পৃথিবীর প্রথম পাখির ফসিল

অর্ক রায় সেতু

বুধবার , ১২ জুন, ২০১৯ at ৬:৩৭ পূর্বাহ্ণ
38

আমদের পৃথিবীতে মানুষ ছাড়াও অসংখ্য বিচিত্রময় প্রজাতির প্রাণী বাস করে। বেশকিছু প্রাণীর অস্তিত্ব সময়ের সাথে ধুয়ে মুছে গেছে আবার তারা বিবর্তিত হয়ে হয়েছে আরো আধুনিক। যদি জুরাসিক যুগের দিনগুলোতে ফিরে যাই তাহলে জীববৈচিত্রের ভিন্ন একটা রূপ মানুষের চোখে ভেসে আসবে। ঐসময়ের প্রাণীটিদের হয়তো আর দেখা মিলবেনা। ছড়িয়ে থাকবে ধুলো মাটির আবরনে মিশে থাকা প্রাণীদের ফসিল। কারণ সময়ের সাথে প্রাণীটির অস্তিত্বের বিপর্যয় ঘটেছে এক এক করে তারা হারিয়ে গেছে। নতুবা প্রাণীগুলো আধুনিক প্রণীতে পরিণত হয়েছে। তখনকার প্রণীগুলোর পর্যপ্ত অক্সিজেনসহ খাবার সংকট গ্রহের উৎপাত পরিবেশ খুব একটা উপযোগী ছিলনা বলা যায়। ফলে তাদের মধ্যে বিশাল এক বিবর্তন ঘটতে শুরু করলো।
স্যার ডারউইন দেখিয়েছিল থিউরি অফ এভুলেশনে নানা তত্ত্ব। আধুনিক প্রাণিদের মধ্যে দিয়ে হারিয়ে যাওয়া প্রাণীদের পূর্বপুরষদের কাছে ফিরে যাওয়া যায় জানা-যায় তাদের আকার আকৃতি বৈশিষ্ট্য কেমন ছিল ইত্যাদি। ডারউইন পৃথিবীর বিভিন্ন জায়গা ভ্রমণ করে প্রাণীজগতের মূল গোড়াপত্তনটা উদ্ভাসন করেছিলেন। আজ আকাশের সৌন্দর্য বর্দ্ধনকারী একটা প্রাণীর কাছে ফিরে যাব। প্রাণীগুলো যখন একএক করে নীল পৃথিবীতে উড়তে থাকে, খুব চমৎকার একটা শিল্প মানুষের চোখে ধরা পড়ে। এই পাখিদের পূর্ব পুরুষ ছিল ডাইনোসরা যারা ৬৯ মিলিয়ন বছর আগে পৃথিবীর বুক থেকে হারিয়ে গিয়েছিল।
সালটা ১৮৫৯ ডারউইন তার অরিজিন অব স্পিসিস্‌ বইয়ে পখি নিয়ে বলেন পাখিরা সরীসৃপ প্রজাতি থেকে এসেছে। সরীসৃপ হলো যে প্রাণী বুকে ভর দিয়ে চলে। অদ্ভুত বিষয় হল ডারউইনের এমন মতবাদে বিজ্ঞান মহলে সৃষ্টি হয় নানা বিতর্ক। ১৮৬১ খ্রিস্টাব্দে ব্যাভেরিয়ার ল্যাঙ্গেনাল থেইম অঞ্চলে একটি শেট পাথরের খনি থেকে অবিষ্কৃত হওয়া জীবাশ্ম পুরো ধারণা বদলে দিয়েছিল। সেটা ছিল অনেকটা সরীসৃপের মতো শরীরে ছোট ছোট হাড় রয়েছে আর সরু তিনটি নখরযুক্ত আঙুল দেখা গিয়েছিল। এছাড়াও প্রাণীটির কিছু বৈশিষ্ট্য ডারউইনের মতবাদকে আরো শক্ত করে তুলেছিল। বিজ্ঞানীরা প্রাণীটিকে আদিপক্ষী হিসেবে নামকরণ করেন। প্রাণীটির আকার শারীরিক গঠন বলছিল এরা উড়তে পারতোনা। কিন্তু এরা উড়ার চেষ্টা করেছিল। হতে পারে প্রতিকূল পরিবেশে নিজেদের অস্তিত্ব টিকিয়ে রাখার জন্য। এদের গড়ন ছিল পাখিদের মতো শেষমেশ টিকে থাকার লড়াইয়ে আদিপাখিরাও হেরে গেল। তবে আজকের আধুনিক পাখিরা আকারে আদিপাখিদের তুলনায় বেশ ছোট। আজকের পরিবেশের সাথে তারা আজ নিজেদের খাপ খাইয়ে নিয়েছে। একদিন হয়তো আধুনিক পাখিরাও পৃথিবী থেকে হারিয়ে যাবে যেমনটা আদি পাখিদের বেলায় ঘটেছিল।

x