টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটের ব্যাপারে কঠোর হচ্ছে আইসিসি

শুক্রবার , ১২ অক্টোবর, ২০১৮ at ৭:৪৯ পূর্বাহ্ণ
20

দিন যত যাচ্ছে ততই জনপ্রিয় হয়ে উঠছে ক্রিকেটর সংক্ষিপ্ত ফরম্যাট। আর সে সুযোগে এই টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটের আয়োজনেরও যেন হিড়িক পড়ে গেছে। ফলে মান এবং আকর্ষণ কমতে শুরু করেছে এই টুর্ণামেন্টগুলোর । একই সাথে বিভিন্ন ক্রিকেট বোর্ড আপত্তি তুলেছে এ সব টুনামেন্টের কারণে অনেক ক্রিকেটার জাতীয় দল থেকে স্বেচ্ছায় অবসর গ্রহণ করে ফেলছেন। আর তাই এবার যত্রতত্র ফ্রাঞ্চাইজিভিত্তিক ক্রিকেট লিগের লাগাম টেনে ধরার বিষয়ে ভাবছে বিশ্ব ক্রিকেটের নিয়ন্ত্রক সংস্থা আইসিসি। জনপ্রিয় টি-টোয়েন্টি লিগ নিয়েও কঠোর বার্তা দিয়েছে আইসিসি। এখন থেকে আর ইচ্ছে মতো ফ্রাঞ্চাইজিভিত্তিক ক্রিকেট লিগ আয়োজন করতে পারবে না কোনো দেশের ক্রিকেট বোর্ড।
বাণিজ্যের বড় একটা উৎস হয়ে দাঁড়িয়েছে এখন ক্রিকেট। ইচ্ছে মতো যে কোনো দেশ তাদের ক্রিকেট বোর্ডকে সাথে নিয়ে টি-টোয়েন্টি বা টি-টেন লিগ আয়োজন করে আসছে। এবার তাতে বাধ সাধছে আইসিসি। দুবাইয়ে আইসিসির একজন উর্ধ্বতন কর্মকর্তা জানিয়েছেন, যত্রতত্র লিগের লাগাম টেনে ধরার বিষয়ে ভাবছে বিশ্ব ক্রিকেটের নিয়ন্ত্রক সংস্থাটি। বিশ্বের সবচাইতে জনপ্রিয় টি-টোয়েন্টি ক্রিকেট লিগ হচ্ছে ভারতের ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগ (আইপিএল)। এরপর বাংলাদেশে চলে বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ (বিপিএল)। ওয়েস্ট ইন্ডিজে চলে ক্যারিবীয়ান প্রিমিয়ার লিগ ( সিপিএল)। পাকিস্তানের বোর্ড গড়ে তুলেছে পাকিস্তান সুপার লিগ (পিএসএল)। অস্ট্রেলিয়ার বিগ ব্যাশ আর ইংল্যান্ডের টি-টোয়েন্টি ব্লাস্ট বেশ পরিচিত। এরই মধ্যে কানাডায় শুরু হয়েছে টি-টেন লিগ। আর কদিন আগে আফগানিস্তান ক্রিকেট বোর্ড চালু করেছে আফগান প্রিমিয়ার লিগ (এপিএল)। তাতে টেস্ট খেলুড়ে দেশের সঙ্গে অন্য দেশের দ্বিপাক্ষিক বা ত্রিদেশীয় সিরিজের সূচি সাংঘর্ষিক হয়ে পড়ছে। এসব বিভিন্ন লিগে খেলতে গিয়ে খেলোয়াড়দের ইনজুরিতে পড়ার প্রবণতা বেড়েছে। জুয়া-বাজি থেকে শুরু করে নানারকম অপ্রীতিকর ঘটনার সংখ্যাও বাড়ছে। এগুলো নিয়ে আইসিসি বেশ চিন্তিত। আগামী ২০ অক্টোবর সিঙ্গাপুরে আইসিসির পরবর্তী বোর্ড মিটিং বসবে। সেখানেই এই বিষয়গুলো নিয়ে আলোচনা হবে বলে জানিয়েছেন আইসিসির একজন মুখপাত্র। তিনি জানান, আগামী সপ্তাহের সভায় আমরা একটি বিষয় নিয়ে কথা বলব। কীভাবে এই ইভেন্টগুলোর অনুমোদন পাওয়া যাবে সেটা নিয়েও আলোচনা হবে। আমরা সবগুলো লিগের কাগজপত্র খতিয়ে দেখার অনুরোধ জানাবো। দলগুলো মালিকানার বিষয়গুলো নিয়ে আলোচনা হবে। আমার মনে হয় ভবিষ্যতে এসব লিগ আয়োজন কিংবা অনুমোদন নেয়া কঠিন হবে।

x