দীর্ঘ লড়াই শেষে ইউএস ওপেন চ্যাম্পিয়ন নাদাল

স্পোর্টস ডেস্ক

মঙ্গলবার , ১০ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ at ৬:৩৫ পূর্বাহ্ণ
10

শ্বাসরুদ্ধকর এক ফাইনালের সাক্ষী হলো নিউইয়র্কের ফ্লাশিং মিডোস। দানিল মেদভেদেভের বিপক্ষে যে লড়াইয়ে জিতে ইউএস ওপেনের শিরোপা জিতে নিলেন রাফায়েল নাদাল। প্রথমবারের মতো কোনো গ্র্যান্ড স্ল্যামের ফাইনালে ওঠা মেদভেদেভের বিপক্ষে রোববারের শিরোপা লড়াইয়ে পরিষ্কার ফেভারিট ছিলেন নাদাল। প্রথম দুই সেট জিতে অনায়াস জয়ের পর সম্ভাবনাই জাগিয়েছিলেন স্প্যানিশ তারকা। কিন্তু এরপরই দুর্দান্তভাবে ঘুরে দাঁড়ান পঞ্চম বাছাই মেদভেদেভ। অবিশ্বাস্যভাবে জিতে নেন পরের দুই সেট। শেষ পর্যন্ত অবশ্য টেনিস ইতিহাসের অন্যতম অঘটনের জন্ম দিতে পারেননি এই রুশ তরুণ। সামর্থ্য ও অভিজ্ঞতা দিয়ে স্নায়ুর চাপকে হারিয়ে শেষ সেট জিতে ক্যারিয়ারের ১৯তম গ্র্যান্ড স্ল্যাম শিরোপা উঁচিয়ে ধরেন নাদাল। চার ঘণ্টা ৫০ মিনিটের রোমাঞ্চকর লড়াইয়ে ৭-৫, ৬-৩, ৫-৭, ৪-৬, ৬-৪ গেমে জয় নিশ্চিত করেন দ্বিতীয় বাছাই হিসেবে টুর্নামেন্ট শুরু করা নাদাল। ইউএস ওপেনের ইতিহাসে সবচেয়ে দীর্ঘ ফাইনালের চেয়ে মাত্র চার মিনিট সময় কম লাগলো এবারের শিরোপা লড়াইয়ে। ৪ ঘন্টা ৫০ মিনিটের টানটান লড়াই ছিলো ইউএস ওপেনের পুরুষ এককের ফাইনালটি। মাত্র ৪ মিনিটের জন্য ইউএস ওপেনের ফাইনালে সবচেয়ে বেশি স্থায়ী ম্যাচের রেকর্ড স্পর্শ করেনি নাদাল-মেদভেদেভের ফাইনালটি। তারপরও আর্থার অ্যাশ স্টেডিয়ামে উপস্থিতি প্রায় ২৪হাজার দর্শক দেখলেন উপভোগ্য এক ফাইনাল।
ক্লে কোর্টের রাজা নাদালের এটা চতুর্থ ইউএস ওপেন শিরোপা। এখানে আগের তিনটি শিরোপা জিতেছিলেন ২০১০, ২০১৩ ও ২০১৭ আসরে। এবারের জয়ে রেকর্ড ২০ বারের গ্র্যান্ড স্ল্যাম চ্যাম্পিয়ন রজার ফেদেরারকে ছোঁয়ার আরেক ধাপ কাছে পৌঁছে গেলেন ৩৩ বছর তারকা। ফরাসি ওপেনেই জিতেছেন ১২টি শিরোপা। ২০১৭ ইউএস ওপেনের শিরোপা জেতার পর পরের আসরের সেমিফাইনাল থেকে বিদায় নেন নাদাল। ঐ আসরে শিরোপা জিততে না পারার দুঃখ ঘোচাতে এবারের ইউএস ওপেন বেছে নেন নাদাল। টুর্নামেন্ট শুরুর আগে বলেছিলেন, ‘এবারের শিরোপা জয় করাটা আমার জন্য অনেক বেশি গুরুত্বপূর্ণ। গেল আসরে সেমি থেকে বিদায়টা কষ্ট দিয়েছে আমাকে।’
