দিনকয়েকের মধ্যেই মুক্তির আশা সৌদি প্রিন্স আলওয়ালিদের

রবিবার , ২৮ জানুয়ারি, ২০১৮ at ১০:২৭ পূর্বাহ্ণ
121

অল্প কয়েকদিনের মধ্যেই সন্দেহভাজন অপরাধীর তালিকা থেকে তার নাম বাদ যাবে এবং তিনি বন্দিদশা থেকে মুক্ত হবেন বলে জানিয়েছেন সৌদি প্রিন্স আলওয়ালিদ বিন তালাল। গত বছরের দুর্নীতিবিরোধী ব্যাপক অভিযানের সময় প্রিন্স আলওয়ালিদসহ সৌদি আরবের শীর্ষ প্রভাবশালী বহু ব্যক্তিকে আটক করা হয়েছিল। গতকাল শনিবার রিয়াদের রিটজকার্লটন হোটেলে বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে প্রিন্স আলওয়ালিদ ওই আশাবাদ ব্যক্ত করেন। দুই মাসেরও বেশি সময় ধরে পাঁচ তারকা এ হোটেলেই আরও অনেক সন্দেভাজনের সঙ্গে আটক আছেন তিনি। আটক অবস্থায় এটাই তার দেওয়া প্রথম সাক্ষাৎকার। খবর বিডিনিউজের।

দুর্নীতির অভিযোগগুলোতে তিনি যে নিষ্পাপ কর্তৃপক্ষের সঙ্গে আলোচনায় তা তুলে ধরেছেন বলে জানিয়েছেন তিনি। যে কারণে সরকারকে সম্পদের কোনো অংশ না দিয়েই বৈশ্বিক বিনিয়োগ সংস্থা কিংডম হোল্ডিং কর্পোরেশনের সম্পূর্ণ নিয়ন্ত্রণ ধরে রাখার ব্যাপারেও আশাবাদী তিনি। “কোনো অভিযোগ নেই। কেবল সরকার ও আমার মধ্যে সামান্য কিছু বিষয় নিয়ে আলোচনা চলছে। আমার বিশ্বাস, আমরা অল্প কয়েকদিনের মধ্যেই এটা শেষ করার পথে আছি,” বলেন এ সৌদি প্রিন্স।

মধ্যরাতের পরে দেওয়া এ সাক্ষাৎকারের সময় আলওয়ালিদকে আগের তুলনায় ধুসর ও শুকনো লাগছিল; গত বছরের অক্টোবরের শেষে এক টেলিভিশন সাক্ষাৎকারে সর্বশেষ দেখা গিয়েছিল এ শীর্ষ ব্যবসায়ীকে। আটকদের প্রতি দুর্ব্যবহার ও জমকালো হোটেলটিকে কারাগারে পরিণত করা হয়েছে, বাইরে চলা এ ধরণের গুজবও উড়িয়ে দিয়েছেন তিনি। বলেছেন, তার সঙ্গে ভালো ব্যবহার করা হচ্ছে। সাক্ষাৎকার দেওয়ার সময় স্যুটের ব্যক্তিগত অফিস কক্ষে স্বাচ্ছন্দ্যের কথাও জানান তিনি, দেখান খাবার ও রান্না ঘর, যা ছিল তার পছন্দের শাকসবজিতে ভরপুর। তার অফিস কক্ষের কোণায় দেখা মেলে টেনিস শু’রও। আলওয়ালিদ জানান, এগুলো তিনি ব্যায়াম করার সময় ব্যবহার করেন। সাক্ষাৎকার নেওয়ার সময় ওই কক্ষের টিভিতে চলছিল ব্যবসা সংক্রান্ত খবর, ডেস্কে ছিল তার চেহারাখচিত মগ।

ফোর্বস ম্যাগাজিনের তথ্য অনুযায়ী আলওয়ালিদের মোট সম্পদের পরিমাণ প্রায় এক হাজার সাতশ কোটি ডলার; তার মুক্তির সম্ভাবনা কিংডম হোল্ডিংসে প্রত্যক্ষ কিংবা পরোক্ষভাবে বিনিয়োগ করা ব্যবসায়ীদের আশ্বস্ত করবে বলে মনে করা হচ্ছে। সৌদি এ প্রিন্সের মালিকানাধীন কিংডম হোল্ডিংস টুইটার ও সিটি গ্রুপের শেয়ার হোল্ডার। প্যারিসের জর্জ ফাইভ ও নিউ ইয়র্কের দ্য প্লাজার মতো বিশ্বখ্যাত হোটেলেও প্রতিষ্ঠানটির বিনিয়োগ আছে। প্রিন্স আলওয়ালিদ জানান, তার সঙ্গে সৌদি কর্তৃপক্ষের আলোচনার ৯৫ ভাগ শেষ হয়েছে। তিনি বলেন, “ভুলবোঝাবুঝি ছিল, সেটা কাটানো গেছে। এটা পুরোপুরি শেষ না হওয়া পর্যন্ত আমি এখানেই থাকতে চাই, যেন মুক্তির পর স্বাভাবিক জীবনযাপন করতে পারি।” মুক্তির পর সৌদি আরবেই থাকার পরিকল্পনা আছে, মন্তব্য তার।

মোহাম্মদ বিন সালমান ক্রাউন প্রিন্স হওয়ার পর গত বছরের নভেম্বরে দেশজুড়ে চালানো দুর্নীতিবিরোধী ব্যাপক অভিযানের সময় আরও অনেক প্রিন্স, সরকারি কর্মকর্তা ও ব্যবসায়ীদের সঙ্গে আলওয়ালিদ বিন তালালকেও আটক করা হয়েছিল। ষাটোর্ধ্ব এ ব্যবসায়ীর বিরুদ্ধে মুদ্রা পাচার, ঘুষ ও কর্মকর্তাদের ওপর বলপ্রয়োগের অভিযোগ আনা হতে পারে বলে সেসময় এক সৌদি কর্মকর্তা রয়টার্সকে জানিয়েছিলেন।

x