নীলিমা বড়ুয়া (প্রসঙ্গ : গেইট ধরা সংস্কৃতি)

বৃহস্পতিবার , ২০ ডিসেম্বর, ২০১৮ at ৩:৩৫ পূর্বাহ্ণ
38

অন্যান্য জেলার কথা জানিনা তবে চট্টগ্রামে আমরা যারা আছি আমাদের এখানে বিয়ের দিন বর বিয়ের আসরে ঢোকার সময় কনে পক্ষের ছোট ভাই- বোন, বন্ধুরা, বৌদি বা ভাবীরা ফিতা দিয়ে গেইট ধরেন।এই ফিতা ধরার শর্ত হচ্ছে যারা গেইট ধরেন তাদের একটা দাবী বা আবদার থাকে তাহলো টাকা। বর তাদের ঐ আবদারের টাকা পরিশোধ করে ফিতা কেটে তবেই ঢুকতে পারবেন। টাকার অংক ৩০০০থেকে শুরু হয়ে ১০০০০ উর্ধ্বেও হতে পারে। এখন কথা হচ্ছে এই দাবী বা আবদার মিটানোর সময়টায় অনেক রকমের ঠাট্টা মশকরা, বাকবিতণ্ডা হয়ে থাকে। এমনও দেখা গেছেএই বাকবিতণ্ডা, মশকরা করতে গিয়ে চরম আকার ধারণ করে। যা হাতাহাতিতেও রূপ নিয়েছে।এতে কিন্তু বর এবং কনের অভিভাবক, আত্নীয়-স্বজন কেউ দায়ী নয়। তারপরও এই অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা ঘটে যায়। এমনও হয়েছে বাকবিতন্ডা রক্তারক্তি হয়ে বিয়ে পর্যন্ত ভেঙ্গে গেছে। এই সংস্কৃতি চলমান রাখতে গিয়ে যদি অপসংস্কৃতিতে পরিণত হয় তাহলে আত্মীয়তার বন্ধন আর জোড়া নাও লাগতে পারে। এক্ষেত্রে টাকার পরিমাণটা এমনভাবে দেয়া হোক যাতে বরপক্ষ তর্ক করার সুযোগ না পায়। তাতে অনেক সময়ও বাঁচবে। নয়তো একেবারেই বন্ধ করে দেয়া হোক। তাই চলুন সবাই সচেতন হই। নিরাপদ থাকুক আত্মীয়তার বন্ধন।

x