জাহানারা ইমামের আন্দোলন বাঙালিকে আশান্বিত করেছিল

স্মরণানুুষ্ঠানে ড. অনুপম সেন

বৃহস্পতিবার , ২৭ জুন, ২০১৯ at ১১:৫০ পূর্বাহ্ণ
17

শহীদ জননী জাহানারা ইমামের ২৫তম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে প্রমা আবৃত্তি সংগঠনের আয়োজনে গতকাল বুধবার চট্টগ্রাম কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে আলোচনা, আবৃত্তি ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে। প্রমার সভাপতি রাশেদ হাসানের সভাপতিত্বে আলোচক ছিলেন প্রিমিয়ার বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. অনুপম সেন, শহীদজায়া বেগম মুশতারী শফি ও মুক্তিযোদ্ধা ডা. মাহ্‌ফুজুর রহমান, প্রফেসর ডা. এ কিউ এম সিরাজুল ইসলাম। ড. অনুপম সেন বলেন, বাঙালির হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ কীর্তি মুক্তিযুদ্ধ, ৭৫এ বঙ্গবন্ধুকে হত্যার পর মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস পাল্টে ফেলার চেষ্টা করা হয়েছিল, তৎপরবর্তী জাহানারা ইমাম যুদ্ধাপরাধ বিরোধী আন্দোলন শুরু করেছিলেন, তাঁর এই আন্দোলন বাঙালিকে আশান্বিত করেছিল। বেগম মুশতারী শফি বলেন, জাহানারা ইমাম নিজের স্বামী পুত্রকে হারিয়ে একাত্তরের ঘাতকদের বিরুদ্ধে আন্দোলন থেকে কখনো পিছিয়ে যান নি। সভাপতিত্ব করেন আবৃত্তিশিল্পী রাশেদ হাসান। বিশ্বজিৎ পালের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে শহীদ জননীর শেষ উচ্চারণ পাঠ করেন মামুরা মমতাজ দীপা, কবিতা পাঠ করেন কংকন দাশ, মোহিত বিশ্বাস, সেলিম রেজা সাগর, মাহাবুবুর রহমান মাহফুজ, দেবাশীষ রুদ্র, শব্দনোঙ্গরের দিলরুবা খানম, বোধনের সঞ্জয় পাল, সন্দীপনার মেজবাহ উদ্দিন, কামনাশীষ চক্রবর্তী, প্রিয়ম কৃষ্ণ দে। বৃন্দ আবৃত্তি পরিবেশন করে প্রমা, ত্রিতরঙ্গ, কন্ঠনীড়, নির্মাণ।
সৃজন সাংস্কৃতিক পরিষদ : সৃজন সাংস্কৃতিক পরিষদের উদ্যোগে গতকাল বুধবার শহীদ জননী জাহানারা ইমাম স্মরণে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। অভিষেক চৌধুরীর সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন মুক্তিযোদ্ধা ফজল আহমদ। প্রধান বক্তা ছিলেন হারাধন চৌধুরী, বিশেষ অতিথি ছিলেন আন্না ভট্টাচার্য্য। রক্তিম দে’র সঞ্চালনায় আরো বক্তব্য দেন, ইমরুল হাসান, বিজয় মল্লিক, সুমিত দাশ, সুষ্মিতা চৌধুরী, আফসান হোসাইন রাসেল, সাইদুর রহমান শাকিব প্রমুখ। প্রেস বিজ্ঞপ্তি।

x