দ্বিতীয় দিনেও ফ্লাইট সিডিউলে বিপর্যয়

ঘন কুয়াশা

আজাদী প্রতিবেদন

সোমবার , ১৫ জানুয়ারি, ২০১৮ at ১০:৩৯ পূর্বাহ্ণ
61

ঘন কুয়াশার কারণে চট্টগ্রামে নামতে না পারা ফ্লাইট চলে গেছে কলকাতায়। অপরদিকে সিংগাপুর থেকে আসা একটি ফ্লাইট ঢাকায় নামতে না পেরে অবতরণ করেছে চট্টগ্রামে। কুয়াশার কারণে ফ্লাইট সিডিউলে গতকাল দ্বিতীয় দিনের মতো বিপর্যয় ঘটে। চট্টগ্রাম থেকে গতকাল সকালে চারটি ফ্লাইট সময় মতো উড়তে পারেনি। শাহ আমানত আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর সূত্র জানায়, ওমানের রাজধানী মাসকাট থেকে যাত্রী নিয়ে আসা ইউএস বাংলা এয়ারলাইন্সের একটি ফ্লাইট গতকাল সকালে চট্টগ্রামে অবতরণ করার কথা ছিল। কিন্তু সেটি চট্টগ্রামে এসে তীব্র কুয়াশায় পড়ে। এসময় চট্টগ্রামের আকাশে বেশ কয়েকবার চক্কর দিয়েও নামতে না পেরে ফ্লাইটটি ঢাকায় নামার চেষ্টা করে। ওখানেও নামতে না পেরে ফ্লাইটটি কলকাতায় গিয়ে অবতরণ করে। অন্যদিকে সিঙ্গাপুর থেকে আসা একটি ফ্লাইট ঢাকায় নামতে না পেরে শাহ আমানতে অবতরণ করেছে। গতকাল বেলা প্রায় বারোটা পর্যন্ত মোট চারটি ফ্লাইট চট্টগ্রাম থেকে নির্ধারিত সময়ে উড়তে পারেনি। শাহ আমানত আন্তর্জাতিক বিমান বন্দরের ম্যানেজার উইং কমান্ডার রিয়াজুল কবির বলেন, চট্টগ্রামের অবস্থা খুব একটা খারাপ নয়। আমরা ঢাকার বিমানও রিসিভ করছিলাম। গত দুইদিন ধরে পরিস্থিতি একটু খারাপ। তাই চারটি ফ্লাইট কিছুটা বিলম্বে যাত্রা করেছে। তিনি বলেন, ঢাকা থেকে সময় মতো ফ্লাইট আসতে না পারায় চট্টগ্রাম থেকে উড়তে দেরী হচ্ছে। তিনি জানান, ঘন কুয়াশার কারণে সিঙ্গাপুর থেকে যাত্রী নিয়ে আসা ইউএস বাংলার একটি ফ্লাইট ঢাকা অবতরণ করতে না পারায় চট্টগ্রামে নেমেছে। অন্যদিকে মাসকাট থেকে আসা একটি ফ্লাইট চট্টগ্রামে নামতে না পেরে কলকাতায় অবতরণ করে। পরে কলকাতা থেকে ফ্লাইটটি চট্টগ্রামে ফিরে আসে। সিডিউল অনুযায়ী ফ্লাইট না চলায় যাত্রীদের দুর্ভোগ বেড়েছে। অপরদিকে গতকাল সকালে কুয়াশার কারণে বন্দরে জাহাজ চলাচল কিছুটা বিঘ্নিত হলেও পরবর্তীতে সব জাহাজই বার্থিং নিয়েছে এবং জেটি ছেড়ে গেছে।

x