বাংলাদেশ সত্যিই খনিজ পদার্থের দেশ

শনিবার , ৫ জানুয়ারি, ২০১৯ at ৩:৫৫ পূর্বাহ্ণ
89

পৃথিবীর সকল মানুষ তাদের নিজেদের দেশে বড় বড় খনিজ পদার্থ পেয়েছে। কেউ তৈলের খনি পেয়েছে কেউ কয়লার খনি পেয়েছে, কেউ স্বর্ণের খনি পেয়েছে। আমরা পৃথিবীর সকল দেশ থেকে আলাদা খনি পেয়েছি সেটাই হলো খাবারের খনি। অর্থাৎ পাখির মুখ থেকে কোনো বিচি পাহাড়ের চূড়ায় ফেললে, সেটা হয়ে যায় চারা, চারা থেকে হয়ে যায় ফলের গাছ। কোনো পানি দিতে হচ্ছে না। এমনিভাবে ফল দিয়ে প্রাণীকে সংরক্ষণ করে যাচ্ছে। বড় বড় দেশে গাছের পরিচর্যা করে খুবই ভালোভাবে। বড় হয়ে উঠে ধীরগতিতে। কারণ তারা সেই খনিটুকু পায়নি। খনি হলো বিধাতার আশীর্বাদ। সেই খনির মেরুদণ্ডকে আমরা প্রতিপালন না করে ধ্বংস লীলায় মেতে থাকি। আমরা কী সত্যিই মানুষ? না কি অন্য কিছু। এই সোনার বাংলাকে আমরা সোনার দেশে পরিণত করতে ঐক্যবদ্ধভাবে ্ল্লএক সারিতে বসে কাজ করতে হবে। বিদেশিরা চাই বাঙালি যেন কোনদিন ঐক্যবদ্ধ না হয়। ঐক্যবদ্ধ হলে তাদের জন্য বিপদ। এজন্য বিদেশিরা বাঙালিদের টাকা দিয়ে ভরপুর করে সোনার দেশটাকে নষ্ট করতে চাই। আসুন আমরা এক সুরে বলি, আর নয় গোলামী, এবার দেশটাকে করি স্বনির্ভর।
– রাজীব হোর, যুধিষ্টির মহাজন বাড়ি,
দক্ষিণ কাট্টলী।

x