নদীর ভাঙনে প্রতিশ্রুতি

শনিবার , ৯ মার্চ, ২০১৯ at ১০:৩০ পূর্বাহ্ণ
22

বিগত কয়েক বছর যাবত কর্ণফুলীর অব্যাহত ভাঙনের ফলে নদী পাড়ের অধিবাসীদের বহু ঘর-বাড়ি, গাছপালা, ফসলি জমি, মসজিদ, মাদ্রাসা, স্কুল, রাস্তা নদীর গর্ভে বিলীন হয়ে গেছে। বোয়ালখালীর চরণদ্বীপের পূর্ব ঘাটিয়াল পাড়ার ৫ শতাধিক মানুষ ভিটে মাটি হারানোর আতঙ্কে নির্ঘুম জিম্মি দশায় দিন কাটাচ্ছে। নদীর ধ্বংসযজ্ঞ যে কত ভয়াবহ স্বচক্ষে না দেখলে তার প্রলয়ংকরী রূপ বোঝা যায় না। কর্ণফুলী নদীর ভয়াবহ ভাঙনে একদিকে বিলীন হচ্ছে গ্রামটি অন্যদিকে ছোট হয়ে আসছে বোয়ালখালীর মানচিত্র। বোয়ালখালীর অংশের চরণদ্বীপ ঘাটিয়াল পাড়া বেড়িবাঁধটি ভেঙে যাচ্ছে অনবরত। সামান্য যা আছে অবশিষ্ট তা আগামী বর্ষার মধ্যে বিলীন হয়ে যাওয়ার আশঙ্কা অনেকের। এলাকার মানুষের অভিযোগ, প্রতিবার নির্বাচনের সময় জনপ্রতিনিধিরা এলাকায় এসে বিভিন্ন প্রতিশ্রুতি দিয়ে যান। নির্বাচনী বৈতরণী পার হবার পর সব প্রতিশ্রুতি বেমালুম ভুলে যান। ইতোপূর্বে আজাদীতে একাধিকবার ভাঙনের সচিত্র রিপোর্ট প্রকাশিত হবার পরও কর্তৃপক্ষের টনক নড়েনি। তাছাড়া জনপ্রতিনিধি ভাঙন রোধে নদীতে ব্লক ফেলার প্রতিশ্রুতি দিলেও এখনো পর্যন্ত এর কোন লক্ষণ তাদের চোখে পড়ছে না। তাই বর্ষার আগে ভাঙন রোধে কার্যকর পদক্ষেপ না নিলে এলাকার মানুষের উদ্বেগ-উৎকণ্ঠা কমবে না। তাই, মাথা গোঁজার ঠাঁই সামান্য বাড়িটুকু রক্ষাকল্পে তড়িৎ ব্যবস্থা নেয়া এখনই জরুরি। এ ব্যাপারে সরকারের দায়িত্বশীল ব্যক্তির বাস্তব পদক্ষেপ কামনা করছি।

– এম. এ. গফুর, বলুয়ার দীঘির দক্ষিণ-পশ্চিম
পাড়, কোরবাণীগঞ্জ, চট্টগ্রাম।

x