বান্দরবানে জনসংহতির ১১ নেতা রিমান্ডে

হত্যা মামলা

বান্দরবান প্রতিনিধি

বুধবার , ১২ জুন, ২০১৯ at ৫:১৮ পূর্বাহ্ণ
20

বান্দরবানে আওয়ামী লীগ নেতা হত্যাসহ পৃথক তিনটি হত্যা মামলায় জনসংহতি সমিতির (জেএসএস) কেন্দ্রীয় সহ-সাংগঠনিক সম্পাদকসহ ১১ জন নেতাকর্মীকে রিমান্ডে নেয়ার আদেশ দিয়েছেন আদালত। গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে বান্দরবান চিফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট কামরুন নাহারের আদালতে কারাগার থেকে আসামিদের হাজির করে পুলিশ রিমান্ডের আবেদন করলে আদালত এ আদেশ দেন।
আদালত সূত্রে জানা গেছে, গত ২২ মে বান্দরবানের উজীপাড়া খামার বাড়ি থেকে পৌর আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি চথোয়াই মারমাকে অপহরণ ও পরবর্তীতে হত্যা করা হয়। এ ঘটনায় স্ত্রী মেসাচিং মারমার দায়ের করা মামলায় গ্রেপ্তার পাহাড়ের আঞ্চলিক রাজনৈতিক সংগঠন জনসংহতি সমিতির (জেএসএস) কেন্দ্রীয় সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক কেএসমং মারমা, জেলা সাধারণ সম্পাদক ক্যবামং মারমা, জনংহতি সমিতির নেতা বাসিং মং মারমা, মেরুং মারমা, চাইহ্লা মারমা প্রত্যেকের ৫ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছে আদালত। গত ১৮ মে রাজবিলা ইউনিয়নের ক্যচিং থোয়াই মারমা হত্যা মামলায় গ্রেপ্তার জনসংহতি সমিতির ৩ নেতাকর্মী জয় তংচঙ্গ্যা, দিপন তংচঙ্গ্যা এবং মিন থোয়াই অং মারমাকে ৫ দিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেছে আদালত। এছাড়া গতমাসের ৯ মে জয়মনি তঞ্চঙ্গ্যা হত্যা মামলায় দায়ের করা মামলায় গ্রেপ্তার জনসংহতি সমিতির ৩ নেতাকর্মী উচিং মং মারমা, মংতু মারমা, উসাইনু মারমা প্রত্যেককে ৪ দিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করে আদালত। শুনানি শেষে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আসামিদের পুলিশ হেফাজতে নেওয়া হয়েছে।
ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শহীদুল ইসলাম চৌধুরী জানান, আওয়ামী লীগ নেতা হত্যা মামলাসহ তিনটি মামলায় পৃথকভাবে ১১ জন আসামির রিমান্ড মঞ্জুর করেছে আদালত। সুবিধাজনক সময়ে আদালতের নির্দেশনা মোতাবেক আসামিদের রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে।

x