নিরাপত্তা বিষয়ে নৌবাহিনীর সঙ্গে সেতু কর্তৃপক্ষের চুক্তি

কর্ণফুলী টানেল

আজাদী প্রতিবেদন

মঙ্গলবার , ১২ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ at ৪:১৩ পূর্বাহ্ণ
102

কর্ণফুলী টানেলের নিরাপত্তা বিষয়ে নৌবাহিনীর সঙ্গে সেতু কর্তৃপক্ষের গতকাল চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়েছে। এ অনুষ্ঠানে সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেন, কর্ণফুলী টানেল নির্মাণ প্রকল্পের সার্বিক নিরাপত্তার দায়িত্ব বাংলাদেশ নৌবাহিনী নিয়েছে। নিরাপত্তার জন্য প্রায় ৬৫ কোটি টাকার চুক্তিতে স্বাক্ষর করেছে নৌবাহিনী। প্রসঙ্গত, কর্ণফুলী নদীর নেভাল একাডেমি থেকে আনোয়ারা প্রান্ত পর্যন্ত দৈর্ঘ্য সোয়া তিন কিলোমিটার। এই দৈর্ঘ্যটুকুকে এখন চট্টগ্রামবাসীর স্বপ্নের সমান বলা যায়। এখানেই নদীর তলদেশের ১৮ থেকে ৩১ মিটার গভীর দিয়ে চলবে সারি সারি গাড়ি। সে লক্ষ্যেই নির্মাণ করা হচ্ছে দেশ তথা উপমহাদেশের প্রথম টানেল সড়ক।
এ টানেলের নামকরণ করা হচ্ছে ‘বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান টানেল’। আগামী ২৪ ফেব্রুয়ারি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আনুষ্ঠানিকভাবে এর খনন কাজের উদ্বোধন করবেন বলে জানিয়েছেন কোতোয়ালী আসনের সংসদ সদস্য ও শিক্ষা উপ মন্ত্রী ব্যারিষ্টার মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল। তিনি বর্তমান মন্ত্রিসভার প্রথম বৈঠকে কর্ণফুলী টানেলটি ‘বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নামে নামকরণের প্রস্তাব করেন। সভায় প্রধানমন্ত্রী সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রীকে এই ব্যাপারে লিখিত প্রস্তাবনা পাঠানোর জন্য নির্দেশ দিলে পরবর্তীতে তা প্রধানমন্ত্রীর দপ্তরে পাঠানো হয়েছে। এদিকে বিডিনিউজ জানায় : গতকাল চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে নৌবাহিনী প্রধান ভাইস এডমিরাল আওরঙ্গজেব চৌধুরী উপস্থিত ছিলেন। নৌবাহিনীর পক্ষে কমডোর মাহমুদ মালেক এবং সেতু কর্তৃপক্ষের পক্ষে প্রধান প্রকৌশলী কাজী ফেরদৌস চুক্তিতে স্বাক্ষর করেন। কর্ণফুলী টানেল বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নামে নামকরণের প্রস্তাব প্রধানমন্ত্রীর কাছে পাঠানো হয়েছে বলে জানান সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। অনুষ্ঠানে নৌবাহিনী প্রধান আওরঙ্গজেব চৌধুরী বলেন, ‘প্রকল্প এলাকার নিরাপত্তা নিশ্চিতের পাশাপাশি নৌবাহিনী প্রাথমিক চিকিৎসা এবং প্রকল্প এলাকায় একটি কার্যালয়ও স্থাপন করবে।
চার লেইনের তিন দশমিক চার কিলোমিটার দৈর্ঘ্য বিশিষ্ট এ টানেল নির্মাণের মোট ব্যয় ধরা হয়েছে এক হাজার ৫৫ দশমিক ৮৩ মিলিয়ন মার্কিন ডলার। বাংলাদেশি টাকায় তা আট হাজার ৪৪৬ দশমিক ৬৪ কোটি টাকা।

x