জনসচেতনতার মাধ্যমেই কুষ্ঠরোগ নির্ণয় ও নির্মূল করা সম্ভব

বিজিসি ট্রাস্ট মেডিকেল কলেজে সেমিনারে অভিমত

চন্দনাইশ প্রতিনিধি

বৃহস্পতিবার , ১১ অক্টোবর, ২০১৮ at ১২:০১ অপরাহ্ণ
6

বিজিসি ট্রাস্ট মেডিকেল কলেজে কুষ্ঠ রোগ নির্ণয় ও নির্মূল শীর্ষক এক বৈজ্ঞানিক সেমিনার গত ৮ অক্টোবর কলেজের সেমিনার হলে অনুষ্ঠিত হয়। সার্জারি বিভাগের বিভাগীয় প্রধান অধ্যাপক ডা. পান্না লাল সাহার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সেমিনারে প্রধান অতিথি ছিলেন কলেজের অধ্যক্ষ ও চক্ষুরোগ বিভাগের বিভাগীয় প্রধান অধ্যাপক ডা. এস এম তারেক। সেমিনারে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন কুষ্ঠরোগ বিশেষজ্ঞ বিজিসি ট্রাষ্ট মেডিকেল কলেজের চর্ম ও যৌন রোগের বিভাগীয় প্রধান ও সহযোগী অধ্যাপক ডা. এলভিন সাহা। মূল প্রবন্ধে ডা. এলভিন সাহা বলেন, ২০১৭ সালে সারাদেশে নতুনভাবে শনাক্তকরণের সময় পুরনো কুষ্ঠরোগীর সংখ্যা ছিল ৩ হাজার ৭৫৪জন এবং নতুন কুষ্ঠরোগী ছিল ৮১ জন। তিনি বলেন, হালকা ফ্যাকাসে অনুভূতিহীন দাগ কুষ্ঠ রোগের অন্যতম প্রধান লক্ষণ। রোগের শুরুতে চিকিৎসা নিলে এ রোগে বিকলাঙ্গতা রোধ করা সম্ভব। তাছাড়া এমডিটির মাধ্যমে নিয়মিত ও সঠিক চিকিৎসায় কুষ্ঠ রোগ সম্পূর্ণ ভালো হয়। দেশের সবকটি সরকারি হাসপাতাল এবং বেসরকারি কুষ্ঠ ক্লিনিকগুলোতে এমডিটি সম্পূর্ণ বিনামূল্যে পাওয়া যায়। কুষ্ঠরোগের ব্যাপারে দেশব্যাপী জনসচেতনতা সৃষ্টি হলে এ রোগটি নির্ণয় ও নির্মূল করা সম্ভব বলেও জানান ডা. এলভিন।
বিজিসি ট্রাষ্ট মেডিকেল কলেজের শিশুরোগ বিভাগের রেজিস্ট্রার ডা. জাহেদ কামালের সঞ্চালনায় সেমিনারে স্বাগত বক্তব্য রাখেন মেডিসিন বিভাগের রেজিস্ট্রার ডা. শম্ভু নাথ সরকার। বিশেষ অতিথি ছিলেন উপাধ্যক্ষ ডা. জাহিদ হোসাইন শরীফ, হাসপাতালের পরিচালক মেজর (অব:) ডা. জাবেদ আব্দুল করিম। বক্তব্য রাখেন শিশুরোগ বিভাগের বিভাগীয় প্রধান অধ্যাপক ডা. প্রণব কান্তি মল্লিক, মেডিসিন বিভাগের বিভাগীয় প্রধান অধ্যাপক ডা. এ.এ.এম. রাইহান উদ্দিন। দিনব্যাপী অনুষ্ঠিত এ সেমিনারে শতাধিক চিকিৎসকসহ কর্ণিয়া মেডিকেল পাবলিকেশনের সম্পাদক ডা: মো. সাজ্জাদ হোসেন ও মেডিভয়েস’র প্রতিনিধি মো: আতিক হান্নান চৌধুরী উপস্থিত ছিলেন।

x