নান্টুকুমার দাশ ( আয়কর)

সোমবার , ১১ জুন, ২০১৮ at ৫:৫৮ পূর্বাহ্ণ
70

মানুষ প্রয়োজনকে সামনে রেখে প্রতিদিন নানাভাবে জীবনকে সুখি করতে চাকুরী, ব্যবসা, পাঠদান, সহ আরো বিভিন্ন পেশায় নিজেকে ব্যস্ত করে আয় তুলে আনে ঘরে। কত আয়, কত খরচ, কত জমা, কত অনুদান, নানা বিবিধ ব্যয় সহ হাজারো খাত পড়ে থাকে এ আয় এর ওপর। এরপর থাকে এখান থেকে আয় কর। কখন দেবো আয় কর? কিভাবে দেব? কত ইনকামের ওপর দেব? বেঁচে থাকা আগে, না আয়কর আগে। নানা প্রশ্ন, মনকে ভাবায়। অতি সাধারণ ভাবে জীবনযাপন করতে গেলে চার জন সদস্য নিয়ে শহরে পড়ালেখা, বাসা ভাড়া, বাজার খরচ, ইত্যাদিতে খরচ পড়ে একান্ন হাজার টাকা। তাহলে বার মাসে লাগে ছয় লক্ষ বার হাজার টাকা, আমাদের আয় কর লিমিট ধরা হল দুইলক্ষ পঞ্চাশ হাজার টাকার উপর থেকে। এবার বাজেটে সাধারণ মানুষের কথা মাথায় রেখে আয় কর লিমিট পুনঃ নির্ধারণ করা খুবই জরুরি। এবং একটা নির্দিষ্ট পরিমাণ ফি জমা দিয়ে সহজে টিন সাটিফিকেট গ্রহণের প্রথাচালু করা হলে সবাই উপকৃত হবে। বিভিন্ন পেশার উপর ভিত্তি করে আয় কর লিমিট বিভিন্ন ভাবে হতে পারে। একজন উকিল, একজন ডাক্তার, একজন চাকুরীজীবী, একজন সরকারি চাকুরীজীবী, যেমন এদের আয় ভিন্নতা আছে, তেমন আছে সরকারের অধিকার। কারণ সরকার বিভিন্নভাবে এদের পেছনে খরচ করেছে।

x