বাংলাদেশকে মোকাবেলায় প্রস্তুত হচ্ছে আফগানরা

স্পোর্টস ডেস্ক

শনিবার , ২৪ আগস্ট, ২০১৯ at ১১:১৫ পূর্বাহ্ণ
16

আফগানিস্তানের বিপক্ষে বাংলাদেশের একমাত্র টেস্টের সিরিজটি এক রকম কড়া নাড়ছে দরজায়। তিন সপ্তাহের সফরে এ মাসের শেষ দিনে বাংলাদেশে পা রাখবে আফগানিস্তান ক্রিকেট দল। আগামী ৩০ আগস্ট আফগানদের ঢাকায় পা রাখার কথা রয়েছে। পরদিনই তারা চলে আসবে বন্দর নগরী চট্টগ্রামে। এই তিন সপ্তাহের সফরে আফগানিস্তান ক্রিকেট দল টাইগারদের বিপক্ষে একটি টেস্টের সিরিজ খেলবে। এরপর বাংলাদেশ এবং জিম্বাবুয়েকে সঙ্গে নিয়ে একটি ত্রিদেশীয় টি-টোয়েটন্টি টুর্নামেন্ট খেলবে আফগানরা। কাজেই বেশ চ্যালেঞ্জিং একটি সফর এটি আফগানদের জন্য। পাশাপাশি বাংলাদেশের জন্যও। কারণ এই প্রথমবারের মত আফগানিস্তানের বিপক্ষে টেস্ট ম্যাচ খেলতে নামবে বাংলাদেশ। আর আফগানদের এটি তৃতীয় টেস্ট। এর আগের দুটি টেস্টের একটিতে হেরেছে আর অন্যটিতে জিতেছে আফগানরা। অভিষেক টেস্টে ভারতের বিপক্ষে উড়ে গেলেও পরের টেস্টে আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে জয় তুলে নেয় আফগানরা। এদিকে বাংলাদেশের এই তিন সপ্তাহের সফর সামনে রেখে বেশ ঘাম ঝরাচ্ছে রশিদ খান-মোহাম্মদ নবীরা। প্রচন্ড গরমে আবুধাবির শেখ জায়েদ ক্রিকেট স্টেডিয়ামে নিজেদের অনুশীলন চালাচ্ছে আফগানিস্তান দল। বিশ্বকাপের পর এটিই আফগানিস্তানের প্রথম ক্রিকেট মাঠে ফেরা। সাধারণত ভারতকে নিজেদের হোমগ্রাউন্ড হিসেবে কাজে লাগালেও এবার আবুধাবিতেই নিজেদের অনুশীলন সেরে নিচ্ছে আফগানরা। ইংল্যান্ড বিশ্বকাপ মোটেই ভালো যায়নি আফগানদের। ৯ ম্যাচের একটিতেও জয় পায়নি দলটি। শুধু তাই নয় বিশ্বকাপ চলাকালেই দলের মধ্যে আভ্যন্তরীন দ্বন্দ্ব সামনে চলে আসে। যা প্রভাব ফেলে ক্রিকেটারদের পারফরম্যান্সেও। যার ফলে পরিবর্তন আনা হয়েছে দলের মধ্যেও। বিশ্বকাপ শেষেই তিন ফরম্যাটেই অধিনায়কের দায়িত্ব তুলে দেওয়া হয় রশিদ খানের হাতে। নতুন অধিনায়ক হিসেবে প্রথম পরীক্ষাতেই বাংলাদেশের মুখোমুখি হবে আফগানিস্তান। নতুন অধিনাক হিসেবে বাংলাদেশের এই সফরকে বেশ চ্যালেঞ্জ হিসেবে নিচ্ছেন আফগান অধিনায়ক রশিদ খান। বিশ্বকাপে দলের পাশাপাশি নিজেও ছিলেন চরম ব্যর্থ। সে কঠিন সময় পার করে এবার দলের দায়িত্ব কাধে নিয়ে আসছে বাংলাদেশে। তাই দলকে নিয়ে আশাবাদি হওয়ার পাশাপাশি চ্যালেঞ্জও দেখছেন আফগান অধিনায়ক রশিদ খান। তাইতো কঠোর অনুশীলন করছে দলটি মরুর শহর আবুধাবীতে। রশিদ খান সংবাদ মাধ্যমকে জানিয়েছেন তারা বাংলাদেশের বিপক্ষে কঠিন চ্যালেঞ্জ নিতে প্রস্তুত। তিনি বলেন আমরা জানি বাংলাদেশের মাটিতে গিয়ে বাংলাদেশকে হারানোটা কতটা কঠিন। কারণ দেশের মাটিতে বাংলাদেশ বেশ শক্ত প্রতিপক্ষ। কাজেই আমাদেরকে কঠিন পরীক্ষার সামনে পড়তে হবে তাতে কোন সন্দেহ নেই। আর সে জন্যই আমরা নিজেদের সেরা প্রস্তুতি নেওয়ার চেষ্টা করছি। কারণ বাংলাদেশে গিয়ে ভাল করতে হলে নিজেদের সেরা হিসেবে গড়ে তোলার কোন বিকল্প নেই। তিনি বলেন আমরা প্রস্তুত বাংলাদেশের চ্যালেঞ্জ গ্রহণ করতে।

x