টেকনাফে সেভ দ্য চিলড্রেনের প্রথম ২৪ ঘণ্টা প্রাইমারি স্বাস্থ্যসেবা কেন্দ্র উদ্বোধন

সোমবার , ২৩ জুলাই, ২০১৮ at ১১:০৩ অপরাহ্ণ
137

কক্সবাজারের টেকনাফের কেরানতলি শরণার্থী শিবিরের চাকমারকুল এলাকায় আজ সোমবার (২৩ জুলাই) সেভ দ্য চিলড্রেনের প্রথম ২৪ ঘণ্টা সেবা প্রদানকারী প্রাইমারি স্বাস্থ্যসেবা কেন্দ্রের উদ্বোধন করা হয়। এটি এই এলাকার একমাত্র ২৪ ঘণ্টা সেবা প্রদানকারী কেন্দ্র। এই এলাকায় বসবাসকারী প্রায় ২০ হাজার রোহিঙ্গা ও বাংলাদেশি শিশু এবং তাদের পরিবার এই কেন্দ্রে সেবা গ্রহণের সুযোগ পাবে।

সেভ দ্য চিলড্রেন-এর হেলথ প্রোগ্রাম ম্যানেজার ক্লেয়ার এল্ড্রেড কেন্দ্রটি উদ্বোধন করতে পেরে তারা অত্যন্ত আনন্দিত জানিয়ে বলেন, ‘কেন্দ্রটি এখানে বসবাসরত বাংলাদেশি ও রোহিঙ্গা শিশুদের ২৪ ঘণ্টা সেবা প্রদানে সক্রিয় থাকবে। চলতি বর্ষা মৌসুমে শিশুদের প্রয়োজনীয় সেবা প্রদান, আসন্ন কোনো রোগের প্রাদুর্ভাব কমানো এবং পরিস্থিতি মোকাবেলা করার প্রস্তুতি গ্রহণে আমরা বাংলাদেশ সরকারের সাথে কাজ করে যাচ্ছি।’ যেকোনো রোগের প্রাদুর্ভাব ঘটলে শিশুরা প্রথমেই আক্রান্ত হয় এবং সেজন্য বাংলাদেশি ও রোহিঙ্গা শিশুদের জন্য সর্বোচ্চ সেবা নিশ্চিতকরণে তারা কাজ করে যাচ্ছেন বলে জানান তিনি।

এই নতুন ২০ শয্যাবিশিষ্ট স্বাস্থ্যকেন্দ্রটিতে থাকছে মাতৃস্বাস্থ্য ইউনিট, ফার্মেসি, আহত রোগীদের জন্য আলাদা ব্যবস্থা, আভ্যন্তরীণ ও বহির্বিভাগের সুবিধা। এছাড়াও নিরবিচ্ছিন্ন সেবা নিশ্চিত করতে এই স্বাস্থ্যসেবা কেন্দ্রের জন্য নির্মাণ করা হয়েছে নিজস্ব পানির টাওয়ার ও জেনারেটরের সুবিধা। গুরুতর মুহুর্তে নির্দেশিত রোগীদের জন্য রয়েছে এম্বুল্যান্স প্রবেশ করার ব্যবস্থা।

সেভ দ্য চিলড্রেন-এর স্বাস্থ্যসেবা কেন্দ্রের হেলথ প্রোগ্রাম ম্যানেজার ড. মিগুয়েল বলেন, ‘এই ক্যাম্পে ও এর পার্শ্ববর্তী এলাকায় রোগীদের নির্দিষ্ট সেবাপ্রদানের সময় ছাড়া সেবাগ্রহণের জন্য অপেক্ষা করতে হতো সারারাত। এখন রোগীরা ২৪ ঘণ্টা সেবা গ্রহণ করতে পারবে যেকোনো অবস্থায়।‘

কেন্দ্রটি উদ্বোধনকালে উপস্থিত ছিলেন কক্সবাজারের সিভিল সার্জন ডা. আব্দুস সালাম, টেকনাফ উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা অফিসার ডা. সুমন বড়ুয়া এবং সেভ দ্য চিলড্রেনের প্রতিনিধিরা ।

উদ্বোধনের পর অতিথিরা স্বাস্থ্যকেন্দ্রের ভিতরে সকল সুযোগসুবিধা পরিদর্শন করেন।

এই স্বাস্থ্যসেবা কেন্দ্রটিসহ, সেভ দ্য চিলড্রেন আরও ১০টি স্বাস্থ্য কেন্দ্র পরিচালনা করছে যেখানে প্রতিদিন প্রায় ১ হাজার এবং সপ্তাহে ৬ হাজার রোগীকে সেবা প্রদানকরা হয়। প্রতিটি কেন্দ্র দিনে ১০০ রোগী দেখে এবং এই কেন্দ্রগুলো পরিচালিত হয় সুদক্ষ ও প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত কর্মী দ্বারা। এর মধ্যে রয়েছে স্বাস্থ্যকর্মী, মেডিকেল অফিসার, মনোসামাজিক পরামর্শদাতা, প্যারামেডিক্স এবং মিডওয়াইফ।

উল্লেখ্য, সেভ দ্য চিলড্রেন স্বাস্থ্য সুরক্ষা ও সচেতনতা বৃদ্ধি করতে বাংলাদেশি ও রোহিঙ্গা স্বেচ্ছাসেবকদের প্রশিক্ষিত করছে যাতে তারা এলাকায় স্বাস্থ্যসেবার সঠিক বাস্তবায়ন নিশ্চিত করতে কাজ করতে পারে প্রতিনিধি হিসেবে। কমিউনিটি স্বেচ্ছাসেবকরা মানসিকভাবে আশঙ্কাজনক অবস্থায় থাকা শিশুদের শনাক্তকরণে ও তাদের চিকিৎসা প্রদানেও প্রশিক্ষিত হচ্ছে।

 

x