পাম্প মেশিন ছাড়া ৫ তলায় উঠবে ওয়াসার পানি

সাড়ে চার হাজার কোটি টাকার প্রকল্প নির্ধারিত সময়ের আগেই শেষ হওয়ার আশা

হাসান আকবর

সোমবার , ১৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ at ৫:১১ পূর্বাহ্ণ
1911

ভবনের পাঁচতলা পর্যন্ত পাম্প মেশিন ছাড়াই উঠবে ওয়াসার পানি। আগামী বছরের শেষ দিকে চট্টগ্রামে এই সুবিধা মিলবে সংস্থাটির তরফে। ওয়াসার প্রায় সাড়ে ছয়শ’ কিলোমিটার পাইপ লাইন পাল্টানোর ফলে বাড়ানো হচ্ছে পানির চাপ। ফলে প্রক্রিয়াটি পুরোপুরি শেষ হলে পাঁচতলা পর্যন্ত ভবনে অনায়াসে পৌঁছে যাবে পানি। প্রায় সাড়ে চার হাজার কোটি টাকা ব্যয়ে পুরনো পাইপ লাইন পাল্টানোর পাশাপাশি নতুন লাইন স্থাপনের কাজ করছে সংস্থাটি।
সূত্র জানিয়েছে, নগরীতে চট্টগ্রাম ওয়াসার প্রায় এক হাজার কিলোমিটার পাইপ লাইন রয়েছে। দীর্ঘ এই পাইপ লাইনের বেশিরভাগই পুরনো। ১৯৬৩ সালে নগরীর বিভিন্ন এলাকায় এসভেস্টর সিমেন্ট বা এসি পাইপ স্থাপন করা হয়। ২৫/৩০ বছর আয়ুষ্কালের এসব পাইপের মেয়াদ ফুরিয়ে গেছে বহু আগে। স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর এসব পাইপ দীর্ঘদিন ব্যবহারে জরাজীর্ণ হয়ে পড়েছে। ফলে যখন তখন, যেখানে সেখানে ফুটো হয়ে যাচ্ছে। পানির স্বাভাবিক চাপ নিতে অক্ষম এসব পাইপ দিয়ে ওয়াসার পানি সরবরাহ ব্যাহত হচ্ছে। বর্তমানে পানির প্রবাহ বাড়ানোর সাথে সাথে নগরীর বিভিন্ন পাইপ ফুটো হয়ে যাচ্ছে। এতে পানির অপচয় কমাতে পানির চাপ কমাতে বাধ্য হচ্ছে ওয়াসা।
এই অবস্থা থেকে উত্তোরণে চট্টগ্রাম ওয়াসা পুরনো পাইপ লাইন পাল্টিয়ে নতুন পাইপ লাইন স্থাপনে একটি প্রকল্প গ্রহণ করে। পরে এটি রাঙ্গুনিয়ার পোমরায় কর্ণফুলী থেকে দৈনিক ১৪ কোটি লিটার পানি উত্তোলন এবং পরিশোধন করে চট্টগ্রাম শহরে সরবরাহ দেয়া শেখ হাসিনা পানি শোধনাগার-২ প্রকল্পে যুক্ত করে দেয়। এই প্রকল্পের আওতায় নগরীর প্রায় এক হাজার কিলোমিটার পাইপ লাইনের মধ্যে ৬২৫ কিলোমিটার পাল্টানো হচ্ছে। এরমধ্যে ৪৮০ কিলোমিটার পাইপ লাইন রাস্তা পুরোপুরি না কেটে শুধুমাত্র ছিদ্র করে এইচডিডি প্রযুক্তিতে এবং বাকি ১৪৫ কিলোমিটার পাইপ লাইন রাস্তা কেটে স্থাপন করা হচ্ছে। বাকি সাড়ে তিনশ’ কিলোমিটার পাইপ ইতোমধ্যে নতুন করে স্থাপন করা হয়েছে। ৩ ইঞ্চি থেকে ৪৮ ইঞ্চি ব্যাসের এসব পাইপ লাইন স্থাপন আগামী বছরের শেষ নাগাদ পুরোপুরি শেষ হবে।
ওয়াসার পরিচালক ইঞ্জিনিয়ার একেএম ফজলুল্লাহ বলেন, চট্টগ্রাম ওয়াসা নগরবাসীর চাহিদা ২০৩৫ সাল পর্যন্ত পুরোপুরি মেটানোর সক্ষমতা অর্জন করেছে। পুরনো পাইপের কারণে বর্তমানে ৭০/৮০ পিএসআইর বেশি প্রেসার দেয়া যাচ্ছে না। কিন্তু নতুন লাইন স্থাপন সম্পন্ন হলে ১২৫ থেকে ১৫০ পিএসআই প্রেসারে পানি প্রবাহ শুরু করা যাবে। তখন পানির প্রেসারে শহরের বিভিন্ন এলাকায় পাঁচতলা পর্যন্ত উচ্চতায় অনায়াসে পানি উঠবে। এতে বাড়িতে কোনো ধরনের পাম্প ব্যবহার করতে হবে না। তিনি বলেন, পাম্প দিয়ে টেনে পানি নেয়ার দিন শেষ হতে চলেছে। নগরীর কেনো পয়েন্টেই আর পাম্প দিয়ে পানি টানতে হবে না। সব ভবনেই অনায়াসে পানি যাবে।
উল্লেখ্য, বর্তমানে নগরীতে প্রায় ৭৫ হাজার আবাসিক ভবনে ওয়াসার পানি সংযোগ রয়েছে। এর মধ্যে অন্তত ৭০ হাজার সংযোগেই পাম্প মেশিন স্থাপন করে পানি টানতে হয়। কিন্তু এসব পাম্প মেশিন অবৈধ হলেও ওয়াসা দেখেও না দেখার ভান করছে বলে অভিযোগ রয়েছে।

x