পাকিস্তানে আরেকটি হামলার পরিকল্পনা আঁটছে ভারত

উত্তেজনাবৃদ্ধির নতুন আশঙ্কার কথা জানালেন পাক পররাষ্ট্রমন্ত্রী

সোমবার , ৮ এপ্রিল, ২০১৯ at ১১:০১ পূর্বাহ্ণ
133

পাকিস্তানের পররাষ্ট্র মন্ত্রী শাহ মাহমুদ কোরেশী বলেছেন, ভারত চলতি মাসেই পাকিস্তানে আরেকটি হামলার প্রস্তুতি নিচ্ছে। ‘বিশ্বাসযোগ্য তথ্যের’ বরাত দিয়ে শনিবার মুলতানে সাংবাদিকদের উদ্দেশ্যে তিনি এ কথা বলেন। নয়া দিল্লি এ মাসের ১৬ থেকে ২০ তারিখের মধ্যেই ওই হামলার পরিকল্পনা আঁটছে, বলেছেন কোরেশী। পাকিস্তান এরই মধ্যে জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদের পাঁচ স্থায়ী সদস্যকে এ বিষয়ে অবহিত করেছে বলেও জানিয়েছেন তিনি। কাশ্মীরের পুলওয়ামায় পাকিস্তানভিত্তিক জঙ্গিগোষ্ঠী জইশ-ই-মোহাম্মদের গাড়িবোমা হামলার পর ফেব্রুয়ারিতে পারমাণবিক শক্তিধর দুই প্রতিবেশীর মধ্যে যে ভয়াবহ উত্তেজনা দেখা গিয়েছিল, দিন দিন তা থিতিয়ে এলেও এর রেশ এখনও আছে। এর মধ্যেই কোরেশী পাক-ভারত উত্তেজনাবৃদ্ধির নতুন আশঙ্কার কথা বললেন। খবর বাংলানিউজের।
পুলওয়ামায় ওই হামলার প্রতিক্রিয়ায় ২৭ ফেব্রুয়ারি পাকিস্তানের বালাকোটে একটি জঙ্গি প্রশিক্ষণ শিবিরে হামলার দাবি করে ভারতীয় বিমান বাহিনী। পরদিন পাকিস্তান ভারতের একটি বিমানকে ভূপাতিত করে এর চালককে আটকও করেছিল। ইসলামাবাদ পরে ওই চালককে ছেড়ে দিলে উত্তেজনা অনেকখানিই প্রশমিত হয়। ‘আমাদের কাছে থাকা বিশ্বাসযোগ্য তথ্য অনুযায়ী ভারত পাকিস্তানে নতুন আরেকটি হামলার প্রস্তুতি নিচ্ছে। ১৬ এপ্রিল থেকে ২০ এপ্রিলের মধ্যে ওই হামলা হতে পারে বলে তথ্য বলছে,’ ভাষ্য পাক পররাষ্ট্র মন্ত্রীর। পাকিস্তানের কাছে হামলা বিষয়ে কী ধরনের তথ্য আছে তার বিস্তারিত জানাননি কোরেশী, হামলার দিনক্ষণ বিষয়ে এতটা নিশ্চিত কীভাবে হলেন খোলাসা করেননি তাও।
পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান ভারতের সঙ্গে এ বিষয়ক তথ্য ভাগাভাগি করতে রাজি হয়েছেন বলেও মন্তব্য তার। কোরেশীর বক্তব্য নিয়ে ভারতের পররাষ্ট্র দপ্তর তাৎক্ষণিকভাবে কোনো মন্তব্য করেনি। ইমরান এর আগে বলেছিলেন, লোকসভা নির্বাচনে ফায়দা নিতেই ভারতের ক্ষমতাসীন দল বিজেপি যুদ্ধের দামামা বাজাচ্ছে। ফেব্রুয়ারির মুখোমুখি অবস্থার সময় ভারত পাকিস্তানের একটি এফ-১৬ জঙ্গিবিমান ভূপাতিত করেছিল, নয়া দিল্লির এমন দাবির প্রতিক্রিয়ায় তিনি এ মন্তব্য করেছিলেন। বালাকোটে ভারতীয় বিমান বাহিনীর হামলার সফলতা নিয়েও ধোঁয়াশা আছে বলে জানা গেছে। আন্তর্জাতিক গণমাধ্যম সেসময় উপগ্রহের ছবিতে উত্তর-পশ্চিম পাকিস্তানের ওই এলাকায় ধ্বংসযজ্ঞের চিহ্ন মেলেনি বলে জানিয়েছিল।

x