শেষ পর্যন্ত নিজের লক্ষ্য পূরণ করেছেন নাদাল। ১৯তম গ্র্যান্ড স্ল্যাম জয় করলেন তিনি। পুরুষ এককে সর্বোচ্চ গ্র্যান্ড স্ল্যাম জয় করা সুইজারল্যান্ডের রজার ফেদেরার থেকে মাত্র একটি শিরোপা পিছিয়ে এখন নাদাল। ২০টি গ্র্যান্ড স্ল্যাম জিতে সবার উপরে আছেন ফেদেরার। আগামী বছরের জানুয়ারিতে অস্ট্রেলিয়ান ওপেনের শিরোপা জিততে পারলে ফেদেরারকে ছুঁয়ে ফেলবেন নাদাল। ফাইনাল জয়ের পর নাদাল বলেন, ‘আমার টেনিস ক্যারিয়ারে সবচেয়ে আবেগময় এক রাত এটি। এটি সত্যিই অসাধারন একটি ফাইনাল ছিলো। আকর্ষণীয় ফাইনালও ছিলো। দর্শকরা উপভোগ করেছে হাড্ডাহাড্ডি লড়াই।’ দুর্দান্ত ফাইনাল খেলার পরও শিরোপা বঞ্চিত হয়েছেন মেদভেদেভ। হতাশাগ্রস্ত মেদভেদেভ শুভেচ্ছা জানিয়েছেন নাদালকে। তিনি বলেন, ‘আমি নাদালকে শুভেচ্ছা জানাচ্ছি। ১৯টি গ্র্যান্ড স্ল্যাম জয় অবিশ্বাস্য, ভয়ানক।’ ভাগাভাগি করে শেষ ১২টি ইউএস ওপেনের শিরোপা জয় করলেন সার্বিয়ার নোভাক জকোভিচ, রজার ফেদেরার ও নাদাল। এরমধ্যে চারটি নাদালের। রোববার রাতে তৃতীয় ম্যাচ পয়েন্ট জয়ের পর কোর্টের উপরে শুয়ে পড়েন নাদাল। হাত দিয়ে মুখ ঢাকলেন, যেন মুহূর্তের মধ্যে পেছন ফিরে রোমন্থন করলেন দুর্দান্ত এক পথচলার স্মৃতি, যেখানে যোগ হলো নতুন এক সাফল্যের গল্প। গত জুনে ফরাসি ওপেনে রেকর্ড দ্বাদশ শিরোপা জয়ের পর চলতি বছরে এ নিয়ে দ্বিতীয় মেজর জিতলেন নাদাল। প্রথমবারের মতো এত বড় মঞ্চে এসেই বাজিমাত করার উপলক্ষ প্রায় তৈরি করে ফেলেছিলেন মেদভেদেভ। শেষ পর্যন্ত স্বপ্ন ভেঙে যাওয়ায় শূন্য দৃষ্টিতে অনেকটা সময় তাকিয়ে ছিলেন ২৩ বছর বয়সী এই খেলোয়াড়। পরে অশ্রুসিক্ত চোখে প্রতিপক্ষকে অভিনন্দন জানান মেদভেদেভ। ‘আমি রাফাকে অভিনন্দন জানাতে চাই, ১৯টি গ্র্যান্ড স্ল্যাম শিরোপা অবিশ্বাস্য কিছু।’ মাঠের বড় স্ক্রিনে তখন নাদালের সব সাফল্যের একটি ভিডিও চলছে। নিজের হতাশা ভুলে মুগ্ধ দৃষ্টিতে সেদিকে তাকিয়ে ছিলেন মেদভেদেভ। ১৯৭০ সালে ৩৫ বছর বয়সে ইউএস ওপেন জিতে ইতিহাস তৈরি করেছিলেন অস্ট্রেলিয়ার কেন রোজওয়েল। আর এই যুগে ৩৩ বছর বয়সে ইউএস ওপেন জিতে রেকর্ড বইয়ে নাম তুললেন নাদাল।

x