জাতীয় জ্বালানি নিরাপত্তা দিবসে কেজিডিসিএলের বর্ণাঢ্য র‌্যালি

শুক্রবার , ১০ আগস্ট, ২০১৮ at ৯:২৬ পূর্বাহ্ণ
41

জাতীয় জ্বালানি নিরাপত্তা দিবস উদ্‌যাপন উপলক্ষে কর্ণফুলী গ্যাস ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি লিমিটেড (কেজিডিসিএল) গতকাল বৃহস্পতিবার বর্ণাঢ্য র‌্যালির আয়োজন করে। এম এ আজিজ স্টেডিয়াম সংলগ্ন জিমনেশিয়াম চত্ত্বর হতে আরম্ভ করে প্রেস ক্লাব প্রাঙ্গনে বিভিন্ন ফেস্টুন ও ব্যানার হাতে কেজিডিসিএলের সর্বস্তরের কর্মকর্তা ও কর্মচারীগণ র‌্যালিতে অংশগ্রহণ করে।

প্রেস ক্লাব প্রাঙ্গনে র‌্যালি পরবর্তী সংক্ষিপ্ত সমাবেশে কেজিডিসিএলের ব্যবস্থাপনা পরিচালক প্রকৌশলী খায়েজ আহম্মদ মজুমদার বক্তব্য দেন। অন্যদের মধ্যে মহাব্যবস্থাপক (অর্থ ও হিসাব) হোসাইন জিয়াউল হক, অফিসার্স ওয়েলফেয়ার এসোসিয়েশনের সভাপতি প্রকৌশলী আনিছ উদ্দিন আহমদ, সাধারণ সম্পাদক এ জে এম ছালেহউদ্দিন সারওয়ার, কেজিডিসিএল শ্রমিক কর্মচারী সংসদের (সিবিএ)-এর সভাপতি ফরিদ আহমদ, সাধারণ সম্পাদক মোঃ আসলামসহ কোম্পানির সর্বস্তরের কর্মকর্তা ও কর্মচারীগণ এতে উপস্থিত ছিলেন।

প্রধান অতিথি বলেন, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ১৯৭৫ সালের ৯ আগস্ট তৎকালীন শেল অয়েল কোম্পানির কাছ থেকে ৫টি গ্যাস ফিল্ড (তিতাস, বাখরাবাদ, হবিগঞ্জ, কৈলাশটিলা ও রশিদপুর) ক্রয় করে জ্বালানি খাতে সরকারি মালিকানার সূচনা করেন। বঙ্গবন্ধুর দূরদর্শী চিন্তা ও বিচক্ষণ দৃষ্টিভঙ্গির কারণে বাংলাদেশ সরকার নাম মাত্র মূল্যে এই পাঁচটি গ্যাস ফিল্ড ক্রয় করে যা অদ্যাবধি বাংলাদেশের জ্বালানি ক্ষেত্রে এবং দেশের অর্থনীতিতে অসামান্য অবদান রেখে চলেছে। মহান নেতার এই অবদানকে স্মরণীয় করে রাখতে সরকারিভাবে প্রতি বছর ৯ আগস্ট ‘জাতীয় জ্বালানি নিরাপত্তা দিবস’ হিসেবে উদ্‌যাপন করা হচ্ছে। তিনি আরো বলেন, স্বাধীনতার মহান স্থপতি বঙ্গবন্ধু দেশের স্বার্থকে অগ্রাধিকার দিয়ে দেশীয় কোম্পানির মাধ্যমে জ্বালানি খাতের কার্যক্রমকে উৎসাহ ও পৃষ্ঠপোষকতা প্রদান করেছেন। সে ধারাবাহিকতায় জাতির জনকের সুযোগ্য উত্তরসূরি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গ্যাসসহ অন্যান্য জ্বালানি ব্যবহারে সাশ্রয়ী হওয়ার ও নিরাপদ জ্বালানি ব্যবহারে সচেতনতা বৃদ্ধি কল্পে বহুমাত্রিক কর্মসূচি গ্রহণ করেছেন। তাছাড়া সরকার জ্বালানি নিরাপত্তাকে সর্বোচ্চ অগ্রাধিকার দিয়ে নিরন্তর কাজ করে চলছে। গ্যাস উৎপাদন ও সরবরাহের অবকাঠামো উন্নয়ন, নতুন নতুন কূপ খননসহ গ্যাসের অনুসন্ধান অব্যাহত রাখার পাশাপাশি গ্যাসের চাহিদা বৃদ্ধির বিষয়টি বিবেচনা করে বিভিন্ন খাতে নিরবচ্ছিন্ন গ্যাস সরবরাহের লক্ষ্যে তরলীকৃত প্রাকৃতিক গ্যাস (এলএনজি) আমদানির সিদ্ধান্ত গ্রহণ করে। দ্রুততম সময়ের মধ্যেই ভাসমান এলএনজি টার্মিনাল হতে জাতীয় গ্রিডে আমদানিকৃত গ্যাস যুক্ত হবে, এর পাশাপাশি ল্যান্ডবেইজ্‌ড এলএনজি টার্মিনাল নির্মাণেরও পরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়েছে। মূল্যবান গ্যাসের অপচয় ও অবৈধ ব্যবহার রোধ করা অত্যন্ত জরুরি, ফলে এর অপচয় ও অবৈধ ব্যবহার রোধকল্পে গ্যাসের অবৈধ ব্যবহার/সংযোগ বিচ্ছিন্ন এবং পাইপলাইন অপসারণ করা হচ্ছে। সকলে গ্যাসসহ অন্যান্য জ্বালানি ব্যবহারে সাশ্রয়ী হবেন, নিরাপদ জ্বালানি ব্যবহারে সচেতন হবেন এবং অবৈধ কার্যকলাপ হতে বিরত থাকবেন এটাই জ্বালানি নিরাপত্তা দিবস উদ্‌যাপনের স্বার্থকতা মর্মে তিনি মতামত ব্যক্ত করেন। এছাড়া কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের গ্রাহক সেবায় আন্তরিকতা ও নিরলস পরিশ্রমের প্রশংসা করে আগামীতে তা আরো উন্নত করার আহ্বান জানান। প্রেস বিজ্ঞপ্তি।

x