নগরীতে আন্তর্জাতিক আদিবাসী দিবস উদযাপন

শুক্রবার , ১০ আগস্ট, ২০১৮ at ৯:২২ পূর্বাহ্ণ
15

চট্টগ্রামে আন্তর্জাতিক আদিবাসী দিবস উপলক্ষে র‌্যালি, আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে। বাংলাদেশ আদিবাসী ফোরাম চট্টগ্রাম, অঞ্চল এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করে।

গতকাল বৃহস্পতিবার শহীদ মিনার প্রাঙ্গণে আদিবাসী দিবসের অনুষ্ঠানমালার উদ্বোধন করেন নারী নেত্রী নূর জাহান খান। বাংলাদেশ আদিবাসী ফোরাম, চট্টগ্রাম অঞ্চলের সভাপতি শরৎ জ্যোতি চাকমার সভাপতিত্বে উদ্বোধনী পর্বে বক্তব্য দেন চবি সমাজতত্ত্ব বিভাগের সহকারী অধ্যাপক মো. মহিউদ্দিন মাহিম, সহকারী অধ্যাপক বসু মিত্র চাকমা। উদ্বোধনী বক্তব্যে নূর জাহান খান বলেন, আমরা সবাই বাংলাদেশী। এই দেশে বাস করার অধিকার সকলের। বক্তব্য শেষে র‌্যালিটি শহীদ মিনার থেকে নিউমার্কেট মোড় হয়ে কোতোয়ালী ঘুরে আবার শহীদ মিনারে এসে শেষ হয়। এরপর বাংলাদেশ আদিবাসী ফোরাম, চট্টগ্রাম অঞ্চলের সভাপতি শরৎ জ্যোতি চাকমার সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন কবি ও প্রাবন্ধিক আবুল মোমেন। প্রধান আলোচক ছিলেন চবি নৃবিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক ড. রাহমান নাসির উদ্দিন। অতিথি ছিলেন কবি ও সাংবাদিক হাফিজ রশিদ খান। বক্তব্য দেন হিন্দু বৌদ্ধ ক্রিস্টান ঐক্য পরিসদের তাপস হোড়, সিপিবি, চট্টগ্রামের সাধারণ সম্পাদক অশোক সাহা, বাংলাদেশ আদিবাসী ফোরাম চট্টগ্রামের সাধারণ সম্পাদক জিংমুনলিয়ান বম প্রমুখ।

দুপুরে আদিবাসী শিল্পীদের পরিবেশনায় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয। সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন ভারতীয় দূতাবাস চট্টগ্রামের সহকারী হাই কমিশনার অনিন্দ্য ব্যানার্জী। তিনি বলেন, জাতিসংঘ ঘোষিত আদিবাসী দিবসটি নৃতাতত্ত্বিক জনগোষ্ঠীর অধিকার ও স্বার্থ রক্ষায় অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। পৃথিবীব্যাপী আদিবাসী জাতিসমূহের জাতীয় অস্তিত্ব ও অধিকারের অব্যাহত সংকট এবং স্বকীয় অস্তিত্ব সংরক্ষণ ও অধিকার আদায়ের আন্দোলনের প্রেক্ষাপটে প্রতিবছর এ দিবসটি নতুন বার্তা নিয়ে আসে। বাংলাদেশে তিন পার্বত্য জেলাসহ সমতলেও প্রচুর আদিবাসী জনগোষ্ঠী বসবাস করে। এই উপমহাদেশে অনাদিকাল থেকে বনাঞ্চল রক্ষায় এবং প্রাকৃতিক সম্পদ সমৃদ্ধকরণে আদিবাসী জনগোষ্ঠী সব সময় গুরুরত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছে।

আবুল মোমেন বলেন, আদিবাসীরা যে দেশান্তরিত হচ্ছে তা উদ্বেগের বিষয়। আলোচক ড. রাহমান নাসির উদ্দিন বলেন, উদারনৈতিক রাজনৈতিক চিন্তা চেতনা রাষ্ট্রকে ভাবতে হবে। প্রেস বিজ্ঞপ্তি।

x