বাঁশ ধরতে গিয়ে ইছামতীতে ডুবে যুবক নিখোঁজ

রাঙ্গুনিয়া প্রতিনিধি

শুক্রবার , ১২ জুলাই, ২০১৯ at ৭:৪২ পূর্বাহ্ণ
122

রাঙ্গুনিয়ায় ইছামতী নদীতে ডুবে শফিউল আলম মান্না (২০) নামে এক যুবক নিখোঁজ হয়েছেন। তিনি উপজেলার রাজানগর ইউনিয়নের ৯ নম্বর ওয়ার্ড হালিমপুর এলাকার আবুল কাশেম মাস্টার বাড়ির বদিউল আলমের পুত্র। সকালে নদীতে স্রোতের টানে ভেসে আসা বাঁশ ধরতে গিয়ে সাতঘড়িয়া পাড়া এলাকা থেকে তিনি নিখোঁজ হন।
স্থানীয় ইউপি সদস্য জসিম উদ্দিন মাতব্বর জানান, গতকাল ভোরে হালিমপুর এলাকার স্থানীয় আবদুর রহমান ও শফিউল আলম মান্না ইছামতী নদীর চরে সবজি তুলতে যায়। এর এক পর্যায়ে দু’জন নদীতে বাঁশের তৈরি একটা মাচা ভেসে আসতে দেখে তা ধরতে নদীতে ঝাঁপ দেয়। এদিকে কয়েকদিনের ভারী বর্ষণে ইছামতী নদীতে পাহাড়ি ঢলে তীব্র স্রোত বয়ে যাচ্ছে। ঝাঁপ দেওয়ার পর তারা স্রোতের মুখে পড়ে। আব্দুর রহমান সাঁতার কেটে কোনো মতে তীরে উঠতে পারলেও ভেসে যায় শফিউল আলম মান্না। এরপর থেকে তাকে উদ্ধারে স্থানীয়রা ইছামতী নদীর বিভিন্ন মোহনায় খোঁজাখুঁজি শুরু করে। দুপুরের দিকে উদ্ধার অভিযানে নামে ফায়ার সার্ভিসের একদল ডুবুরি। তবে নিখোঁজের ১৩ ঘণ্টা পার হলেও গতকাল রাত ৮টা পর্যন্ত তাকে উদ্ধার করা যায়নি।
এ ব্যাপারে রাঙ্গুনিয়া ফায়ার সার্ভিসের টিম লিডার আবু বক্কর সিদ্দিক বলেন, যুবকটি নিখোঁজ হওয়ার পর থেকে তাকে উদ্ধারে অভিযান চালানো হচ্ছে। কিন্তু পাহাড়ী ঢলের কারণে নদীতে তীব্র স্রোত থাকায় উদ্ধার কার্যক্রম চালাতে অসুবিধা হচ্ছে।
জানা যায়, পরিবারে দুই ভাইয়ের মধ্যে নিখোঁজ মান্না বড়। ছেলেকে হারিয়ে নির্বাক হয়ে পড়েছেন তার মা। তিনি ছেলের খোঁজে নদীপাড়ে পাগলের মতো ছুটে বেড়াচ্ছেন। মান্নার উদ্ধারে ফায়ার সার্ভিস টিমের পাশাপাশি বন্ধু ও এলাকার শত শত মানুষ ইছামতী নদীর বিভিন্ন পয়েন্টে অনুসন্ধান কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে।

x