বন্ধুর বাসায় ব্যবসায়ীর রহস্যজনক মৃত্যু

আজাদী প্রতিবেদন

সোমবার , ৪ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ at ৭:৩৬ পূর্বাহ্ণ
458

নগরীতে বন্ধুর বাসায় বেড়াতে এসে সফর আলী নামে এক সিএন্ডএফ (ক্লিয়ারিং এন্ড ফরওয়ার্ডিং) ব্যবসায়ীর রহস্যজনক মুত্যু হয়েছে। গত শনিবার গভীর রাতে নগরীর নন্দনকানন এলাকার একটি বাসায় এ ঘটনা ঘটে। নিহতের বাড়ি কর্ণফুলী উপজেলার খোয়াজ নগরে। তিনি স্থানীয় মৃত আবদুল মোতালেবের পুত্র। নগরীতে সদরঘাট থানাধীন কাজী সুজা কাটগড় এলাকায় রহমান টাওয়ারের চতুর্থ তলায় পরিবার নিয়ে ভাড়ায় থাকতেন।
এদিকে ঘটনায় পরদিন গতকাল সকালে পুলিশ সফর আলীর বন্ধুসহ দু’জনকে আটক করেছে। এই ঘটনায় পরিবারের পক্ষ থেকে কোনো মামলা দায়ের করা হয়নি বলে গতকাল আজাদীকে নিশ্চিত করেন কোতোয়ালী থানার ওসি মোহাম্মদ মহসিন।
ওসি জানান, আমরা লাশটি ময়নাতদন্তের জন্য পাঠিয়েছি। রিপোর্ট পেলেই মূল রহস্য উদঘাটন হবে।
নিহতের চাচাত ভাই মীর আহমদ আজাদীকে বলেন, হাতে তেমন কোনো কাজ না থাকায় শনিবার সন্ধ্যা ৭টার দিকে সফর আলী বাসা থেকে গাড়ি নিয়ে বের হয়েছিলেন। এ সময় উনার সাথে ড্রাইভারও ছিল। পরে নন্দনকাননে এক বন্ধুর বাসায় পৌঁছলে তিনি সেখানে নেমে গিয়ে ড্রাইভারকে চলে যেতে বলেন।
মীর আহমদ বলেন, রাত ১১টার পরে সফর আলী বাসায় না ফেরায় উনার স্ত্রী উনাকে ফোন করেন। তখন উনার সাথে ভাবির শেষ কথা হয়। এ সময় তিনি কিছুক্ষণের মধ্যে চলে আসছের বলে ভাবিকে জানান। পরে কথা শেষে মোবাইলে চার্জ নেই বলে স্ত্রীকে জানিয়ে মোবাইল বন্ধ করে দেন।
মীর আহমদ আরো বলেন, উনি সাধারণত এত রাত বাহিরে থাকেন না। এ কারণে ভাবি উনাকে ফোন করেছিলেন বলে জানান মীর আহমদ। এরপরেও উনি ফিরতে দেরি হওয়ায় ভাবি উনাকে আবার ফোন করেন। ওই সময় ফোনটি বন্ধ পাওয়া যায়। এসময় ভাবি উনার বন্ধুকে ফোন করলে তিনি অসুস্থ বলে জানান।
কোতোয়ালী থানার ওসি মহসিন বলেন, রাত দুইটার দিকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল থেকে একজন বাসায় ফোন করে সফর আলী মারা যাওয়ার খবর জানান। এসময় মৌখিক অভিযোগের ভিত্তিতে পুলিশ এস এস নুরুন্নবী জনি ও তার স্ত্রী সঙ্গীত শিল্পী দিল আফরোজাকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করেন।
ওসি বলেন, জিজ্ঞাসাবাদে জনি জানিয়েছেন রাত ১টার দিকে সফর আলী অসুস্থবোধ করে বিছানায় শুয়ে পড়েন। কিছুক্ষণ পর তারা গিয়ে তার শরীর ঠাণ্ডা দেখতে পেয়ে প্রথমে ম্যাঙ হাসপাতালে এবং পরে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করান। তবে সবগুলো বিষয় খতিয়ে দেখা হচ্ছে বলে জানান ওসি।

x