নগরীতে বাসে ছাত্রীকে যৌন হয়রানি

ছাত্রদের বাস ভাংচুর, চালক-হেলপার আটক

আজাদী অনলাইন

শনিবার , ৫ মে, ২০১৮ at ৫:৪২ অপরাহ্ণ
1022

নগরীতে একটি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রীকে বাসে যৌন হয়রানির পর তার সহপাঠীরা বাসটি ভাংচুর করেছে। তারপর তারা বাসটির চালক ও সহকারীকে ধরে পুলিশে দেয়। খবর বিডিনিউজের

আজ শনিবার (৫ মে, ২০১৮) দুপুরে এ ঘটনা ঘটে। সকালে প্রিমিয়ার বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়াসার মোড় এলাকার ক্যাম্পাসে আসার সময় নগরীর সিমেন’স ক্রসিং এলাকায় ওই ছাত্রী হেনস্তা হন বলে জানান তার সহপাঠীরা।

প্রিমিয়ার বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র এরশাদ হোসেন মুন্না বলেন, ‘আজ সকাল সাড়ে ১০টায় মিডটার্ম পরীক্ষা ছিল। পৌনে ১০টার দিকে বন্দর টিলা হাসপাতাল গেট এলাকা থেকে ১০ নম্বর রুটের ওই বাসে উঠে আমাদের সহপাঠী। গাড়িতে তখন মাত্র দুজন যাত্রী ছিল। কিছুদূর চলার পর সন্দেহ হওয়ায় সে গাড়ি থেকে নেমে যাওয়ার চেষ্টা করে। এসময় বাসের হেলপার তার হাত ধরে ফেলে। বাস তখন সিমেন’স ক্রসিং এলাকায়। সেখানে যানজটের মতো ছিল। ওই অবস্থায় কলম দিয়ে হেলপারের হাতে আঘাত করে বাস থেকে নেমে আসে সে।’ ওই ঘটনার পর সেখান থেকে অটোরিকশা নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ে পৌঁছান ওই ছাত্রী।

সহপাঠীদের ঘটনাটি জানানোর পর ১১টায় মিডটার্ম পরীক্ষা শেষে ছাত্ররা ক্যাম্পাস থেকে বেরিয়ে ওয়াসার মোড় এলাকায় অবস্থান নেয়। এসময় ১০ নম্বর রুটের ওই বাসটি ফিরছিল। বাসটিকে আটকে সেটি ভাংচুর করে শিক্ষার্থীরা।

মুন্না বলেন, ‘বাসের চালক ও হেলপারকে আমরা আটক করি। বাস মালিককেও খবর দেয়া হলে তিনি সেখানে আসেন। এরপর বাস এবং চালক-হেলপারকে চকবাজার থানায় দিয়েছি।’

চকবাজার থানার এসআই সালেহ উদ্দিন বলেন, ‘প্রিমিয়ার বিশ্ববিদ্যালয়ের এক ছাত্রীকে বাসে হাত ধরে টানাটানি করায় শিক্ষার্থীরা বাসটি আটকে ভাংচুর করে। চালক ও সহকারীকে আটক করে ছাত্ররা আমাদের দিয়েছে। বাসও আমাদের জিম্মায় আছে। ‘

ঘটনাস্থল ইপিজেড থানার অধীনে হওয়ায় ওই থানা থেকে পরবর্তী আইনগত পদক্ষেপ নেয়া হচ্ছে বলে চকবাজারের এসআই সালেহ উদ্দিন জানান।

x