টানা বর্ষণে খাগড়াছড়ির নিম্নাঞ্চল প্লাবিত

খাগড়াছড়ি-রাঙামাটি যান চলাচল বন্ধ

খাগড়াছড়ি প্রতিনিধি

বৃহস্পতিবার , ১১ জুলাই, ২০১৯ at ১১:১২ পূর্বাহ্ণ
15

খাগড়াছড়িতে টানা বর্ষণে পাহাড় ধসের শঙ্কা করছে প্রশাসন। পাহাড়ের পাদদেশে বসবাসরতদের আশ্রয় কেন্দ্রে যাওয়ার জন্য প্রশাসনের পক্ষ থেকে বারবার সতর্ক করা হচ্ছে। খাগড়াছড়ির মহালছড়ি এলাকায় পানি উঠে যাওয়ায় খাগড়াছড়ি-রাঙামাটি সড়কে যান চলাচল বন্ধ রয়েছে। খাগড়াছড়ির আলুটিলা এলাকায় পাহাড়ের মাটি ধসে পড়লেও ঢাকা ও চট্টগ্রামের সাথে যান চলাচল স্বাভাবিক রয়েছে।
ভারতের ত্রিপুরা রাজ্য থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢলের কারণে চেঙ্গী ও মাইনী নদীতে পানি বিপদসীমার উপর দিয়ে অতিক্রম করছে।
খাগড়াছড়ি জেলা সদর,পানছড়ি ও দীঘিনালার নিচু এলাকা প্লাবিত হয়েছে। এদিকে বৃষ্টির পানিতে পাহাড়ি ছড়া ও ঝিরিতে পানি বেড়ে গেছে। জেলা শহরের জিরো মাইল এলাকায় ছড়া’র স্রোতে কালভার্ট ধসে গেছে। এতে ঝুঁকির মুখে পড়েছে বেশ কয়েকটি বসতবাড়ি। বন্যার পানিতে তলিয়ে গেছে দীঘিনালার মেরুং বাজার । মেরুং বাজারে পানি বাড়ায় খাগড়াছড়ির সাথে রাঙামাটির লংগদুর সড়ক যোগাযোগ বন্ধ রয়েছে। পানছড়ির উপজেলার মনিপুর তারাবন এলাকায় পাহাড় ধসে অভ্যন্তরীণ সড়ক যোগাযোগ বন্ধ রয়েছে। এছাড়া উপজেলার পুজগাং এলাকায় ব্যাপক ভাঙন তৈরি হয়েছে।
এদিকে পাহাড়ি ঢলে ক্ষতিগ্রস্তদের তালিকা করে আর্থিক সহায়তা প্রদানের কথা জানিয়েছে খাগড়াছড়ি জেলা প্রশাসন। জেলার ১৭ টি আশ্রয় কেন্দ্রে ২৫০০ মানুষ আশ্রয় নিয়েছে। আশ্রয় কেন্দ্রগুলোতে খিচুড়ি বিতরণ করা হচ্ছে।
খাগহড়াছড়ির জেলা প্রশাসক মো.শহিদুল ইসলাম জানান,‘ পাহাড়ি ঢল ও বর্ষণের কারণে পাহাড় ধসের শঙ্কায় ঝুঁকিপূর্ণদের নিরাপদ আশ্রয়ে নেয়া হয়েছে। খাগড়াছড়ি জেলা সদরে ১০ টি এবং অন্যান্য উপজেলায় ৭টি আশ্রয় কেন্দ্রে খোলা হয়েছে। বন্যা পরিস্থিতি মোকাবেলায় প্রশাসনের সার্বিক প্রস্তুতি রয়েছে।’

x