(জাদুকর)

কাজী জোহেব

সোমবার , ২ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ at ১০:২৬ পূর্বাহ্ণ
51

শিশুসাহিত্যিকরা এক একজন শক্তিশালী জাদুকর। ‘এক দেশে ছিল এক রাজা। রাজার ছিল তিন রাণী…’ এরকম একটা গল্প শোনেনি, সাধারণ একটি বাঙালি পরিবারে এমন শিশু বোধহয় বিরল। শিশুসাহিত্য প্রসঙ্গে রূপকথার কথা না বললেই নয়। দেশি বা বিদেশি যে কোনো শিশুসাহিত্যের কথা বলতে গেলেই রূপকথারা মনে পড়ে যায়। ‘ঠাকুরমার ঝুলি’ বা গ্রিম-অ্যান্ডারসনের রূপকথার গল্প নিয়ে শৈশব কাটেনি, এমন শিক্ষিত সাহিত্যপ্রেমী মানুষ খুঁজে পাওয়া মুশকিল। অক্ষরজ্ঞানের বয়স থেকেই কোনো একটা সাহিত্য যদি মনে থেকে গিয়ে থাকে, তা নিয়ে প্রশ্ন করলে অনেকেই যে হাতে গোনা দু’চারটি বইয়ের নাম করবেন সেগুলো হল ‘ঠাকুরমার ঝুলি’, ‘আলিবাবা আর চল্লিশ চোর’, ‘আলাদিন’, ‘সিন্দবাদ’, ‘অ্যালিস ইন দ্য ওয়াণ্ডারল্যান্ড’, ‘গালিভারস ট্র্যাভেল্‌স’ এমন সব শিশু-কিশোর সাহিত্য। আমি মোটামুটি নিশ্চিত। রামপদ চৌধুরী বলেছিলেন, ‘ছোটদের জন্যে লেখাকে শিশুসাহিত্য বলা হয় বলেই ব্যাপারটা নেহাত শিশুসুলভ নয়।’ কথাটা মনে ধরেছিল। শিশুসাহিত্য বলতে কোন কোন লেখাগুলোকে ধরা হবে, সে নিয়ে আমার মনে বিস্তর ভাবনা। আসলে শৈশব আর কৈশোর এত কাছাকাছি যে কিশোরসাহিত্যের লেখাগুলোকেও অনায়াসে শিশুসাহিত্যের মধ্যে ধরে ফেলা যায়। শৈশব আর কৈশোর, স্বপ্ন দেখার বয়স। কল্পনায় পৃথিবী গড়ার বয়স। নির্মল স্বচ্ছ মনে স্বপ্ন দেখতে শেখার বয়স। শিশুসাহিত্য সেই স্বপ্ন-দেখা মনের সাথী। শিশুসাহিত্যিকরা এক একজন শক্তিশালী জাদুকর। ‘চিচিং ফাঁক’ মন্ত্র শিখিয়ে কঠিন পাথরের দেওয়াল সরিয়ে ফেলা কি যার তার কাজ! এই একটি কথায় শিশুমনের দুয়ার খুলে ঢুকে পড়েন লেখক, চিচিং ফাঁক। আপনার সন্তানকে নিয়ে আসুন ১৯,২০,২১ সেপ্টেম্বর চট্টগ্রাম শিল্পকলা একাডেমিতে তিনদিনব্যাপী ছোটোদের বইমেলা ও শিশুসাহিত্য উৎসবে।

x