পূবালী ব্যাংকের ৩য় ইসলামী ব্যাংকিং উইন্ডোর যাত্রা শুরু

আজাদী প্রতিবেদন

সোমবার , ২৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ at ৫:২৬ পূর্বাহ্ণ
333

পূবালী ব্যাংক লিমিটেড, ইসলামী ব্যাংকিং উইন্ডো, সিডিএ করপোরেট শাখার উদ্বোধন উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ব্যাংক পরিচালনা পর্ষদের চেয়ারম্যান এম আজিজুল হক বলেন, গ্রাহকদের মুনাফা দেয়া এবং ব্যবসায়ীদের কাছ থেকে লাভ গ্রহণ করার মধ্যে ৪/৫ শতাংশের ব্যবধান থাকতে হয়। অন্যথায় ব্যবসা ও ব্যাংক কোনটাই ভালো চলে না। দেশে ইসলামী ব্যাংকিংয়ের রূপাকার এম আজিজুল হক আরো বলেন, প্রতিটি দেশেই রাজনীতির একটি এবং অর্থনীতির জন্য একটি রাজধানী রয়েছে। আমাদের দেশের অর্থনীতির রাজধানী হচ্ছে চট্টগ্রাম। বাণিজ্যিক রাজধানী খ্যাত চট্টগ্রামকে আমরা আলাদাভাবে গুরুত্ব দিয়ে থাকি।
চট্টগ্রাম প্রিন্সিপাল অফিসের মহাব্যবস্থাপক হাবিবুর রহমানের সভাপতিত্বে চট্টগ্রামে ব্যাংকের ৩য় ইসলামী ব্যাংকিং উইন্ডোর যাত্রা শুরু উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি এম আজিজুল হক বলেন, ইসলামী ব্যাংকিং দেশের অর্থনীতিতে অবদান রাখছে। প্রচলিত ব্যাংকিং ব্যবসার পাশাপাশি ইসলামী ব্যাংকিংকেও আমরা গুরুত্ব দিয়ে এগিয়ে নিচ্ছি।
ব্যাংকের পরিচালনা পর্ষদের পরিচালক ব্যবসায়ী ফাহিম আহমেদ ফারুক চৌধুরী বলেন, পূবালী ব্যাংক গ্রাহকদের পরিপূর্ণ সেবা দিতে বদ্ধপরিকর। রাসুলে আকরাম (দ:) এর জমানায় রাষ্ট্রীয় কোষাগার চালু ছিল। সেখান থেকে মানুষ সেবা পেত। এদেশের মানুষ ইসলামী ব্যাংকিং এ বেশ আগ্রহী। এ কথা মাথায় রেখেই আমরা এ ধরনের ব্যাংকিংয়ে মনোনিবেশ করেছি।
ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও সিইও মোহাম্মদ আবদুল হালিম চৌধুরী বলেন, বিপদের সময় অধিকাংশ ক্ষেত্রে ব্যাংক গ্রাহকদের পাশে থাকেন না। এক্ষেত্রে আমরা একেবারেই ব্যতিক্রম। আমরা চেষ্টা করি গ্রাহকদের বিপদের সময় বিভিন্নভাবে তাকে সহায়তা করতে। উপ-মহাব্যবস্থাপক মোহাম্মদ আলী বলেন, ১৯৫৯ সালে ইস্টার্ন মার্কেন্টাইল ব্যাংক নামে এ ব্যাংকের যাত্রা শুরু। ৬০ বছর বয়সী এ ব্যাংক গ্রাহককে মেরে লাভ করে না। তিনি চলতি বছর ১২০০ কোটি টাকা লাভের ব্যাপারে প্রত্যয় ব্যক্ত করেন।
ইসলামী ব্যাংকিং উইং এর মহাব্যবস্থাপক এবিএম আবদুস সাত্তার বলেন, ইসলামী ব্যাংকিং সবকিছুতেই হবে। ইসলাম পরকাল নির্ভর বলে এ ব্যাংকিং এ স্বচ্ছতা ও সততা থাকে। যাতে ব্যাংক ও গ্রাহক উভয়ই লাভবান হয়।
চট্টগ্রাম চেম্বার অব কমার্সের সভাপতি মাহবুবুল আলম বলেন, ব্যবসায়ী ও গ্রাহকদের সেবায় এ ব্যাংক কাজ করছে। ব্যবসায় উত্থান পতন আছে। ব্যাংককে ব্যবসায়ীদের অসুবিধাগুলোও দেখা দরকার। তিনি আরো বলেন, অনেকে ব্যাংকের টাকাকে নিজের টাকা মনে করে। এটা ঠিক নয়। ব্যাংক আমাদেরকে টাকা দেয় ব্যবসা করার জন্য। গত এক দশকে এগ্রেসিভ ব্যাংকিং হয়েছে দেশে। এ কারনে সেক্টরটিতে আজ এ অবস্থা চলছে।
ওয়েল গ্রুপের এমডি সৈয়দ সিরাজুল ইসলাম কমু বলেন, লোভের সংস্কৃতি কাজ করছে আমাদের মাঝে। ১৫/১৬% সুদ দিয়ে পৃথিবীতে কোনো ব্যবসা টেকসই হতে পারার কথা না। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ও অর্থমন্ত্রী ব্যাংক ঋণের সুদ ৯ শতাংশ দেখতে চান। কিন্তু কে শুনে কার কথা। তিনি আরো বলেন, বিষয়টা দাঁড়িয়েছে বই কেনা প্রবন্ধের মতো। বইয়ের দাম বেশি বলে পাঠকরা বই কিনতে পারেন না। আর পাঠকরা কিনেন না বলে বইয়ের দাম কমানো যায় না। প্রিমিয়ার সিমেন্টের এমডি ও সিইও আমিরুল হক চৌধুরী পূবালী ব্যাংক কর্তৃপক্ষকে উদ্দেশ্য করে বলেন, চট্টগ্রামকে ফেলে দেবেন না দয়া করে। এখান থেকে কোনো ফাইল গেলে গুরুত্ব দিন। যারা ভালো ব্যবসা করে তাদেরকে ঋণ সুবিধা দিন। যাতে তা ফেরত পাওয়া যায়। আপনারা দেখবেন ‘ম্যান বিহাউন্ড দ্য প্রজেক্ট’। ৩য় ইসলামী ব্যাংকিং উইন্ডো চট্টগ্রামের প্রধান নজরুল ইসলাম বলেন, এ ব্যাংকের সমৃদ্ধ পালকের সাথে যুক্ত হয়েছে ৬০ বছরের গৌররোজ্জল ঐতিহ্য। এরই ধারাবাহিকতায় আজ এ শাখার যাত্রা শুরু হচ্ছে।
খান এগ্রো প্রডাক্টের স্বত্বাধিকারী মো. সৈয়দুল হক খান বলেন, ব্যাংক গ্রাহকের টাকাই গ্রাহকের কাছে বিনিয়োগের মাধ্যমে ব্যবসা করে। আমরা ইসলামী ব্যাংকিং এ অভ্যস্ত হয়ে গেছি। পূবালী ব্যাংক হাঁটছে একই পথে। গ্রাহকের সর্বোচ্চ সেবার কথা মাথায় রেখেই পূবালী ব্যাংক বড় পরিসরে ইসলামী ব্যাংকিং হবে এটাই প্রত্যাশা। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন, বিশিষ্ট চিকিৎসক ডা. মঈনুল ইসলাম মাহমুদ ও দৈনিক আজাদীর পরিচালনা সম্পাদক ওয়াহিদ মালেকসহ অন্যান্যরা।

x