ছেলে-মেয়ে সমানে সমান

আজাদী প্রতিবেদন

মঙ্গলবার , ৭ মে, ২০১৯ at ৫:৪০ পূর্বাহ্ণ
87

চট্টগ্রাম শিক্ষাবোর্ডে এবার পাসের হারে এগিয়ে আছে ছেলেরা। তবে জিপিএ-৫ প্রাপ্তির ক্ষেত্রে মেয়েরাই এগিয়ে। বিগত ৫ বছরের তথ্য পর্যালোচনা করে দেখা গেছে, পাসের হারে কখনো ছেলেরা এগিয়ে থাকছে, আবার কখনো মেয়েরা। জিপিএ-৫ প্রাপ্তির ক্ষেত্রেও যেন একই চিত্র। জিপিএ-৫ প্রাপ্তির ক্ষেত্রে সংখ্যায় কোনো বছর মেয়েরা বেশি, আবার কোনো বছর ছেলেরা। এভাবেই যেন পাল্লা দিয়ে চলছে সাম্প্রতিক বছরগুলোতে। এ যেন কেউ কারে নাহি ছাড়ে সমানে সমান। অবশ্য, পরীক্ষায় অংশগ্রহণের ক্ষেত্রে প্রায় বছর মেয়েদের সংখ্যাই বেশি থাকে।
শিক্ষাবোর্ডের তথ্য মতে, এবারের পরীক্ষায় মোট ১ লাখ ৪৯ হাজার ৬০৬ জন পরীক্ষার্থী অংশ নেয়। এর মধ্যে ছাত্রী সংখ্যা ৮০ হাজার ৯৬১ জন। আর ছাত্র অংশ নেয় ৬৮ হাজার ৬৪৫ জন। গতকাল প্রকাশিত ফলাফলে ছাত্র পাস করেছে ৭৮ দশমিক ৪৩ শতাংশ। আর ছাত্রী পাসের হার ৭৭ দশমিক ৮৩ শতাংশ। অন্যদিকে, সবমিলিয়ে ৭ হাজার ৩৯৩ জন শিক্ষার্থী সর্বোচ্চ জিপিএ-৫ পেয়েছে এবার। এর মধ্যে মেয়েদের সংখ্যাই বেশি। মেয়েদের মধ্যে জিপিএ-৫ পেয়েছে ৩ হাজার ৭৪১ জন। আর ছেলেদের মাঝে জিপিএ-৫ পেয়েছে ৩ হাজার ৬৫২ জন। হিসেবে ছেলেদের তুলনায় মেয়েদের জিপিএ-৫ প্রাপ্তির সংখ্যা ৮৯ জন বেশি। একই চিত্র দেখা যায় গতবছরও। গতবারও পাসের হারে ছেলেরা কিঞ্চিৎ এগিয়ে থাকলেও জিপিএ-৫ প্রাপ্তির ক্ষেত্রে এগিয়ে ছিল মেয়েরাই।
শিক্ষাবোর্ডের তথ্য মতে, গতবার (২০১৮) বোর্ডের গড় পাসের হার ছিল ৭৫ দশমিক ৫০ শতাংশ। এর মধ্যে ছাত্র পাসের হার ছিল ৭৫ দশমিক ৮৬ শতাংশ। আর ছাত্রী পাস করে ৭৫ দশমিক ১৯ শতাংশ। অন্যদিকে, গতবার মোট জিপিএ-৫ পায় ৮ হাজার ৯৪ জন শিক্ষার্থী। এর মধ্যে মেয়েদের সংখ্যাই ছিল বেশি। ৪ হাজার ১৭২ জন ছাত্রী গতবার জিপিএ-৫ পায়। বিপরীতে জিপিএ-৫ প্রাপ্ত ছেলেদের সংখ্যা ছিল ৩ হাজার ৯২২ জন। হিসেবে ছেলেদের তুলনায় ২৫০ জন বেশি মেয়ে জিপিএ-৫ পায় গতবার। তবে ভিন্নতা দেখা গেছে ২০১৭ সালের ফলাফলে। ওই বছর পাসের হার ও জিপিএ-৫ প্রাপ্তি উভয় ক্ষেত্রেই এগিয়ে ছিল মেয়েরা।
২০১৭ সালের ফলাফল পর্যালোচনায় দেখা যায়, পরীক্ষায় অংশ নেওয়া মোট ১ লাখ ১৭ হাজার ৮৯৭ জন শিক্ষার্থীর মধ্যে ছাত্রী সংখ্যা ছিল ৬২ হাজার ৪১২ জন। আর ছাত্র সংখ্যা ছিল ৫৫ হাজার ৪৮৫ জন। এর মধ্যে মেয়েদের পাসের হার ছিল ৮৪ শতাংশ। আর ছেলে পাস করে ৮৩ দশমিক ৯৮ শতাংশ। আর মোট ৮ হাজার ৩৪৪ জন জিপিএ-৫ পাওয়া শিক্ষার্থীর মধ্যে মেয়েদের সংখ্যা ছিল ৪ হাজার ২৯১ জন। আর ছাত্রদের মাঝে জিপিএ-৫ পায় ৪ হাজার ৫৩ জন। হিসেবে ছেলেদের তুলনায় ২৩৮ জন বেশি মেয়ে জিপিএ-৫ পায় ২০১৭ সালে। তবে পাসের হার ও জিপিএ-৫ প্রাপ্তির ক্ষেত্রে ভিন্ন চিত্র দেখা যায় ২০১৬ ও ২০১৫ সালে। পরপর এই দুই বছর উভয় ক্ষেত্রেই এগিয়ে ছিল ছেলেরাই।
২০১৬ সালের ফলাফলে দেখা যায়, ছেলেদের ৯০ দশমিক ৯৭ শতাংশ পাসের হারের বিপরীতে মেয়েদের পাসের হার ছিল ৮৯ দশমিক ৯৯ শতাংশ। আর ছাত্রদের ৪ হাজার ৩৮৩ জন জিপিএ-৫ পায়। বিপরীতে মেয়েদের মাঝে জিপিএ-৫ প্রাপ্তের সংখ্যা ছিল ৪ হাজার ১১৯ জন। আর ২০১৫ সালের ফলাফলে ছাত্রদের পাসের হার ছিল ৮৪ দশমিক ৬০ শতাংশ। বিপরীতে মেয়েদের পাসের হার ৮১ দশমিক ১১ শতাংশ। আর ৩ হাজার ৬১৬ জন ছাত্রের জিপিএ-৫ প্রাপ্তির বিপরীতে মেয়েদের মাঝে জিপিএ-৫ পায় ৩ হাজার ৫০০ জন।

x