নীড় ছোট ক্ষতি নেই

রুহি আফরোজ

রবিবার , ৭ অক্টোবর, ২০১৮ at ১০:৪৯ পূর্বাহ্ণ
45

আমাদের মনের ওপর ঘরের সৌন্দর্যও প্রভাব ফেলে। সুন্দর গোছানো ঘর মনকে রাখে ফুরফুরে। তাই আপনার ঘরকে গুছিয়ে রাখুন আপনার মনের মতো করে। কিন্তু অনেকেরই ধারণা ছোট ঘর দেখতে ভালো লাগে না, আবার সুন্দর করে সাজানো যায় না। কিন্তু আপনাদের এই ধারণাটি ভুল। চাইলে ছোট ঘরও মনের মতো সাজিয়ে বড় ঘরের অনুভূতি পাওয়া যায়। তাহলে জেনে নিন কীভাবে ছোট ঘর সাজালে বড় দেখাবে।
আসবাবপত্র গুছিয়ে রাখুন
ঘরের সাইজ অনুযায়ী আসবাবপত্র নির্বাচন করুন এবং সেগুলো সুন্দর করে গুছিয়ে রাখুন। আপনার রুচিবোধের অনেকাংশই প্রকাশ পায় আপনার ঘরের ব্যবহার্য আসবাবপত্রের মাধ্যমে। অনেকেই ধারণা করে ঘরে বেশি আসবাব রাখা একটা স্ট্যাটাস সিম্বল। কিন্তু এটি ঘরের সৌন্দর্যকে বাড়ানোর পরিবর্তে সৌন্দর্যকে নষ্ট করে দেয়।
এ ছাড়া ঘরে আসবাবপত্র অগোছালো থাকলে ঘর ছোট দেখায়। তাই আসবাবগুলো গুছিয়ে রাখুন। সামান্য খালি জায়গা রাখার চেষ্টা করুন দেয়াল ও আসবাবের মাঝে। সোফার পেছনে সামান্য জায়গা খালি রাখুন, আপনার খাট ও সাইড টেবিলের ক্ষেত্রেও একই কৌশল ব্যবহার করতে পারেন। এতে করে আপনার ঘরের সৌন্দর্য বেড়ে যাবে কয়েক গুণ।
ছোট পেইন্টিং এড়িয়ে চলুন
পেইন্টিং যেমন ঘরের সৌন্দর্যকে বাড়িয়ে দেয় কয়েক গুণ, তেমনি আপনার রুচির বহিঃপ্রকাশও ঘটায়। তবে ঘরে ছোট ছোট পেইন্টিং ছড়িয়ে থাকলে ঘরকে আরো ছোট দেখায়। এ ক্ষেত্রে লাইফ সাইজ ত্রিমাত্রিক সিনারিক পেইন্টিং ব্যবহার করতে পারেন। এ ছাড়া আপনি চাইলে নিজের মতো করে দেয়াল রাঙাতে পারেন এবং নানা ধরনের সিনারিক ওয়ালপেপারও ব্যবহার করতে পারেন। সিনারিক ওয়ালপেপার ব্যবহারের ফলে আপনার ঘর বড় দেখাবে, সেই সাথে দেয়ালে দিবে গভীরতার অনুভূতি।
ফ্রেঞ্চ উইন্ডোর ব্যবহার
মেঝে থেকে সিলিং বিস্তৃত ফ্রেঞ্চ উইন্ডো ঘরের স্পেসকে বড় করে দেখায়। এই জানালা এখন বেশ জনপ্রিয়ও বটে। ফ্রেঞ্চ উইন্ডোর আপনার ঘরকে দেবে নান্দনিকতার ছোঁয়া। এ ছাড়া এই জানালা ব্যবহারের ফলে, জানালা দিয়ে প্রচুর প্রাকৃতিক আলো আসে, সেই সাথে দেয়ালের বদলে একপাশে কাঁচের জানালা থাকায় আপনার চোখ কোথাও আটকে থাকে না।
মেঝে ও সিলিংয়ে সাদার ব্যবহার
শুদ্ধতার প্রতীক সাদা। আপনার ঘরের মেঝে ও সিলিংয়ে সাদা রঙের ব্যবহারের ফলে আপনি পাবেন হালকা এক অনুভূতি এবং আপনার ঘরকে দেখাবে আরো বড় এবং প্রশস্ত। আপনার ঘরের মেঝে ও সিলিং যখন সাদা রঙের হবে, তখন আপনি পাবেন শীতল ও খোলা অনুভূতি। তাই এ ক্ষেত্রে আপনি ব্যবহার করতে পারেন ঘোস্ট হোয়াইট, এগশেল, পার্ল, ক্রিম বা অফ হোয়াইট।
মাল্টিফ্যাংশনাল ডেকর
আপনার ঘরের সাইজ ছোট হলে এ ক্ষেত্রে আপনি মাল্টিফ্যাংশনাল আসবাব ব্যবহার করতে পারেন। এ ধরনের আসবাব ব্যবহারে যেমন ঘরের জায়গা কম লাগে তেমনি ঘরের সৌন্দর্যও বাড়ে।

x