জাপানের আইটি খাতে সুযোগ

শুক্রবার , ৪ অক্টোবর, ২০১৯ at ৫:৪২ পূর্বাহ্ণ
27

জাপানের প্রযুক্তি বাজারে প্রতি বছর দুই লাখ তথ্যপ্রযুক্তিবিদের চাহিদা থাকায় এ বাজারে বাংলাদেশের তরুণদের সম্ভাবনা দেখছেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক। গত বুধবার রাজধানীর আগারগাঁওয়ের আইসিটি টাওয়ারে জাপানে কর্মসংস্থানের উপযোগী করে গড়ে তোলা আইটি ইঞ্জিনিয়ারদের সনদ বিতরণ অনুষ্ঠানে এ বিষয়ে কথা বলেন তিনি।
অনুষ্ঠানে পলক বলেন, আমাদের দেশে প্রতি বছর ২০ লাখ গ্র্যাজুয়েট বের হয়। জাপানে প্রতি বছর প্রায় দুই লাখ চাহিদা রয়েছে। জাপানের শ্রম বাজারে প্রবেশের এ সুযোগ কাজে লাগাতে হবে। খবর বিডিনিউজের।
জাপানের শার্জ দ্য অ্যাফেয়ার্স ইয়াসুহারু শিনত অনুষ্ঠানে বলেন, জাপানে কর্মক্ষম লোক কমে যাচ্ছে। তাই আশপাশের দেশ থেকে কর্মী নেওয়া হচ্ছে। বাংলাদেশ থেকে এর আগে পাঁচটি ব্যাচ জাপানে গেছে। সেখানে তাদের কাজের সুনাম ও প্রশংসা শুনছি আমরা।
তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, জাইকা ও বাংলাদেশ সরকারের যৌথ অর্থায়নে জাপানের তথ্যপ্রযুক্তি খাতের উপযোগী করে বাংলাদেশের আইটি ইঞ্জিনিয়ারের দক্ষতা উন্নয়নের লক্ষ্যে এ প্রকল্প বাস্তবায়িত হচ্ছে। প্রকল্পটি চলবে ২০২১ সাল পর্যন্ত। এ প্রকল্পের আওতায় জাপানি ভাষা, জাপানি বিজনেস কালচার এবং আইটির ওপর তিন মাস মেয়াদী প্রশিক্ষণ পরিচালনা করা হয়।
এর আগের পাঁচটি ব্যাচে ১৫৬ জন শিক্ষার্থীকে প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়েছে, যাদের মধ্যে ১১৩ জনের জাপানে এবং বাকি ৪৩ জনের দেশেই কর্মসংস্থানের সুযোগ হয়েছে। এবারের ৩৫ জনের মধ্যে ছয়জনের ইতোমধ্যে জাপানে কর্মসংস্থান নিশ্চিত হয়েছে। আর বাকি ২৯ জনের কর্মসংস্থানের প্রক্রিয়া চলমান রয়েছে বলে সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়। এ প্রোগ্রামের ষষ্ঠ ব্যাচে দেশের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয় থেকে অংশ নেওয়া ৪০ জনের মধ্যে প্রশিক্ষণ শেষ করা ৩৫ জনের মধ্যে এদিন সনদ বিতরণ করেন প্রতিমন্ত্রী পলক। অন্যদের মধ্যে বাংলাদেশে জাইকার কান্ট্রি রিপ্রেজেন্টেটিভ হিতশি হিরাতা অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।

x