ফাইনালে ভারত সমর্থকদের পাশে চান উইলিয়ামসন

স্পোর্টস ডেস্ক

শুক্রবার , ১২ জুলাই, ২০১৯ at ৮:২০ পূর্বাহ্ণ
25

বিশ্বকাপের সেমিফাইনালে ম্যানচেস্টারের ওল্ড ট্র্যাফোর্ড স্টেডিয়াম ছিল ভারতীয় সমর্থকদের দখলে। অবশ্য শুধু সেমিফাইনাল বলে নয়, ভারতের প্রতিটি ম্যাচেই গ্যালারী ভরিয়ে রেখেছিল ভারতের সমর্থকরা। এবারের বিশ্বকাপের প্রথম সেমিফাইনালটা হয়েছে দুই দিনে। সমর্থকরা বাড়তি একটা দিন খেলা দেখতে পেরেছে। আর এই দুই দিনের প্রথম দিনে ভারতীয় সমর্থকে ঠাসা গ্যালারি রূপ নিয়েছিল নীল সমুদ্রে। কিন্তু রিজার্ভ ডেতে গ্যালারি পরিপূর্ণ ছিল না। তবে যারা ছিলেন, তাদের হয়তো ৯০-৯৫ শতাংশই ছিলেন ভারতের সমর্থক। শেষ পর্যন্ত তাদেরকে স্তব্ধ করে দিয়ে সেমি-ফাইনাল জিতেছে নিউজিল্যান্ড। ম্যাচ শেষে সেই দর্শক থেকে শুরু করে হতাশ সব ভারতীয় সমর্থককে সান্ত্বনা দিতে চাইলেন নিউজিল্যান্ড অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসন।
ম্যানচেস্টারে সেমি-ফাইনালের দুই দিন ধরে নিউজিল্যান্ডের ব্যাটিংয়ের প্রায় পুরো সময়ই গ্যালারিতে ছিল ভারতীয়দের উল্লাস। তাদের গর্জনে প্রকম্পিত হয়েছে চারপাশ। আর ভারত যখন ব্যাটিংয়ে নামে তখন একের পর এক উইকেট পতন দেখে গ্যালারিতে নেমে আসে শশ্মানের নীরবতা। কিন্তু সপ্তম উইকেটে রবীন্দ্র জাদেজা ও মহেন্দ্র সিং ধোনি যখন দারুন এক জুটি গড়ে তোলেন তখন আবার উত্তাল হয়ে ওঠে ম্যানচেস্টারের গ্যালারি। কিন্তু সে উচ্ছ্বাস শেষ পর্যন্ত থাকেনি ভারতের সমর্থকদের। শেষ পর্যন্ত তাদের মাঠ ছাড়তে হয় হতাশা নিয়েই। জাদেজা-ধোনিকে থামিয়ে ১৮ রানের জয়ে ফাইনালে উঠে যায় নিউজিল্যান্ড।
ম্যাচ শেষে নিউজিল্যান্ড অধিনায়কের সংবাদ সম্মেলনে মজা করে প্রশ্ন হলো, শত কোটি সমর্থককে শোকে ও ক্ষোভে ভাসাল কিনা কিউইরা। উইলিয়ামসনের উত্তরেও মিশে থাকল মজা। তিনি বলেন আশা করি ভারতের দর্শকরা খুব বেশি ক্ষুব্ধ হয়নি। এই ক্রিকেট খেলাটার জন্য ভারতীয়দের যে আবেগ, সেটা অপ্রতিদ্বন্দ্বী। বিশ্বে আর কোন দেশের সমর্থকদের এমন আবেগ নেই। তিনি বলেন আমরা সবাই ভাগ্যবান যে ভারতের মতো একটি দল এই ক্রিকেট খেলাটা খেলে । আর বিশ্বের নানা প্রান্তে যাদের প্রবল সমর্থন আছে। আশা করি, দেড়শ কোটি সমর্থককে আমরা এখন আপন করে নিতে পারব। তারা এখন আমাদের সমর্থন করবে। ফাইনালে আমি আশা করি ভারতের সমর্থকরা আমাদের পাশে থাকবে। এরপর প্রশ্ন কর্তাকে পাল্টা প্রশ্ন করে উইলিয়ামসন বলেন আপনার কি মনে হয় ?
নিউজিল্যান্ড অধিনায়ক বুঝিয়ে বললেন খেলাটির বাস্তবতা। জানিয়ে দিলেন প্রতিপক্ষ হিসেবে তারা কতটা শ্রদ্ধার জায়গায় রাখেন ভারতকে। কিউই অধিনায়ক বলেন ভারত বিশ্বমানের দল। ক্রিকেট খেলার ধরনটাই এমন পরিবর্তনশীল। বিশেষ করে টি-টোয়েন্টি ও ওয়ানডেতে হতে পারে যে কোনো কিছুই। ভারতের দারুণ সব ক্রিকেটার আছে। গভীরতা অনেক বলে যোগ্য হিসেবেই বিশ্বের ১ বা ২ দুই নম্বর দল তারা। কিন্তু নির্দিষ্ট দিনে জিততে পারে যে কেউ। আর এটাই ক্রিকেটের সহজাত ধর্ম। তিনি বলেন ক্রিকেট দল হিসেবে ভারতের প্রতি দারুণ শ্রদ্ধা আছে আমার। আর আমি আশা করি তাদের সমর্থকরা দলের পাশেই থাকবেন। আশা করি তারা ক্রিকেটের ব্যাপারটিও বুঝবেন যে অনেক সময়ই খেলাটা কঠিন সময় উপহার দেয়। অনেক সময় কঠিন বাস্তবতার মুখোমুখিও হতে হয়। ভারতের সমর্থকরা নিশ্চয়ই সেটা উপলদ্ধি করতে পারবে। তাদের প্রতি শুভ কামনা থাকল আগামীর জন্য।

x