তরুণদের জন্য সম্ভাবনাময় জায়গা শেয়ার বাজার

সেমিনারে অভিমত

আজাদী প্রতিবেদন

বুধবার , ১১ এপ্রিল, ২০১৮ at ৫:৩১ পূর্বাহ্ণ
52

তরুণদের জন্য শেয়ার বাজার সম্ভাবনাময় একটি জায়গা। তবে অবশ্যই আগে শেয়ার বাজার সম্পর্কে সঠিক ধারণা নিয়ে আসতে হবে। বুঝতে হবে কেন শেয়ারের দাম বাড়ে এবং কেন শেয়ারের দাম কমে। সেই সাথে বুঝতে হবে কোম্পানি সম্পর্কে এবং কোম্পানির পরিচালনা পর্ষদ সম্পর্কে। কেননা ভাল কোম্পানির ভাল ম্যানেজমেন্টের কারণেও শেয়ারের দাম বাড়ে।’ গত সোমবার সন্ধ্যায় নগরীর এমব্রোসিয়া রেস্টুরেন্টে জুনিয়র চেম্বার চিটাগং কসমোপলিটন ও শান্তা সিকিউরিটিজের যৌথ আয়োজনে ‘ইয়ুথ ইনভেস্টিং ইন ক্যাপিটাল মার্কেট প্রফিট ম্যাক্সিমাইজেশন থ্রো গ্রুডেন্ট ইনভেস্টমেন্ট’ শীর্ষক সেমিনারে বক্তারা উপরোক্ত কথাগুলো বলেন।

সেমিনারে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন চট্টগ্র্রাম স্টক এক্সচেইঞ্জের ব্যবস্থাপনা পরিচালক এম সাইফুর রহমান মজুমদার। তিনি বলেছেন, স্বাধীনতা পরবর্তী সময়ে দেশে যারা নীতিনির্ধারক ছিলেন তাদের অসচেতনতা, অদক্ষতা ও দুরদর্শীতার অভাবে ছিয়ান্নব্বইয়ে শেয়ার ধ্বসের মত ঘটনা ঘটেছিলো। পরবর্তীতে যথাযথ ব্যবস্থা না নেওয়ায় এর পুনরাবৃত্তি হয় ২০১০ সালে। কিন্তু এতো বড় দুটি দুর্ঘটনার পরেও শেয়ার বাজারে বিনিয়োগ বেড়েছে এবং লভ্যাংশও বেড়েছে। জুনিয়র চেম্বার চট্টগ্রাম কসমোপলিটন ২০১৮ প্রেসিডেন্ট মাসফিক আহমেদ রুশাদের সঞ্চালনায় এতে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জুনিয়র চেম্বারের প্রাক্তন প্রেসিডেন্ট গিয়াস উদ্দিন, অতিথি ছিলেন বড়তাকিয়া গ্রুপের নির্বাহী পরিচালক বাধন সাহা, রতন পুর স্টিলের পরিচালক মারজানুর রহমান, বোর্ড সেক্রেটারি সৈয়দ ইরফানুল আলম, ভাইস প্রেসিডেন্ট শহিদুল মোস্তাফা চৌঃ মিজান ও বোরহান উদ্দিন শাহেদ। পরিচালকদের মধ্যে ছিলেন রাজু আহাম্মেদ, জাসির চৌঃ, কোচেয়ার সাইফুল ইসলাম মারুফ ও নাজিয়া তাবাসসুম। মেম্বারদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন টিপু সুলতান, ইস্তিয়াক, রায়হান, কাজি রুবায়েত মেহজাবিন ও ফারহান বিন হাসান। এছাড়াও সিকিউরিটিজের হেড অব বিজনেস আব্দুল্লাহআলমামুন, হেড অব রিসার্স আহমেদ ওমর সিদ্দিকী ও ম্যানেজার আব্দুল্লাহআলমাসুদ উপস্থিত ছিলেন। শেয়ার বাজারে চট্টগ্রামের সম্ভাবনা প্রসঙ্গে সাইফুর রহমান মজুমদার বলেন, চায়নার শেয়ার মার্কেট তাদের রাজধানী সংহাইতে এবং পার্শ্ববর্তী দেশ ভারতেও শেয়ার বাজারের মূল স্থান রাজধানী মুম্বাইয়ে। কিন্তু আমাদের দেশে শেয়ার বাজারের সব কার্যক্রম ঢাকায়। এটি অবশ্যই বাণিজ্যিক রাজধানী চট্টগ্রাম কেন্দ্রিক হওয়া উচিত ছিল। চট্টগ্রামও হতে পারতো চায়নার সাংহাই। শামান্তা সিকিউরিটিজের হেড অব বিজনেস আব্দুল্লাহআলমামুন বলেন, যাদের ঝুঁকিপূর্ণ বিনিয়োগের সক্ষমতা রয়েছে শুধু তাদেরই শেয়ার বাজারে আসা উচিত। বুঝে শুনে বিনিয়োগ করলে শেয়ার বাজারের বিনিয়োগের ক্ষতি হওয়ার সম্ভাবনা অনেক কম। সেমিনার শেষে জুনিয়র চেম্বার চিটাগং কসমোপলিটন ও শান্তা সিকিউরিটিজের একটি সমোঝোতা স্বাক্ষর হয়, যার মাধ্যমে শেয়ার বাজারে জুনিয়র চেম্বারের প্রতিনিধিরা বিনিয়োগে বিশেষ সুবিধা পাবে।

x