প্রথিতযশা ছোটগল্পকার প্রভাতকুমার মুখোপাধ্যায়

রবিবার , ৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ at ৪:৫৯ পূর্বাহ্ণ
18

প্রভাতকুমার মুখোপাধ্যায়। বাংলা সাহিত্যাঙ্গনে ছোটগল্পের বিশিষ্ট শিল্পী। হাস্যরস তাঁর রচনার প্রধান বৈশিষ্ট্য। রবীন্দ্রসমকালীন এই লেখকের রচনা পাঠ করে স্বয়ং রবীন্দ্রনাথও সপ্রশংস অভিমত ব্যক্ত করেছেন। আজ এই কথাশিল্পীর ১৪৬তম জন্মবার্ষিকী।
প্রভাতকুমার মুখোপাধ্যায়ের জন্ম ১৮৭৩ সালের ৩রা ফেব্রুয়ারি বর্ধমানে। কর্মজীবনে কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ে আইন কলেজের অধ্যাপক ছিলেন। সতেরো বছর বয়সে একটি কবিতা ছাপা হয় ‘ভারতী’ ও ‘বালক’ পত্রিকায়। তাঁর রচিত প্রথম গল্প ‘শ্রীবিলাসের দুর্বুদ্ধি’ প্রকাশিত হয়েছিল ‘প্রদীপ’ পত্রিকায় রাধামণি দেবি ছদ্মনামে। তবে ‘দাসী’ পত্রিকায় রবীন্দ্র্রনাথের ‘চিত্রাঙ্গদা’র একটি আলোচনামূলক লেখা দিয়ে তাঁর গদ্য রচনার শুরু। ১৮৯৯ সালে গল্পগ্রন্থ ‘নবকথা’ প্রকাশিত হওয়ার পর সাহিত্যাঙ্গনে সাড়া জাগে এবং ছোটগল্পকার হিসেবে বিশিষ্টতা অর্জন করেন প্রভাতকুমার। তাঁর রচিত ছোটগল্পগুলোর মধ্যে ‘নবকথা’, ‘ষোড়শী’, ‘দেশী ও বিলাতী’, ‘গল্পাঞ্জলি’, ‘গল্পবিথী’, ‘পত্রপুষ্প’, ‘গহনার বাঙ’, ‘হতাশ প্রেমিক’, ‘বিলাসিনী’, ‘ফুলের মূল্য’, ও ‘দেবী’ উল্লেখযোগ্য। ‘রত্নদ্বীপ’ তাঁর একটি জনপ্রিয় উপন্যাস। প্রভাতকুমারের রচনার প্রধান বৈশিষ্ট্যই হলো কৌতুক ও অনাবিল হাস্যরস।
তবে আটপৌরে জীবনের স্বাভাবিক কিংবা গভীরতর সমস্যাও তাঁর কিছু কিছু রচনায় স্থান পেয়েছে। আর এর মধ্য দিয়ে লেখকের সূক্ষ্ম ও গভীর চেতনাবোধের পরিচয় পাওয়া যায়। প্রভাতকুমার মুখোপাধ্যায়ের সব রচনাই আকর্ষণীয় ও সুখপাঠ্য। ১৯৩২-এর ৫ই এপ্রিল হাস্যরসস্রষ্টা এই কথাশিল্পী প্রয়াত হন।

x