জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের বিবিএ (অনার্স) প্রফেশনাল কোর্স

এম. সারওয়ার

শনিবার , ৫ অক্টোবর, ২০১৯ at ৭:২৩ পূর্বাহ্ণ
97

বাংলাদেশে দু’ধরণের বিবিএ কোর্স রয়েছে একটি একাডেমিক অন্যটি প্রফেশনাল। সকল পাবলিক ও প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে একাডেমিক বিবিএ (অনার্স) পড়ানো হয়। শুধুমাত্র ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের-ওইঅতে এবং জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রফেশনাল বিবিএ (অনার্স) পড়ানো হয়। যেখানে অনার্স শেষে ৩ (তিন) মাস মেয়াদী ইন্টার্নশিপ করার সুযোগ পায় শিক্ষার্থীরা ফলে চাকুরীতে প্রবেশের পূর্বেই অভিজ্ঞতায় সমৃদ্ধ হয় তারা। এই কোর্সে কোনো সেশনজট নাই (জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের একাডেমিক ক্যালেন্ডার অনুসারে)। ব্যাংকিং সেক্টর বা অন্যান্য চাকরির ক্ষেত্রে রয়েছে এর ব্যাপক চাহিদা। এই কোর্স সম্পন্ন করার পর এক বছরে এমবিএ শেষ করার সুযোগ পাবে শিক্ষার্থীরা। কোর্সটি পুরোপুরি ইংরেজি মাধ্যমে হওয়াতে চাকরির ক্ষেত্রে মূল্যায়ন করা হয় বেশি। যে কোনো বিভাগের ছাত্র-ছাত্রী এই কোর্সে ভর্তি হতে পারবেন। জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে ৪ বছর (৮ সেমিস্টার) মেয়াদী চৎড়ভবংংরড়হধষ ইইঅ (ঐড়হ্থং) এই কোসের্র বিষয়গুলো হল হিসাব বিজ্ঞান, ব্যবস্থাপনা এবং মার্কেটিং ও ফিন্যান্স।
এ প্রসঙ্গে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় অধিভুক্ত ইনস্টিউট অব গ্লেবাল ম্যানেজমন্টে এন্ড ইনফরমেশন সিস্টেম, কলেজ কোড- ৪৩৯৫ (ওএগওঝ) এর প্রতিষ্ঠাতা ও ফাউন্ডেশন চেয়ারম্যান এসএম জাকের হোসেন বলেন, বিবিএ শিক্ষার্থীদের জন্য ব্যাংক, বীমাসহ বিভিন্ন সরকারি বেসরকারি আর্থিক ও বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠানে রয়েছে কাজের সুযোগ। এসব বিবেচনা করে আধুনিক যুগের চাহিদা ও আন্তর্জাতিক শিক্ষার মানের সাথে তালমিলিয়ে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় চালু করে ইইঅ (ঐড়হ্থং) প্রফেশনাল কোর্স। তাই সম্প্রতি এইচ,এস,সি উত্তীর্ণ ছাত্রছাত্রীরা যারা পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়সমূহে ভর্তির সুযোগ পায়নি এবং বিপুল অর্থ লগ্নি করে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ার সক্ষমতাও যাদের নেই, তাদের জন্য স্বল্প খরচে এই বিবিএ কোর্সটি অত্যন্ত সময়োপযোগী এবং কাঙ্ক্ষিত।
শিক্ষার মান : এ সম্পর্কে ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ জানান, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের খ্যাতিমান অধ্যাপকবৃন্দ এখানে ক্লাস নিয়ে থাকেন। এ ছাড়াও রয়েছেন অভিজ্ঞ স্থায়ী শিক্ষকবৃন্দ। আছে মাল্টিমিডিয়া সমৃদ্ধ ও সিসিটিভি নিয়ন্ত্রিত ওয়াই ফাই ক্যাম্পাস এবং সুপরিসর লাইব্রেরি। পর্যাপ্ত ক্লাসরুম,সমৃদ্ধ লাইব্রেরী,নিয়মিত পাঠদান ও এ্যাসেসমেন্ট এবং সেমিনার সিম্পোজিয়মসহ নানা শিক্ষাবান্ধব পদক্ষেপের ফলে প্রতিষ্ঠার পর থেকে এই শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা কৃতিত্বপূর্ণ ফলাফল করে আসছে।
ভর্তির যোগ্যতা : শিক্ষার্থীদের ৪ (চার) বছর মেয়াদী এই কোর্সে ২০১৯-২০ শিক্ষাবর্ষে ভর্তির আবেদনের জন্য মানবিক শাখার ক্ষেত্রে ২০১৫,২০১৬ ,২০১৭ সালে উত্তীর্ণ এস,এস,সি পরীক্ষায় ন্যূনতম জিপিএ ২.৫ ও ২০১৭,২০১৮, ২০১৯ সালে এইচএসসি এবং সমমান পরীক্ষায় ৪র্থ বিষয়সহ ন্যূনতম জিপিএ ২.৫ প্রয়োজন হবে। বিজ্ঞান ও ব্যবসায় শিক্ষা শাখার ক্ষেত্রে ২০১৫, ২০১৬, ২০১৭ সালে উত্তীর্ণ এসএসসি-তে জিপিএ ৩.০ এবং ২০১৭, ২০১৮, ২০১৯ সালে এইচএসসি এবং সমমান পরীক্ষায় ৪র্থ বিষয়সহ ন্যূনতম জিপিএ ২.৫ প্রয়োজন হবে। এ ছাড়া কারিগরি শিক্ষাবোর্ড ও ইংরেজী মাধ্যম শিক্ষার্থীদের ভর্তির যোগ্যতা জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের িি.িহঁ.ধপ.নফ/ধফসরংংরড়হং ওয়েবসাইটে ভর্তি বিজ্ঞপ্তিতে দেয়া আছে।
আবেদনের নিয়ম : উপরিল্লেখিত জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি বিষয়ক ওয়েবসাইট হতে আবেদন ফরম ডাউনলোড শুরু হয়েছে ২২ সেপ্টেম্বর। ৯ অক্টোবরের মধ্যে আবেদন ফরম পূরণ করে প্রয়োজনীয় অন্যান্য কাগজপত্রসহ ওএগওঝ কলেজ অফিসে জমা দিতে হবে। কলেজে জমা দেয়ার শেষ তারিখ ১০ অক্টোবর পর্যন্ত। সরাসরি কলেজ অফিসে এসেও ভর্তি সংক্রান্ত যাবতীয় কাজ সম্পন্ন করা যাবে। বিস্তারিত জানতে ওএগওঝ, ৯৩২/এ মেহেদীবাগ রোড, (সাদার্ন ভার্সিটি ভবনের সন্নিকটে) এই ঠিকানায় অথবা ০১৮৪৩-৪০২৫৫৬ ফোন নম্বরে যোগাযোগ এবং িি.িরমসরং.বফঁ.নফ- তে লগইন করা যাবে।

x