ফটিকছড়িতে গৃহস্থ গরুর কদর বেশি, দাম চড়া

এম এস আকাশ, ফটিকছড়ি

শুক্রবার , ৯ আগস্ট, ২০১৯ at ৬:৫২ পূর্বাহ্ণ
55

আর তিনদিন পর কোরবানির ঈদ৤ পছন্দের গরু-ছাগল ক্রয় করার হাঁক-ডাক চলছে৤ পুরো ফটিকছড়ি জুড়ে গৃহস্থ গরুর কদর বেড়েছে এবার। তাই বিক্রেতারাও চড়া দাম হাঁকাচ্ছেন। এর ফলে অনেকে গরু পছন্দ হলেও কিনতে পারছেন না। দাম নিয়ে হতাশা প্রকাশ করছেন ক্রেতারা। ফটিকছড়ির ৪৭টি হাট-বাজারে কোরবানির পশুর হাট রয়েছে। তবে বেশ কিছু স্থানে অস্থায়ী হাট বসেছে। শেষ সময়ে বাজারে ক্রেতার পরিমাণ বৃদ্ধি পাবে এমন ধারণা বিক্রেতাদের। অপরদিকে ক্রেতারা মনে করছেন, যেহেতু বাজারে প্রচুর গরু-ছাগল আমদানি হয়েছে, সেই হিসেবে শেষের দিন বাজারমূল্য কমে যাবে। ফটিকছড়ির স্থায়ী গরুর বাজারের মধ্যে অন্যতম বিবিরহাট, নাজিরহাট, কাজিরহাট, আজাদী বাজার, নানুপুর, হেঁয়াকো, নারায়ণহাট, তকিরহাট ও আব্দুল্লাহপুর জামতল। অস্থায়ী বাজারগুলো হচ্ছে ফকিরহাট বাজার, চারালিয়া হাট, শান্তিরহাট, ছিকনছড়া, বালুটিলা, পেলা গাজির দিঘি, দক্ষিণ ধর্মপুর মোশারফ আলী সওদাগরের ঘাটা, শ্যামলা হাট, রমজু মুন্সির হাট, টেকের দোকান, ধর্মপুরের আমতল, দৌলত মুন্সির হাট, চৌমুহনী বাজার, শান্তিরহাট ও কাঞ্চনপুর চমুর হাট। গতকাল বসেছে খিরাম দৌলত মুন্সিরহাট, আজাদী বাজার, বিবিরহাট, পাইন্দং চামারদিঘিরহাট৤ সরেজমিন এসব বাজার ঘুরে দেখা গেছে, এসব বাজারে প্রচুর গরু এসেছে। মাঝারি আকারের গরু ক্রয় বিক্রি হচ্ছে বেশ। তবে, বেশি দামের গরু খুব বেশি বিক্রি হচ্ছে না। বাজার ঘুরে দুই লক্ষ টাকার বেশি দামের গরু চোখে পড়েনি৤ তবে ৪৫-৮৫ হাজার টাকার মধ্যে গরুর চাহিদা রয়েছে বেশি। গরুর বাজারগুলোতে রংপুর, কুষ্টিয়া, ফরিদপুর, সিরাজগঞ্জ, চাঁপাইনবাবগঞ্জ, ঝিনাইদহ, ফরিদপুর, কুমিল্লা, টাঙ্গাইল, রাজশাহী, যশোর, নোয়াখালী, ময়মনসিংহ এলাকা থেকে মাঝারি ও ছোট সাইজের গরু এসেছে। পাশাপশি বাজারে এসেছে প্রচুর ছাগল। ১৪ থেকে ১৮ হাজার টাকায় ছাগল বেশি বিক্রি হচ্ছে বলে জানিয়েছেন ব্যবসায়ীরা। হেঁয়াকো বাজারের ক্রেতা রুবেল মজুমদার জানান, বাগান বাজার ও দাঁতমারার বাজারগুলোতে মীরসরাই, সীতাকুণ্ড, ফটিকছড়ি সদর, রাউজান, হাটহাজারীর ক্রেতা বেশি৤ সবার চাহিদা দেশি গরু। তাই বাজেটের মধ্যে গরু ক্রয় করতে নানা বাজার ঘুরছেন ক্রেতারা৤ ফটিকছড়ি থানার ওসি বাবুল আকতার জানান, বাজারে প্রচুর নিরাপত্তা ও জাল টাকা রোধে ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে৤ ইতোমধ্যে একটি জাল টাকার আস্তানা ধ্বংস করেছি৤

x