ত্যাগী রাজনীতিবিদকেই সীতাকুণ্ড আসনে মনোনয়ন দেয়ার দাবি

বাকের ভূঁইয়ার সাথে মহাজোটের মতবিনিময়

সীতাকুণ্ড প্রতিনিধি

বৃহস্পতিবার , ৮ নভেম্বর, ২০১৮ at ৭:২৮ পূর্বাহ্ণ
36

সীতাকুণ্ড উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক আসন্ন সংসদ নির্বাচনে মনোনয়ন প্রত্যাশী আবদুল্লাহ আল বাকের ভূঁঁইয়ার সাথে মহাজোট নেতৃবৃন্দের এক মতবিনিময় সভা গত শনিবার অনুষ্ঠিত হয়। বাকের ভূঁইয়ার বাসভবনে অনুষ্ঠিত সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন জাতীয় পার্টি কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ম মহাসচিব আলহাজ্ব দিদারুল কবির দিদার। সীতাকুণ্ড আ.লীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল্লাহ আল বাকের ভুইয়ার সভাপতিত্বে উপজেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক সাঈদ মিয়ার পরিচালনায় সভায় বক্তব্য রাখেন সীতাকুণ্ড পৌর মেয়র মুক্তিযোদ্ধা বদিউল আলম, উত্তর জেলা আ.লীগের শ্রম বিষয়ক সম্পাদক নুর মোহাম্মদ, আওয়ামী ন্যাশনাল পার্টির কেন্দ্রীয় পলিট ব্যুরোর সদস্য সন্তোষ চৌধুরী, উপজেলা মহিলা আ.লীগের সভানেত্রী সুরাইয়া বাকের, উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার আলিম উল্ল্যাহ, ইসলামী ঐক্যফ্রন্ট উপজেলা সভাপতি মাওলানা আবদুল মন্নান, জাপা উপজেলা সাধারণ সম্পাদক রফিকুল আলম, সীতাকুণ্ড পৌর বাজার কমিটির সাধারণ সম্পাদক মো. বেলাল হোসেন, উপজেলা পূজা কমিটির সাবেক সভাপতি রঞ্জিত কুমার সাহা, সাধারণ সম্পাদক স্বপন বণিক, মহাজোট নেতা আবুল কাশেম আবু, উপজেলা আ.লীগের জয়নাল আবেদিন সুজা, আ.লীগ নেতা মেজবাহ উদ্দিন চৌধুরী, আবুল কালাম, আব্দুল বারেক সওদাগর, নুর মোহাম্মদ, মাইমুন উদ্দিন মামুন, ছাত্রলীগ নেতা সায়েস্তা খান প্রমুখ ।প্রধান অতিথি বলেন প্রধানমন্ত্রীর প্রতি অনুরোধ জানাবো- নির্বাচনে যেন কোন অতিথিকে মনোনয়ন দেয়া না হয়, যারা তৃনমূল থেকে রাজনীতি করে দলের প্রয়োজনে সকল বিপদ আপদে, আন্দোলনে ভূমিকা রেখেছেন তাদেরকে যেন মনোনয়ন দেয়া হয়। নির্বাচন যতই ঘনিয়ে আসছে নতুন নতুন প্রার্থী দেখা যাচ্ছে। যাদের সাথে তৃনমূল নেতাকর্মীদের কোন যোগাযোগ নেই, তারা একজন কর্মীর নামও বলতে পারবেন না। গতবার এমন একজন ব্যক্তিকে সংসদ সদস্য বানিয়ে আমরা ভুল করেছি। তিনি আরো বলেন- তৃণমূলের নেতাকর্মীরা এমন হাইব্রীড নেতা চায় না। তিনি সাংগঠনিক ব্যক্তিকে সীতাকুণ্ড আসনে মহাজোট প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন দিয়ে জয়যুক্ত করার জন্য সবার প্রতি আহবান জানান। সভাপতির বক্তব্যে আব্দুল্লাহ আল বাকের ভুঁইয়া বলেন, ২৫বছর ধরে উপজেলা আ.লীগের সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করছি। দলের নানা দুঃসময়েও আমি শক্ত হাতে সংগঠনের নেতৃত্ব দিয়েছি। সকল প্রতিকূলতা, বাধা-বিপত্তি মোকাবেলা করে সংগঠনকে মজবুত ভিত্তির উপর দাঁড় করিয়েছি। আমার এলাকার আওয়ামী লীগের তৃণমূল নেতাকর্মীরা চান আগামী সংসদ নির্বাচনে আমি যেন দলীয় হাইকমান্ডের কাছে মনোনয়ন চাই। জননেত্রী শেখ হাসিনা মাঠের দীর্ঘদিনের ত্যাগী ও প্রকৃত রাজনীতিবিদদের মনোনয়ন দেবেন এটাই আমার দৃঢ় বিশ্বাস। যদি আমাকে দলীয় মনোনয়ন দেন, তাহলে আমার উপজেলার আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের দীর্ঘদিনের প্রত্যাশা পূরণ হবে। আমি প্রধানমন্ত্রীর ভিশন বাস্তবায়ন ও সীতাকুণ্ডের সর্বস্তরের মানুষের কল্যাণে সীতাকুণ্ডের উন্নয়নে বিরামহীন কাজ করতে পারব।

x