদের শুভেচ্ছা জানিয়ে বিদায়ী শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে বলেন, তোমরা স্কুল ও কলেজে ছিলে, তারপর বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রবেশ করেছো, কম্পিউটার সায়েন্স এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগে ভর্তি হয়েছো। এখন বেরিয়ে যাচ্ছো। আসলে তোমরা জীবনের বৃহৎ ক্ষেত্রে প্রবেশ করছো। আমার বিশ্বাস, তোমরা এই বিভাগ থেকে যে শিক্ষা নিয়ে বেরুচ্ছো, তা দিয়ে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির জগতে বিচরণের মাধ্যমে নিজেদের ও বাংলাদেশের কল্যাণ সাধিত করতে পারবে। প্রযুক্তির বিভিন্ন ক্ষেত্রে, বিশেষত আইটির ক্ষেত্রে বাংলাদেশ এগিয়ে যাচ্ছে বলেই গত আর্থিক বছরে বাংলাদেশের জিডিপির প্রবৃদ্ধির হার ৭.২ শতাংশ। এই বছর প্রবৃদ্ধির হার আরও বাড়বে। সেখানে তোমাদেরও করণীয় অনেক।
প্রধান অতিথি প্রফেসর ড. অনুপম সেন কম্পিউটার সায়েন্স এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগে ভর্তি হওয়ার কারণে নবীন শিক্ষার্থীদের এবং এই বিভাগে পড়তে পারার কারণে বিদায়ী শিক্ষার্থীদের ‘ভাগ্যবান’ বলে উল্লেখ করেন।
সহকারী অধ্যাপক মিনহাজ হোসাইন এবং শিক্ষার্থী ইশরাত জাহান ও তানজিনা মজুমদারের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন প্রিমিয়ার ইউনিভার্সিটির ট্রেজারার প্রফেসর এ.কে.এম. তফজল হক এবং কম্পিউটার সায়েন্স এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক আকরামুল কবির খান। বিদায়ী শিক্ষার্থীদের মধ্য থেকে বক্তব্য রাখেন সমর দাস, আনিমা মোবাশ্বেরা খান, সাবিহা শবনম ও জয় চৌধুরী।
অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ও বিদায়ী শিক্ষার্থীদের ক্রেস্ট প্রদান করা হয়। শেষে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পরিবেশিত হয়। প্রেস বিজ্ঞপ্তি।

x