জিলাপি তৈরিতে হাইড্রোজ ও ইফতারিতে ক্ষতিকর রং ব্যবহার

৮ প্রতিষ্ঠানকে দেড় লাখ টাকা জরিমানা

আজাদী প্রতিবেদন

বৃহস্পতিবার , ১৬ মে, ২০১৯ at ৪:২৮ পূর্বাহ্ণ
27

নোংরা ও অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে খাবার তৈরি এবং সংরক্ষণের দায়ে নগরীর বিভিন্ন হোটেল রেস্টুরেন্টকে জরিমানা করেছে জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতর। এছাড়া কাঁচা বাজারেও অভিযান চালানো হয়।
অধিদফতরের চট্টগ্রাম বিভাগীয় কার্যালয়ের উপ-পরিচালক প্রিয়াংকা দত্ত, সহকারী পরিচালক নাসরিন আক্তার, সহকারী পরিচালক (মেট্রো) বিকাশ চন্দ্র দাস এবং চট্টগ্রাম জেলা কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক মুহাম্মদ হাসানুজ্জামান অভিযানে নেতৃত্ব দেন।
অধিদফতর সূত্রে জানা গেছে, নগরের ইপিজেড ও চান্দগাঁও থানায় সকাল ১০টা থেকে সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত ১৬টি প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন করে ৮টিকে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আই ২০০৯ এর বিভিন্ন ধারায় ১ লাখ ৫৪ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। এসময় অননুমোদিত দই, বাসি খাবার, ছাপানো নিউজপ্রিন্টে রাখা ইফতার, হাইড্রোজ দেওয়া জিলাপি, অননুমোদিত রং দেওয়া খামি ধ্বংসসহ ১৬টি কম ওজনের বাটখারা জব্দ করা হয়।
অভিযানে ইপিজেড থানার নেভি হাসপাতাল গেট এলাকার কাঁচাবাজারে গরুর মাংসের দোকানে মূল্য তালিকা না থাকায় ও ওজনে কম দেওয়ায় শাহ নূরের মাংসের দোকানকে ৫ হাজার, বেলালের মাংসের দোকানকে ৩ হাজার, জোহা মিয়ার মাংসের দোকানকে ১ হাজার টাকা জরিমানা করা হয় এবং ১৬টি কম ওজনের বাটখারা জব্দ করা হয়।
অপরদিকে একই এলাকার জাহানারা হোটেলকে ইফতারে ক্ষতিকর (অননুমোদিত) রং ব্যবহার করায় ১০ হাজার জরিমানা করে রং দিয়ে তৈরি ইফতারি ধ্বংস করা হয়। মডার্ন হাসান বেকারিকে উৎপাদন, মেয়াদ ও অনুমোদন বিহীন দই তৈরি করায় ৩০ হাজার টাকা জরিমানাসহ ১২ কেজি ধ্বংস করা হয়। জান্নাত বেকারিকে হাইড্রোজ ও অননুমোদিত রং ব্যবহার করে জিলাপি প্রস্তুত করায় ২০ হাজার টাকা জরিমানাসহ ১০ কেজি জিলাপি ও খামি ধ্বংস করা হয়। লাকি ঝাল বিতানকে হাইড্রোজ ব্যবহার করে জিলাপি তৈরির দায়ে ৫ হাজার টাকা জরিমানাসহ সব জিলাপি ও খামির ধ্বংস করা হয়েছে।

x