পটিয়ায় বাড়তি ভাড়া ও গাড়ির কৃত্রিম সংকট

জিম্মি যাত্রীরা, জটিলতা নিরসনে বৈঠক

পটিয়া প্রতিনিধি

বৃহস্পতিবার , ১০ অক্টোবর, ২০১৯ at ১০:৪৬ পূর্বাহ্ণ
64

পটিয়া-চট্টগ্রাম সড়কে ভাড়তি বাসভাড়া ও যাত্রী হয়রানি নিয়ে সৃষ্ট জটিলতা নিরসনে গত মঙ্গলবার ইউএনও কার্যালয়ে এক ত্রিপক্ষীয় বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। এতে সভাপতিত্ব করেন পটিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) হাবিবুল হাসান । এতে শ্রমিক ইউনিয়নের পক্ষে উপস্থিত ছিলেন শ্রমিক ইউনিয়নের অর্থ সম্পাদক মো ইয়াছিন, যাত্রী সেবা কল্যাণ সমিতির আহবায়ক নাজিম উদ্দিন পারভেজ, সদস্য সচিব মো: বোরহান উদ্দিন, আবছার উদ্দিন সোহেল, নজরুল ইসলাম, আলমগীর বাবু, হাজি টিংকু, মো: জয়নাল আবেদীন, মো: শওকত, মো: ওমর ফারুক ছাত্রদের পক্ষে মো: তৌহিদ,আবদুল আজিজ, মো: মাহবুব, মো: এখতিয়ার মো: জিয়াউর রহমান প্রমুখ।
এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা হাবিবুল হাসান বলেন, ‘অতিরিক্ত ভাড়া নেওয়ার বিষয়ে অভিযোগ এসেছে। পটিয়া-চট্টগ্রাম রুটে অতিরিক্ত ভাড়া আদায়ের নৈরাজ্য ও যাত্রী হয়রানিতে যারা জড়িত তাদের চিহ্নিত করে দ্রুত ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে দায়ীদের শাস্তি দেওয়া হবে।’ তিনি আরো জানান, হুইপের নেতৃত্বে একটি চূড়ান্ত বৈঠক হবে এ বৈঠকে বাস ভাড়া নির্ধারণ, গাড়ির কৃত্রিম সংকট সৃষ্টিসহ জটিলতা নিরসন করা হবে।
শ্রমিক ইউনিয়নের অর্থ সম্পাদক মো ইয়াছিন জানান, বিআরটিএ কর্তৃক বেঁধে দেয়া বা ধার্যকৃত ভাড়া নিতে হবে। যদি এ বিষয়টি সবাই মেনে নেয় তাহলে বর্ধিত ভাড়া, গাড়ির কৃত্রিম সংকটসহ পটিয়া-চট্টগ্রাম লাইনে যে সমস্যাগুলো রয়েছে তা আমরা সমাধান করবো।
পটিয়া যাত্রী সেবা কল্যাণ সমিতির সদস্য সচিব মোহাম্মদ বোরহান উদ্দিন জানিয়েছেন, ‘এ পথে বাসের যাত্রীদের ২০ টাকা নির্ধারিত ভাড়া হলেও এখন প্রতিটি যাত্রীকে ভাড়া দিতে হয় কমপক্ষে ৫০ থেকে ১০০ টাকা। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যার পর থেকে কর্ণফুলী সেতু এলাকায় পটিয়ামুখী যাত্রীদের গাড়ি না পেয়ে পায়ে হেঁটে সেতু পার হতে হয়। পরে মইজ্জ্যারটেক এলাকা থেকে সিএনজি অটোরিকশা, মাহেন্দ্র, টেম্পোযোগে পটিয়ায় আসতে হয়। এ ভোগান্তি নিরসনের জন্য ত্রিপক্ষীয় বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়েছে। এরপরও যদি কোন ধরনের সুরাহা না হয় তাহলে পটিয়ার যাত্রীরা কঠোর আন্দোলনে যেতে বাধ্য হবে।’

x