বাংলাদেশের সাথে বন্ধন দৃঢ় করতে আগ্রহী থাইল্যান্ড

ব্যাংককে বাংলাদেশ উন্নয়ন মেলায় থাইল্যান্ডের উপ-পররাষ্ট্রমন্ত্রী

মৃদুল বড়ুয়া, ব্যাংকক (থাইল্যান্ড) থেকে

শুক্রবার , ২২ জুন, ২০১৮ at ১০:৩৫ অপরাহ্ণ
480

বাংলাদেশের অপ্রতিরোধ্য উন্নয়ন ও সাম্প্রতিক ধারাবাহিক অগ্রগতি প্রশংসনীয় এবং থাইল্যান্ড বাংলাদেশের সাথে অর্থনৈতিক ও সাংস্কৃতিক বন্ধন দৃঢ়তর করতে আগ্রহী বলে মন্তব্য করেছেন থাইল্যান্ডের উপ-পররাষ্ট্রমন্ত্রী ভিরাসাকদি ফুতরাকুল। তিনি গত ২১ জুন বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় ব্যাংককের চুলালংকর্ণ বিশ্ববিদ্যালয় প্রাঙ্গণে বাংলাদেশ দূতাবাস আয়োজিত ‘বাংলাদেশ উন্নয়ন মেলা ২০১৮’-এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখছিলেন। ব্যাংককের বাংলাদেশ দূতাবাস এবং থাইল্যান্ডের শীর্ষস্থানীয় চুলালংকর্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের দক্ষিণ এশিয়া ইনস্টিটিউট যৌথভাবে এ মেলার আয়োজন করে।

মেলার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে থাইল্যান্ডের সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের ভাইস মিনিস্টার চাইরাত কাসেটসুনতন, থাই জাতীয় সংসদের পররাষ্ট্র বিষয়ক কমিটির প্রধান বিলেইনভান, বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রেসিডেন্ট প্রফেসর বানডিটইউ আরপর্ন, থাই জাতীয় সংসদের সদস্য, কূটনৈতিক কোরের সদস্যবৃন্দ সরকারি ও বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের উর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। এছাড়াও থাইল্যান্ডের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র-শিক্ষক, ব্যবসায়ী প্রতিনিধিবৃন্দ, গণমাধ্যম ব্যক্তিবর্গ এবং সর্বস্তরের জনগণও মেলায় স্বতস্ফুর্তভাবে অংশ নেন।

বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশের গত এক দশকে অর্জিত সাফল্যকে থাই সরকার, সাধারণ জনগণ ও বিশেষত প্রবাসী বাংলাদেশীদের কাছে তুলে ধরার লক্ষ্যে এ উন্নয়ন মেলার আয়োজন করা হয়। মেলায় বিশেষত স্বল্পোন্নত দেশের তালিকা থেকে বাংলাদেশের উত্তরণের পাশাপাশি ডিজিটাল বাংলাদেশ, পর্যটন, কৃষি, বৈদেশিক র্কমসংস্থান, সামাজিক উন্নয়ন ইত্যাদি ক্ষেত্রে সরকারের সাফল্যগাথা তুলে ধরা হয়। এছাড়াও চুলালংকর্ন বিশ্ববিদ্যালয় জাদুঘরে বাংলাদশ-থাইল্যান্ড সাংস্কৃতিক মৈত্রী চিত্র প্রদর্শনীর মাধ্যমে দুই দেশের সাংস্কৃতিক ও ভাষাগত সাদৃশ্যসমূহ তুলে ধরা হয়।

থাইল্যান্ডে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত সাইদা মুনা তাসনীম উন্নয়ন মেলার উদ্দেশ্য সম্পর্কে বলতে গিয়ে বাংলাদেশের গৌরবোজ্জ্বল ইতিহাস ও অসাম্প্রদায়িক পরিচয় তুলে ধরেন।

x