প্রাতিষ্ঠানিক সেবা বৃদ্ধির মাধ্যমে মাতৃমৃত্যুর হার কমানো সম্ভব

মমতার অনুষ্ঠানে বক্তারা

শুক্রবার , ৭ ডিসেম্বর, ২০১৮ at ৫:৪৬ পূর্বাহ্ণ
3

মমতার উদ্যোগে সম্প্রতি পরিবার কল্যাই সেবা ও প্রচার সপ্তাহ পালন করা হয়। সেবা সপ্তাহের প্রতিপাদ্য বিষয় প্রাতিষ্ঠানিক ডেলিভারি বৃদ্ধি করি, প্রসব পরবর্তী পরিবার পরিকল্পনা পদ্ধতি নিশ্চিত করি’।
বর্তমান সরকারের একটি অন্যতম অগ্রাধিকার বিষয় হচ্ছে মাতৃস্বাস্থ্য উন্নয়ন ও মাতৃমৃত্যু হ্রাস। প্রাতিষ্ঠানিক সেবা বৃদ্ধির মাধ্যমে মাতৃমৃত্যুর হার কমিয়ে আনা সম্ভব। প্রাতিষ্ঠানিক সেবার পাশাপাশি প্রসবের পর পর উপযুক্ত পরিবার পরিকল্পনা পদ্ধতি গ্রহণে দম্পতিকে উদ্বুদ্ধকরণ এবং পদ্ধতি প্রদান করাও জরুরি। এর ফলে একদিকে যেমন অনিচ্ছাকৃত গর্ভধারণ এড়ানো সম্ভব, তেমনি মাতৃমৃত্যু, শিশুমৃত্যু হ্রাস করা সম্ভব।
সেবা সপ্তাহ উপলক্ষে লালখান বাজার মমতা নগর মাতৃসদনে আয়োজিত আলোচনা সভায় বক্তারা এসব কথা বলেন।
মমতার সহকারী পরিচালক (স্বাস্থ্য) প্রবীর কুমার দাশের সঞ্চালনায় আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন প্রশাসক (স্বাস্থ্য) এম এম এরশাদ, কনসালটেন্ট ডা. মোরশেদা বেগম, কনসালটেন্ট ডা. হাবিব-ই-খুদা, মেডিকেল অফিসার ডা. নিরুপমা বড়ুয়া, ডা. পুষ্পিতা চৌধুরী এবং সুপারভাইজার রুশমী আক্তার চৌধুরী প্রমুখ।
সেবা সপ্তাহে স্থায়ী পদ্ধতি ৩ জন, দীর্ঘমেয়াদী পদ্ধতি-আইইউডি ১৫, ইমপ্লানন ৩২, ইনজেকটেবল ৪০৮, খাবার বড়ি ৫৯৩, কনডম ৪৪৮, গর্ভবতীর যত্ন ৮৭৮, প্রসব সেবা ৯০, প্রসবোত্তর যত্ন ২৮৭, শিশু স্বাস্থ্য সেবা ১২৩২, কিশোর-কিশোরী ৩৬২, সাধারণ রোগীর সেবা ৯৬৯ সহ মোট ৫ হাজার ৩১৭ জন রোগীর সেবা প্রদান করা হয়েছে। প্রেস বিজ্ঞপ্তি।

x