থাই রকশিল্পীর মানবিক উদ্যোগ

মৃদুল বড়ুয়া, ব্যাংকক (থাইল্যান্ড) থেকে

বুধবার , ২২ নভেম্বর, ২০১৭ at ৮:২৬ অপরাহ্ণ
93

একজন প্রতিভাধর গুণীশিল্পী মানুষকে তার গান বা অভিনয়ে যেমন চিত্তবিনোদনের ছোঁয়া দেয় ঠিক তেমনি মানবিক দাতব্য কাজে সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিয়ে করতে পারে সমাজের অতি মহান কাজ। সেটা হতে পারে কোনো অসহায় ও দুঃস্থ মানুষের চিকিৎসার জন্য পাশে দাঁড়ানো বা দেশের কোনো প্রাকৃতিক দুর্যোগে ক্ষতিগ্রস্ত মানুষ বা কোনো মহৎ কাজের জন্য তহবিল সংগ্রহ করা যেটা আমরা সচরাচর দেখি আমাদের দেশে।
ঠিক তেমনি থাইল্যান্ডের রক শিল্পী আরতিয়ারা কংমালাই (Artiwara Kongmalai) এক প্রশংসনীয় মানবিক উদ্যোগ নিয়েছেন। ৩৮ বছর বয়সী , পাতলা দেহ গড়নের এই রক শিল্পী থাইল্যান্ডের একটি জনপ্রিয় ব্যান্ড ‘BODYSLAM’-এর দলপ্রধান এবং তার টুন (TOON) ডাকনামে তিনি খুবই পরিচিত। তার উদ্যোগটা হলো থাইল্যান্ডের দক্ষিণে ও উত্তরে ১১টি পাবলিক হাসপাতলের জন্য তহবিল সংগ্রহ করবেন উন্নত চিকিৎসা এবং হাসপাতালের আধুনিক যন্ত্রপাতি ক্রয় করার জন্য। মোট তহবিলের পরিমাণ ৭০০ মিলিয়ন বাথ যা বাংলাদেশী টাকায় ১৭৫ কোটি টাকা।

এ উদ্দেশ্যে আরতিয়ারা কংমালাই থাইল্যান্ডের দক্ষিণ থেকে উত্তরে এক প্রদেশ থেকে আরেক প্রদেশের হাজার মাইল ম্যারাথন দৌড় দৌড়াবেন। ম্যারাথন দৌড় শুরু করেছেন গত ১ নভেম্বর ২০১৭, দক্ষিণের ইয়ালা প্রদেশের বেতং জেলা থেকে এবং শেষ করবেন ২৫ ডিসেম্বর চিয়াং রাই প্রদেশের মাই সাই জেলাতে। সর্বমোট ৫৫ দিনে ২,১৯১ কিলোমিটার দৌড়াবেন তিনি।

তার দল ও রাস্তার দুইপাশে উৎসুক অগণিত মানুষ তার এই দৌড়ে অংশগ্রহণ করছেন এবং সামর্থ্য অনুযায়ী অৰ্থ দিচ্ছেন। আবার কেউ কেউ অর্থের মালা সাজিয়ে রক শিল্পীর গলায় পরিয়ে দিচ্ছেন। ইতিমধ্যে ৩০০ মিলিয়ন বাথ সংগ্রহ করেছেন আরতিয়ারা কংমালাই।
থাইল্যান্ডের প্রত্যন্ত অঞ্চলে গরীব মানুষের সংখ্যা নেহাত কম নয়। কৃষক, মৎসজীবিসহ নিম্ন মধ্যবিত্ত মানুষেরা যখন কোনো দুরারোগ্য রোগে আক্রান্ত হয় তখন অনেকের পক্ষে সম্ভব হয় না রাজধানী ব্যাংককে এসে উন্নতমানের চিকিৎসা নেয়া যদিও সবার স্বাস্থ্য বীমা করা থাকে। 

দক্ষিণ পূর্ব এশিয়ায় সুচিকিৎসার জন্য যে কয়েকটি দেশ রয়েছে থাইল্যান্ড তার মধ্যে একটি হিসেবে বেশ পরিচিতি লাভ করছে গত দশক ধরে। এর সাথে সাথে রাজার অনুদানে, সরকারি-বেসরকারিভাবে গড়ে উঠেছে এবং নির্মাণাধীন রয়েছে আরো অনেক হাসপাতাল। সেজন্য থাইল্যান্ডকে শ্বেত হস্তী ও পর্যটনের দেশের সাথে হাসপাতালের দেশ বললেও ভুল হবে না।

রকশিল্পী আরতিয়ারা কংমালাই এ ভালো উদ্যোগের জন্য রাজপরিবার ও সরকারিভাবে প্রশংসিত হয়েছেন এবং থাই সরকারের পূর্ণ সহযোগিতার আশ্বাস পেয়েছেন। স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের জন স্বাস্থ্যমন্ত্রী ডা. সোপন বলেন, “রকশিল্পী টুন নিয়মিত ব্যায়াম করে থাকেন এবং স্বাস্থ্যের যত্ন নেন। তার এ উদ্যোগকে স্বাগত জানাই এবং শিল্পীর এ উদ্যোগ শুধু হাসপাতালের জন্য তহবিল সংগ্রহ নয় জনসাধারণকে উৎসাহিত করা শারীরিক ব্যায়াম করে সুস্থ থাকার জন্যও। টুন এ বার্তাটি সবার কাছে পৌঁছে দিয়েছেন “

গত ২০১৬ সালেও এ রকশিল্পী ৪০০ কিলোমিটার দৌড়ে ৮৫ মিলিয়ন বাথ সংগ্রহ করে একটি হাসপাতালে অনুদান দেন। মানবিক এ মহান কাজের জন্য স্যালুট তোমাকে রকশিল্পী। দীর্ঘজীবি হও টুন।

x