ঝড়ো সেঞ্চুরি দিয়েই মাঠে ফিরলেন তামিম

ক্রীড়া প্রতিবেদক

শুক্রবার , ৭ ডিসেম্বর, ২০১৮ at ৫:১১ পূর্বাহ্ণ
6

বাংলাদেশের ওপেনার তামিম ইকবালের মাঠে ফেরার কথা ছিল ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে টেস্ট সিরিজেই। আর সে লক্ষ্যে অনুশীলনও শুরু করেছিলেন তামিম। কিন্তু বিধি বাম। সিরিজ শুরুর ঠিক আগে ব্যাটিং অনুশীলন করার সময় পাজরে ব্যথা পান। আর তাতে শেষ পর্যন্ত টেস্ট দলে জায়গা হয়নি এই ওপেনারের। চেষ্টা করা হয়েছিল দ্বিতীয় টেস্টে ফেরানোর। কিন্তু সেটাও হয়নি। এক পর্যায়ে শংকা দেখা দেয় ওয়ানডে সিরিজে খেলতে পারবেন কিনা তামিম। তাইতো নিজে থেকেই ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে প্রস্তুতি ম্যাচে খেলার আগ্রহ প্রকাশ করেছিলেন তামিম। যাতে নিজের ফিটনেসের অবস্থা কোন পর্যায়ে আছে সেটা পরখ করে নেওয়া যায়। শেষ পর্যন্ত ইনজুরিকে হার মানিয়েছেন তামিম। আর টেস্ট সিরিজে খেলতে না পারার ঝালটাই যেন তিনি মেটালেন ক্যারিবীয়দের বিপক্ষে একমাত্র একদিনের প্রস্তুতি ম্যাচে। দারুণ এক সেঞ্চুরি দিয়েই মাঠে ফিরলেন বাংলাদেশের ড্যাশিং ওপেনার তামিম ইকবাল।
গত সেপ্টেম্বরে আরব আমিরাতে অনুষ্ঠিত এশিয়া কাপে ইনজুরিতে ছিটকে যাওয়া তামিম প্রায় তিন মাস পর ফিরলেন মাঠে। ফিরেই করলেন দুর্দান্ত এক সেঞ্চুরি। এ যেন রাজকীয় এক ফেরা। তার ঝড়ো সেঞ্চুরিতেই ওয়েস্ট ইন্ডিজের দেওয়া ৩৩২ রানের বিশাল লক্ষ্যটাকেও সহজ মনে হচ্ছিল। সব শংকা, ভয় আর প্রতিবন্ধকতাকে জয় করে তামিম যেন ঠিক তামিম রূপেই ফিরলেন মাঠে। ব্যাট হাতে তুললেন ঝড়। সাভারের বিকেএসপিতে তিন নম্বর মাঠে অনুষ্ঠিত প্রস্তুতি ম্যাচে ওয়েস্ট ইন্ডিজ প্রথমে ব্যাট করতে নেমে দাঁড় করিয়েছিলে ৩৩১ রানের বিশাল সংগ্রহ। মনে হচ্ছিলো এতো রান করা হয়তো কঠিন হবে বিসিবি একাদশের জন্য। কিন্তু তামিম ইকবাল শুরুতেই যেন বুঝিয়ে দিলেন এ রানও অনতিক্রম্য নয়। তিনি যেদিন নিজের মত ব্যাট করবেন সেদিন কোন রানই বড় হতে পারেনা বাংলাদেশের সামনে। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বোলারদের কচু কাটা করে তুলে নিলেন ঝড়ের বেগের এক সেঞ্চুরি। মাত্র ৭৩ বলে ১০৭ রানের টর্নেডো ইনিংস খেলেছেন তামিম। তামিম মানেই ঝড়ো ব্যাটিং। কিন্তু গত বেশ কিছু দিন ধরে তামিম সে তকমাটা কিছুটা হলেও সরিয়ে রেখেছিল। যে বলটাকে সমীহ করার সেটাকে সমীহ করতেন। আর যেটাকে মারার সেটাকে মারতে মোটেও কার্পণ্য