নাইজেরিয়ায় স্কুল ভবন ধসে ১০ শিক্ষার্থীর মৃত্যু

ব্রাজিলে বন্দুকধারীর হামলায় নিহত ১০

বৃহস্পতিবার , ১৪ মার্চ, ২০১৯ at ১০:২১ পূর্বাহ্ণ
18

নাইজেরিয়ার লাগোস শহরের ইটা ফাজির আইল্যান্ডে একটি স্কুল ভবন ধসে পড়ে অন্তত ১০ জন নিহত হয়েছে। এ ঘটনায় শিশুসহ অনেকে এখনো ধ্বংসস্তুপের নিচে আটকে আছে বলে জানা গেছে। গতকাল স্থানীয় সময় সকাল ১০টায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। চার তলা বিশিষ্ট ভবনের উপরের তলায় অবস্থিত স্কুলটিতে ১০০ জনেরও বেশি ছাত্র ছিল বলে সংবাদ মাধ্যম বিবিসিকে জানিয়েছে উদ্ধারকারী কর্মকর্তারা।
তারা জানান, প্রায় ৪০ জন শিক্ষার্থীকে জীবিত উদ্ধার করা হয়েছে। বাকি শিক্ষার্থীদের উদ্ধারের জন্য অভিযান চলছে।
লেগোস দ্বীপের ইতা ফাজি আবাসিক এলাকার তিনতলা ওই ভবনের উপরের তলায় একটি প্রাথমিক বিদ্যালয় ছিল বলে জানায় বিবিসি। বিদ্যালয়টিতে শতাধিক শিক্ষার্থী লেখাপড়া করত। বার্তা সংস্থা রয়টার্সে প্রকাশিত ছবিতে ভবনের ধ্বংসস্তুপ থেকে উদ্ধারকর্মীদের কয়েকটি শিশুকে বের করে আনতে দেখা যায়। উদ্ধারকর্মীরা ধসে পড়া ভবনের পিলার, কংক্রিটের বিশাল স্ল্যাব এবং দুমড়েমুচড়ে যাওয়া ধাতবখণ্ড সরিয়ে শিশুদের বের করে আনার চেষ্টা করছেন। ভবনটি ধসে পড়ার কারণ তাৎক্ষণিকভাবে জানা যায়নি।
স্থানীয় সময় বুধবার সকাল ১০টার দিকে ভবনটি ধসে পড়ে বলে জানান ন্যাশনাল ইমার্জেন্সি ম্যানেজমেন্ট এজেন্সির মুখপাত্র ইব্রাহিম ফারিনলোই। শিশুসহ অনেক মানুষ ধসে পড়া ভবনের নিচে চাপা পড়ে আছে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। ২০১৬ সালে নাইজেরিয়ার দক্ষিণাঞ্চলে একটি গির্জার ছাদ ধসে শতাধিক মানুষের মৃত্যু হয়েছিল।
এদিকে ব্রাজিলের সাও পাওলোর একটি স্কুলে বন্দুকধারীর হামলায় ১০ জন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন আরো কমপক্ষে ১০ জন। পুলিশের বরাতে আন্তর্জাতিক সংবাদ মাধ্যম জানিয়েছে, ব্রাজিলের দক্ষিণ-পূর্বাঞ্চলীয় সাও পাওলোর সুজানো শহরে হামলার ওই ঘটনা ঘটে। পুলিশ বলছে, হামলার পেছনে ‘অস্ত্রধারী ও মুখোশ পরিহিত’ দুই কিশোর জড়িত। নিহতদের মধ্যে ঠিক কতোজন শিশু এবং দুই হামলাকারী রয়েছেন কিনা তা নিশ্চিত নয়। এছাড়া জানা যায়নি হামলার কারণ। তবে হামলাকারীরা স্কুলটির সাবেক শিক্ষার্থী বলে জানিয়েছে সংবাদ মাধ্যম।
হামলার স্থল থেকে রিভলবার, তীর-ধনুক, ককটেল, ছুরি উদ্ধারের কথা জানিয়েছে পুলিশ। ঘটনার পর সাও পাওলো গভর্নর জোয়াও দরিয়া তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন। অন্যদিকে ওই ঘটনার আগে ওই স্কুল প্রাঙ্গণে আরেকটি গুলির ঘটনায় একজন আহত হয়েছেন। ঘটনা দু’টির একটির আরেকটির সঙ্গে যোগ রয়েছে কিনা তা খতিয়ে দেখছে পুলিশ।
এর আগে ২০১১ সালে রিও ডি জেনেইরো-তে সাবেক এক স্কুল শিক্ষার্থীর গুলিতে ১২ শিক্ষার্থীর মৃত্যু হয়। যা এখন পর্যন্ত দেশটিতে স্কুলে সবচেয়ে বড় কোনো গুলির ঘটনা।

- Advertistment -