জাতীয় শিশু কিশোর নাট্য উৎসবে কিড্‌সের বেচারাম কেনারাম

আনন্দন প্রতিবেদক

বৃহস্পতিবার , ১০ অক্টোবর, ২০১৯ at ১০:১৬ পূর্বাহ্ণ
27

২০-২৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯ বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির পরীক্ষণ থিয়েটার মিলনায়তন মঞ্চে উদযাপিত জাতীয় শিশু কিশোর নাট্য উৎসবে ২৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯ কিড্‌স কালচারাল ইন্সটিটিউট প্রযোজনা নাটক- বেচারাম কেনারাম (রচনা : উপেন্দ্র কিশোর রায় চৌধুরী নাট্যরুপ অসীম দাস নির্দেশনা -ড. সৌরভ শাখাওয়াত, সহ নির্দেশনা : মাসউদ আহমেদ) দর্শক নন্দিত হয়। আবহ সংগীত নিয়েন্ত্রন করে জিসাদ ও আলোক প্রক্ষেপণে ছিলেন গোলাম রাব্বানী। নাটকে বিভিন্ন চরিত্রে অভিনয় করে নদী, সানজিদা, আবরার, জিলান, শুভ্র, স্নেহা, ফারিহা, তন্ময়, সৌহার্দ্য, জারিফ, শতাব্দী ও সহস্রাব্দী। কিড্‌স কালচারাল ইন্সটিটিউট এর ক্ষুদে অভিনেত্রী সহস্রাব্দী শাখাওয়াত মঞ্চকুঁড়ি পদক লাভ করে। পদক প্রদান করেন নন্দিত অভিনেতা জাহিদ হাসান।
বেচারাম কেনারাম নাটকে গৃহকর্মে নিয়োজিত পিতৃমাতৃহীন শিশু কেনারাম। হাড়কিপটে গৃহকর্তার বাড়িতে কাজ করে আসছে দশ বছর ধরে। কোন মাইনা মেলেনি। ষোল বছর পূর্ণ হতেই কেনারাম সিদ্ধান্ত নেয় যে, সে আর এ মনিবের অধীনে কাজ করবে না। তাই মাইনা চাইতেই মনিবের কানে কম শোনার ব্যামো। তাই পত্র লিখে জানিয়ে দেয় তার আবেদন। মনিব বাধ্য হয়ে হিসাব নিকাশ করে পাওনা বুঝিয়ে দেয় কেনারামকে। কেনারামের খুশি দেখে কে? পথেই দেখো হয় ঈশ্বরের দূতের সাথে। তিনি খুশি হয়ে তাকে একটি যাদুর বেহালা উপহার দেয়। যাদুর বেহালার সুরে ্‌ শিশু কেনারামের প্রতি অবহেলা আর মিথ্যে অপবাদ প্রমাণিত হয়।যাদুর বেহালার সুরে সুরে সকল নিপীড়নের অবসান হয়ে সত্যের জয় শেষে। নাটকের শিক্ষায় জানা যায় শিশুদের ভালবাসতে হবে -সকল শিশুকে নিজের শিশুর মতো সমান চোখে দেখতে হবে।

x