দ্বিতীয় দিনে রেল স্টেশনে উপচেপড়া ভিড়

দেড় হাজার টিকিট অবিক্রীত

আজাদী প্রতিবেদন

শুক্রবার , ১০ আগস্ট, ২০১৮ at ৩:২৫ পূর্বাহ্ণ
15

ঈদুল আজহার ট্রেনের অগ্রিম টিকিট বিক্রির দ্বিতীয় দিনে চট্টগ্রাম স্টেশনে ছিল উপচে পড়া ভিড়। গতকাল চাঁদপুরের ১টি স্পেশালসহ ১২টি ট্রেনের অগ্রিম টিকিট দেয়া হয়েছে। টিকিট বিক্রির ৩ ঘণ্টার মধ্যেই ময়মনসিংহগামী বিজয় এঙপ্রেস ট্রেনের ৬০৩টি টিকিট বিক্রি শেষ হয়ে যায়। গতকাল বৃহস্পতিবার সকাল ৮টা থেকে যাত্রীদের দেয়া হয় ১৮ আগস্টের টিকিট। মোট ১২টি ট্রেনের ৬৭২৫টি টিকিট কাউন্টারে ছাড়া হয়। এরমধ্যে দেড় হাজার টিকিট অবিক্রিত থেকে যায়। ১৮ আগস্টের টিকিটের জন্য গত বুধবার গভীর রাত থেকে লাইনে শুয়েবসে অপেক্ষা করেছেন অনেক যাত্রী। সকাল থেকে কাউন্টারে টিকিট বিক্রি শুরু হলে লাইনে যারা ছিলেন তারা টিকিট পেয়েছেন বলে জানান স্টেশন ম্যানেজার।

এই ব্যাপারে চট্টগ্রাম স্টেশনের ম্যানেজার আবুল কালাম আজাদ জানান, আগাম টিকিটের দ্বিতীয় দিন চট্টগ্রাম থেকে বিভিন্ন গন্তব্যের ৯টি আন্তঃনগর ট্রেন, একটি এঙপ্রেস ট্রেন ও চট্টগ্রামচাঁদপুর রুটের এক জোড়া স্পেশাল ট্রেনের মোট ৮ হাজার ৯৯৩টি টিকিটের মধ্যে কাউন্টারে বিক্রির জন্য রাখা হয় ৬ হাজার ৭২৫টি। অনলাইনে বিক্রির জন্য ছাড়া হয় ২৫ শতাংশ। ভিআইপি ও রেলওয়ের কর্মীদের জন্য ৫ শতাংশ করে মোট ১০ শতাংশ সংরক্ষিত রাখা হয়েছে। অতিরিক্ত কোচ (বগি) রাখা হয়েছে ১৫টি। স্পেশাল ছাড়া বাকি ট্রেনগুলো হচ্ছেসুবর্ণ, তূর্ণা, মহানগর, সোনার বাংলা, মেঘনা, পাহাড়িকা, গোধূলী, উদয়ন, চট্টলা ও বিজয় এঙেপ্রেস।

তিনি জানান, টিকিট কালোবাজারি রোধে রেলওয়ের নিজস্ব নিরাপত্তা বাহিনী ছাড়াও আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা কাজ করছেন। এর আগে গত বুধবার বিক্রি করা হয়েছে ১৭ আগস্টের টিকিট। বৃহস্পতিবার দেয়া হয়েছে ১৮ আগস্টের টিকিট।

শুক্রবার দেয়া হবে ১৯ আগস্টের টিকিট। ১১ ও ১২ আগস্ট বিক্রি হবে ২০ ও ২১ আগস্টের টিকিট। একজন সর্বোচ্চ ৪টি টিকিট কিনতে পারছেন। সূবর্ণ ও সোনার বাংলা ট্রেনে আসনবিহীন টিকিট ইস্যু হবে না। অন্য ট্রেনগুলোতে যাত্রার দিন আসনবিহীন টিকিট পাওয়া যাবে।

প্রতি বছরের মতো এবারের ঈদেও অতিরিক্ত যাত্রী পরিবহনের জন্য চট্টগ্রামের পাহাড়তলী কারখানায় ৭৫টি কোচ মেরামত করা হচ্ছে। এর মধ্যে ৫০টির বেশি কোচ মেরামত করা হয়েছে বলে জানা গেছে।

এদিকে একই ভাবে দেশের বৃহত্তম সৈয়দপুর রেলওয়ে কারখানায়ও ঈদে ঘরমুখী মানুষের যাত্রা নিশ্চিত করতে কোচ মেরামতের কাজ চলছে পুরোদমে। সেখানেও ৭৫টি কোচ মেরামত করা হচ্ছে। ফলে ঘরমুখী যাত্রীদের যাত্রা অনেকটা নিশ্চিত হবে।

x