পালাতে বাধ্য হলেন পাকিস্তানের আলোচিত মানবাধিকারকর্মী

রবিবার , ২২ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ at ৯:০৫ পূর্বাহ্ণ
268

কয়েক মাস ধরে আত্মগোপনে থাকার পর অবশেষে পাকিস্তান ছেড়ে যুক্তরাষ্ট্রে পালিয়ে যেতে বাধ্য হয়েছেন দেশটির আলোচিত মানবাধিকারকর্মী গুলালাই ইসমাইল। নারী নির্যাতন-নিপীড়নের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করে প্রতিপক্ষের রীতিমতো ‘গলার কাঁটা’ বনে গিয়েছিলেন তিনি। পালিয়ে গিয়ে বিবৃতিতে গুলালাই সংবাদমাধ্যমকে জানিয়েছেন, গত কয়েকমাস ছিল তার জন্য ভয়াবহ। তাকে হুমকি দেওয়া হয়েছে। হয়রানি করা হয়েছে। বেঁচে থাকার জন্য নিজেকে ভাগ্যবান মনে করেন তিনি। তবে কবে, কখন, কীভাবে পালিয়ে গেছেন, সে ব্যাপারে কিছু বলেননি। যদিও তাকে ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞার আওতায় রেখেছিল পাকিস্তান। তবে এ বিষয়ে নিউইয়র্ক টাইমসকে তিনি বলেন, আমি বিমানবন্দর থেকে উড়ে আসিনি। খবর বাংলানিউজের।
সংবাদমাধ্যম বলছে, গুলালাই ইসমাইলের বিরুদ্ধে ‘রাষ্ট্রবিরোধী কার্যক্রম’ এবং ‘সহিংসতা প্ররোচিত’ করার অভিযোগ রয়েছে। নিউইয়র্ক টাইমস এক প্রতিবেদনে বলেছে, ৩৩ বছর বয়সী বিশিষ্ট মানবাধিকারকর্মী গুলালাই ইসমাইল বর্তমানে নিউইয়র্কে অবস্থান করছেন। সঙ্গে তার বোন আছেন। একইসঙ্গে তিনি যুক্তরাষ্ট্রে রাজনৈতিক আশ্রয়ের আবেদন করেছেন। পাকিস্তানসহ সংশ্লিষ্ট মহলে নারী অধিকার কর্মী হিসেবে সুপরিচিত নাম গুলালাই ইসমাইল। বেশ কয়েক বছর ধরে গুলালাই মানবাধিকার নিয়ে, বিশেষত নারী ও মেয়েদের নির্যাতনের বিরুদ্ধে মানবাধিকার লঙ্ঘনের স্পষ্টবাদী সমালোচক। ২০১৩ সালে ইসমাইল ১০০ জন নারীকে নিয়ে একটি সংগঠন শুরু করেন। এরপর নারীদের সহিংসতা ও বাল্যবিয়ে রোধে কাজ শুরু করে সংগঠনটি। যদিও গুলালাই মানবাধিকারের কাজ আরও বহু আগে থেকে। ১৬ বছর বয়সে প্রথম নারী অধিকার নিয়ে কাজ নামেন ইসমাইল। কাজের জন্য অনেক পুরস্কারও পেয়েছেন গুলালাই।

x