দুই রোহিঙ্গা সন্ত্রাসী বন্দুকযুদ্ধে নিহত

যুবলীগ নেতা ওমর ফারুক হত্যা

টেকনাফ প্রতিনিধি

রবিবার , ২৫ আগস্ট, ২০১৯ at ৪:৪১ পূর্বাহ্ণ
416

টেকনাফে বন্দুকযুদ্ধে দুই রোহিঙ্গা সন্ত্রাসী নিহত হয়েছে। তারা যুবলীগ নেতা ওমর ফারুক হত্যাকাণ্ডের সন্দেহভাজন বলে পুলিশ জানায়। শনিবার ভোরে টেকনাফের জাদিমুড়া পাহাড়ি এলাকায় যুবলীগ নতা ওমর ফারুক হত্যায় অভিযুক্তদের ধরতে গেলে এ ঘটনা ঘটে। এ সময় তিন পুলিশ সদস্য আহত হন। নিহতরা হলেন, জাদীমুরা রোহিঙ্গা ক্যাম্পের ছবির রহমানের ছেলে মো. শাহ (৩৮) ও বালুখালী ক্যাম্পের আব্দুল আজিজের ছেলে আব্দুস শুক্কুর (২৫)। আহতরা হলেন, উপপুলিশ পরিদর্শক মনজুর, সহকারী উপপুলিশ পরিদর্শক মো. জামাল ও কনস্টেবল লিটন। নিহত দুইজনই মিয়ানমারের আকিয়াব জেলা থেকে এসেছেন।
টেকনাফ থানার ওসি প্রদীপ কুমার দাশ বলেন, শনিবার ভোরে হ্নীলা ইউনিয়নের জাদিমুরা এলাকায় ফারুক হত্যা মামলার কয়েকজন আসামি অবস্থান করছে বলে খবর পেয়ে পুলিশ অভিযান চালায়। এ সময় আসামিরা পুলিশকে লক্ষ করে গুলি ছোড়ে। পুলিশ আত্মরক্ষার্থে পাল্টা গুলি চালায়। একপর্যায়ে গোলাগুলি থেমে গেলে ঘটনাস্থলে দুইজনকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় দেখা যায়। হাসপাতালে নেওয়া হলে চিকিৎসক তাদের মৃত ঘোষণা করেন।
পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে দুটি বন্দুক, নয়টি গুলি ও ১২টি গুলির খোসা উদ্ধার করেছে জানিয়ে তিনি বলেন, এ অভিযানে পুলিশের তিন সদস্য আহত হয়েছেন। তাদের প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।
ওসি প্রদীপ বলেন, নিহত মোহাম্মদ শাহ ও মোহাম্মদ শুক্কুর রোহিঙ্গা সন্ত্রাসী দলের সদস্য। তারা যুবলীগ নেতা ওমর ফারুক হত্যার ঘটনায় জড়িত ছিলেন এবং মামলার এজাহারভুক্ত আসামি। তাদের লাশ ময়নাতদন্তের জন্য কঙবাজার সদর হাসপাতাল মর্গে রয়েছে বলে তিনি জানান ওসি প্রদীপ।
ফারুক হত্যা জড়িত সন্দেহে রোহিঙ্গা আটক
ফারুক হত্যা মামলার আসামি মো. হাসানকে (১৯) গুলিবিদ্ধ অবস্থায় গ্রেফতার করেছে পুলিশ। গতকাল শনিবার সন্ধ্যা ৭টার দিকে নয়াপাড়া রোহিঙ্গা ক্যাম্পের ডি-ব্লক থেকে তাকে আটক করা হয়। গ্রেফতার হাসান নয়াপাড়া রোহিঙ্গা শরণার্থী শিবিরের সি-ব্লকের আমিরুল ইসলামের ছেলে।
টেকনাফ নয়াপাড়া রোহিঙ্গা পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ পরিদর্শক আব্দুস সালাম বলেন, স্থানীয় যুবলীগ নেতা উমর ফারুক হত্যা মামলার আসামি হাসানকে তার বাসা হতে গ্রেফতার করা হয়েছে। হাসান শীর্ষ রোহিঙ্গা সন্ত্রাসী জকির ও সেলিম গ্রুপের সক্রিয় সদস্য। পরে তাকে টেকনাফ মডেল থানা পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়।

x