বাংলাদেশ-ভারত-সাংস্কৃতিক উৎসব ‘দ্বিবন্ধন’

বুধবার , ৪ এপ্রিল, ২০১৮ at ১২:৫০ অপরাহ্ণ
99

নগরের জনপ্রিয় আবৃত্তি সংগঠন চট্টগ্রাম আবৃত্তি চর্চা কেন্দ্র ও রাঙামাটির জনপ্রিয় নানিয়াচর সঙ্গীত একাডেমির যৌথ আয়োজনে গত ৩১ মার্চ রাঙামাটি ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠী কালচারাল ইন্সটিটিউট মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত হয় বাংাদেশভারত সাংস্কৃতিক উৎসব ২০১৮। গান, কথামালা, আবৃত্তি ও নৃত্য দিয়ে সাজানো অনুষ্ঠানের নাম রাখা হয় ‘দ্বিবন্ধন’। আয়োজনে বাংলাদেশ ও ভারতে পশ্চিম বঙ্গ থেকে আগত রুপ নারায়ানপুর পিস ওয়েল ফেয়ার অর্গানাইজেশনের শিল্পীরা অংশগ্রহণ করেন।

তপন জ্যোতি চাকমার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানের সঞ্চালনায় ছিলেন তুষার চাকমা। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন রাঙ্গামাটি পৌরসভার মেয়র মো. আকবর হোসেন চৌধুরী ও বিশেষ অতিথি ছিলেন কবি হাসান মাহমুদ মঞ্জু। অনুষ্ঠানে বাংলাদেশের হয়ে চট্টগ্রাম আবৃত্তি চর্চা কেন্দ্রের সভাপতি এহতেশামুল হক ও পশ্চিম বঙ্গের হয়ে রুপ নারায়ানপুর পিস ওয়েল ফেয়ার অর্গানাইজেশনের সভাপতি শুভদীপ সেন প্রতিনিধিত্ব করেন।

কথামালায় অতিথিরা বলেন, ‘কাঁটা তারে বেড়া বাঙলা সংস্কৃতিকে দুটি সতন্ত্র ভূখণ্ডে বিভক্ত করলেও দুই বাংলার নাড়ির বন্ধন অবিচ্ছেদ্য। দেশবিভাগের পর থেকেই বাঙালি সংস্কৃতিকে বহু ত্যাগ তিতিক্ষার মধ্য দিয়ে যেতে হয়েছে। কিন্তু ‘অভিন্ন হৃদয়ের দুই বাংলা শত অভাবে, সংকটে তাদের গৌরবময় সংস্কৃতির অস্তিত্বকে কখনোই বিপন্ন হতে দেয়নি।’ কথামালা শেষে নানীয়ারচর সঙ্গীত একাডেমির শিল্পীরা আদিবাসী সঙ্গীত নিয়ে মঞ্চে আসে। তারপরে ভারতের শিল্পীরা ‘পৃথিবী একটায় দেশ’ শিরোনামে দলীয় নৃত্য পরিবেশন করেন। আয়োজনে চট্টগ্রাম আবৃত্তি চর্চা কেন্দ্রের শিল্পীরা পরিবেশন করেন বৃন্দ আবৃত্তি ‘এ আমার বাংলা’। কলকাতার কথা সাহিত্যিক বেনু বিনোদ সাহু ও প্রভাস চন্দ্র শেঠ দ্বিবন্ধন ভাবনা নিয়ে কবি কণ্ঠে কবিতা পাঠ করে শুনান দর্শকদের। প্রেস বিজ্ঞপ্তি।

x