বাবুর্চি সেজে ইয়াবা পাচারকালে আটক ২

আজাদী প্রতিবেদন

শনিবার , ১৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ at ৪:১৪ পূর্বাহ্ণ
43

দেশব্যাপী চলা মাদকবিরোধী অভিযানে গ্রেফতার এড়াতে প্রতিনিয়ত কৌশল বদলাচ্ছে মাদক পাচারকারীরা। এক কৌশল ধরা পড়লে ব্যবহার হচ্ছে আরেক কৌশল। গতকাল শুক্রবার সকালে তেমনি এক অভিনব কৌশল ধরা পড়েছে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদফতরের হাতে। বাবুর্চি সেজে ইয়াবা পাচারের সময় রান্নার বড় হাতল বিশিষ্ট চামচ ও ঝাঁঝরির ভেতরে বহনের সময় ছয় হাজার ৮০০ পিস ইয়াবাসহ দুজনকে আটক করেছে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদফতর।

অধিদপ্তরের চট্টগ্রাম মেট্রোউপ অঞ্চলের উপপরিচালক শামীম আহমেদ আজাদীকে বলেন, শুক্রবার ভোর রাতে নগরীর স্টেশন রোড এলাকায় কুমিল্লাগামী সৌদিয়া পরিবহনের একটি বাসে তল্লাশি চালিয়ে ছয় হাজার ইয়াবাসহ ওই দু’জনকে তারা আটক করেন। আটক দুই মাদক ব্যবসায়ী হলেনমুন্সীগঞ্জ জেলার লৌহজং এলাকার আবদুল রেজ্জাকের ছেলে মো. চঞ্চল (৩২) ও একই এলাকার মো. আসলামের ছেলে মো. আসমাউল (৩২)। তিনি বলেন, আটক দু’জন চামচের হাতলে লম্বা গর্ত বানিয়ে সেখানে ইয়াবা নেয়া হয়। এরপর শেষ প্রান্ত ঝালাই করে মুখ বন্ধ করে দেয়া হয়। আমরা ঝালাইয়ের অংশ খুলে ইয়াবাগুলো পেয়েছি।

মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদফতরের পরিদর্শক তপন কান্তি শর্মা বলেন, বাবুর্চি সেজে ও বিয়েবাড়িতে রান্নার চামচের ভেতর করে এসব ইয়াবা নিয়ে ঢাকা যাচ্ছিল তারা। চামচের পাইপ হাতলের ভেতর ইয়াবা লুকিয়ে মুখে ঝালাই করে দেয়া হয়েছিল। আমরা সুনির্দিষ্ট তথ্য পাওয়ায় তাদের গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়েছি। তিনি বলেন, স্বাভাবিকভাবে তাদের ইয়াবা ব্যবসায়ী বলে মনে হবে না কারও। দুজন বাবুর্চির বেশে বাসে উঠেছিল যেন তারা দূরের কোন প্রোগ্রামে রান্না করতে যাচ্ছে। সঙ্গে ছিল ছোটবড় কয়েকটি চামচ। এমন ছদ্মবেশ ধরে টেকনাফ থেকে ইয়াবাগুলো চট্টগ্রাম পর্যন্ত নিয়ে এসেছে তারা। এসব ইয়াবা নিয়ে তারা ঢাকায় যাচ্ছিলেন। তপন কান্তি শর্মা বলেন, তারা এর আগে বিভিন্ন সময় নতুন নতুন উপায়ে টেকনাফ থেকে ইয়াবা ঢাকাসহ বিভিন্ন জায়গায় নিয়ে গেছে বলে আমাদের কাছে স্বীকার করেছে। ওই দুইজনের বিরুদ্ধে কোতোয়ালি থানায় মামলা করা হয়েছে বলে জানান মাদক নিয়ন্ত্রণ কর্মকর্তা শামীম।

x