পাহাড়তলীতে বৈদ্যুতিক টাওয়ার থেকে পড়ে রেলশ্রমিকের মৃত্যু

শ্রমিকদের বিক্ষোভ, নিরাপত্তা দাবি

আজাদী প্রতিবেদন

রবিবার , ১৪ এপ্রিল, ২০১৯ at ৬:৫১ পূর্বাহ্ণ
431

নগরীর পাহাড়তলী রেলওয়ে কারখানায় বৈদ্যুতিক টাওয়ার থেকে পড়ে হাবিবুর রহমান (২৭) নামের এক শ্রমিক নিহত হয়েছেন। নিহত হাবিবুর রহমান ফটিকছড়ির পাইন্দং ক্যাপ্টেন এম এন সাফার বাড়ির মৃত শফিউল আলমের ছেলে। গতকাল শনিবার বেলা ১২টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় শ্রমিকরা বিক্ষোভ প্রদর্শন করে। পরবর্তীতে শ্রমিকদের নিরাপত্তা বিধানসহ ৮ দফা দাবিতে ৭ দিনের আল্টিমেটাম দিয়ে আন্দোলনের ঘোষণা দেয় শ্রমিক নেতারা। এর পরিপ্রেক্ষিতে কর্তৃপক্ষ দাবি-দাওয়াগুলো বেঁধে দেয়া সময়ের মধ্যে বাস্তবায়নের আশ্বাস দেয়।
চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতাল পুলিশ ফাঁড়ির সহকারী উপ-পরিদর্শক আলাউদ্দিন তালুকদার জানান, পাহাড়তলী রেলওয়ে কারখানার বৈদ্যুতিক টাওয়ারে কাজ করতে গিয়ে হঠাৎ হাত ফসকে নিচে পড়ে যান হাবিবুর রহমান। এসময় নিচে লোহার রডের সাথে লেগে মাথা ফেটে অত্যধিক রক্তক্ষরণ হয়। গুরুতর আহত অবস্থায় চমেক হাসপাতালে নিয়ে আসলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।
ঘটনাস্থলে থাকা শ্রমিকদের টিম ইনচার্জ আনোয়ারুল ইসলাম জানান, রেলওয়ে কারখানার ভিতরে চারজন শ্রমিক একসাথে কাজ করছিল। হাবিবুর রহমান একটা বৈদ্যুতিক পিলারে কাজ করার সময় অসতর্কতায় নিচে পড়ে যান। এসময় নিচে থাকা লোহার রডের আঘাতে মাথা ফেটে রক্তক্ষরণ হতে থাকে। তাৎক্ষণিক রেলওয়ের অ্যাম্বুলেন্সের মাধ্যমে চমেক হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়।
নিহত হাবিবুরের বড় ভাই মোহাম্মদ মানিক বলেন, আমরা দুই ভাই একত্রে নগরীর রাজাপুকুর লেইনে ভাড়া বাসায় থাকি। হাবিবুরের মৃতদেহ ফটিকছড়িতে পাইন্দংয়ের গ্রামের বাড়িতে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে।
এদিকে এ দুর্ঘটনাকে কেন্দ্র করে সিআরবি এলাকায় রেলওয়ে শ্রমিক ইউনিয়নের নেতৃবৃন্দ গতকাল বিকাল ৪টার দিকে বিক্ষোভ সমাবেশ করে। শ্রমিকদের নিরাপত্তাসহ বিভিন্ন দাবিতে আন্দোলনের ঘোষণা দেয় তারা। শ্রমিক নেতা সিরাজুল ইসলাম বলেন, আমরা শ্রমিকদের নিরাপত্তাসহ ৮ দফা দাবিতে ৭ দিনের আল্টিমেটাম দিয়ে আন্দোলনের ঘোষণা দিই। একইসাথে নিহতের পরিবারের সক্ষম ব্যক্তির চাকরির নিশ্চয়তাও চাই। কর্তৃপক্ষ আমাদের দাবি-দাওয়াগুলো নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে মেনে নেয়ার আশ্বাস দেয়।
রেলওয়ে পূর্বাঞ্চলের তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী এফ. এম মহিউদ্দিন জানান, শ্রমিকদের দাবি-দাওয়াগুলো নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যেই সমাধানের আশ্বাস দেয়া হয়েছে। এছাড়া শ্রমিকের মৃত্যুতে সরকারি নিয়ম অনুযায়ী নিহত হাবিবুর রহমান প্রাপ্য সবকিছুই পাবেন। ওনার পরিবারে চাকরি করার মত সক্ষম কেউ থাকলে আমাদের পক্ষ থেকে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

x