করতেননা। নিজেকে অনেকটাই নিয়ন্ত্রণে নিয়ে আসা তামিম আবার সে বিস্ফোরক মেজাজে। মাত্র ৩৪ বলে হাফসেঞ্চুরি পূরণ করার পর সেঞ্চুরিতে যেতে তামিম খেলেছেন আর ৩৬ বল। সেঞ্চুরির পর ১টি ছক্কা মেরে রস্টন চেজের বলে স্টাম্পিং হয়ে ফিরেন দেশসেরা এ ওপেনার। হাফসেঞ্চুরিতে পৌঁছতে তামিম ৮টি বাউন্ডারির পাশাপাশি মেরেছেন ১টি ছক্কা। পরে সেঞ্চুরি করতে যোগ করেন আরও পাঁচটি চার ও দুইটি ছক্কা। সবমিলিয়ে ১৩ চার ও ২ ছক্কার সাহায্যে সাজানো তামিমের ইনিংসটি ছিল ৭৩ বলে ১০৭ রানের। যদিও সেঞ্চুরির পরপরই থামেন তামিম। তামিমের এমন ঝড়ো ব্যাটিংয়ের দিনে তাকে যোগ্য সঙ্গ দিচ্ছেন সৌম্য সরকারও। বেশ কিছুদিন ধরে ব্যাটে রান না পাওয়া সৌম্য যেন তেথে উঠলেন তামিমকে। অনেক দিন ধরে তামিমের সাথে ব্যাট করার সুযোগ পাচ্ছিলেননা সৌম্য সরকার। যখনই পেলেন সেটাকে দারুণভাবে কাজে লাগালেন এই ওপেনার। যদিও গতকাল তিনি ওয়ান ডাউনে ব্যাট করেছেন। টেস্ট সিরিজে হোয়াইট ওয়াশ হওয়া ওয়েস্ট ইন্ডিজ ওয়ানডে সিরিজে ঘুরে দাঁড়ানোর চেষ্টা করবে সেটা নিশ্চিত। আর এমনিতেই সীমিত ওভারের ক্রিকেটে বেশ ভাল দল ওয়েস্ট ইন্ডিজ। তাইতো এমন সিরিজের আগে তামিমের ফেরাটা বেশ জরুরি ছিল। তাও যখন একেবারে তামিম রূপে ফিরলেন এই ওপেনার তখন স্বস্তির নিঃশ্বাস ফেলতেই পারে বাংলাদেশ শিবির। এশিয়া কাপে ইনজুরির পর শংকা ছিল কতটা ফিট হতে পারবেন তামিম। আর কতটা ছন্দ ফিরে পাবেন এই ওপেনার। তবে একটি প্রস্তুতি ম্যাচেই যেন সব প্রশ্নের উত্তর মিলে গেল। তামিম যে ঠিক তামিম রূপেই ফেরার অপেক্ষায় সেটা পরিষ্কার হয়ে গেল। নিজের ফিটনেসে যে কোন সমস্যা নেই সেটা পরিষ্কার করে দিলেন তামিম। আর সে সাথে আশ্বস্তও করলেন ওয়েষ্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ভাল কিছু করার। এদিকে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে সিরিজের পর আবার মাঠে নামা টাইগার দলপতি মাশরাফি বিন মর্তুজা বোলিংয়ের সময় ডান পায়ের হ্যামস্ট্রিংয়ে ব্যথা অনুভব করছিলেন । প্রথম স্পেলে ৪ ওভার বোলিং করে বিনা উইকেটে ২০ রান খরচ করেন তিনি। পরে দ্বিতীয় স্পেলে ৪ ওভারে এক মেইডেনসহ মাত্র ১৭ রানে নেন একটি উইকেট। হ্যামস্ট্রিং ব্যথার কথা নিজেই স্বীকার করেছেন মাশরাফি। তবে এটি আজকের নয়। আরও বেশ কয়েকদিন আগে থেকেই এই ব্যথা তাকে ভোগাচ্ছে বলে জানান টাইগার অধিনায়ক। তারপরও বেশ ভাল ছন্দে রয়েছেন তিনিও। যা ওয়ানডে সিরিজে বাংলাদেশের জন্য সুখবর।

x