ছেলে-মেয়ে সবাইকে সমান চোখে দেখুন

মঙ্গলবার , ৬ আগস্ট, ২০১৯ at ১০:৩৮ পূর্বাহ্ণ
33

বিভিন্ন দেশে ইভটিজিং, শ্লীলতাহানিসহ নানান অপকর্ম নারীদের সাথে করা হয়। আমাদের এই প্রিয় স্বদেশেও চলছে নারীদের প্রতি নিত্য অবমাননা। কিছু পুরুষ নারীদের সাথে এসব অপকর্ম করে। কিন্তু অনেক ক্ষেত্রে সমাজ এতে দোষারোপ করে নারীদের। গালিগালাজ ও মন্দ কথা বলে নারীদের। অথচ এতে নারীদের কোনো দোষ নেই। এতে দোষ আছে একমাত্র সেই পুরুষদের, যারা নারীদের ইভটিজিং, শ্লীলতাহানি করে। কিন্তু সেই পুরুষদের দোষারোপ না করে দোষারোপ করা হয় নারীদের। অনেক নারী তারা তো ইভটিজিং ও শ্লীলতাহানির ফলে মানসিক ও শারীরিকভাবে জ্বলতে থাকে। তার ওপর আবার সমাজে তাদের ওপর দোষারোপ করা। কোনো পুরুষ কোনো নারীর দিকে নিকৃষ্টভাবে তাকালে ইভটিজিং ও শ্লীলতাহানি সংঘটিত হওয়া সম্ভব। তাই সর্বপ্রথম প্রয়োজন পুরুষদের চাউনিকে শালীন ও সুন্দর করা। তাহলে ইভটিজিং ও শ্লীলতাহানির মতো গর্হিত কাজ ঠেকানো সম্ভব। একজন নারী কারো সাথে মোবাইলে কথা বললে তাকে সন্দেহ করা হয়। মনে করা হয় যে সেই মেয়ে কোনো পুরুষের সাথে কথা বলছে। কিন্তু একজন পুরুষকে এসব নিয়ে সন্দেহ করা হয় না। এটিকে স্বাভাবিক ধরা হয়। দেখা হয় না যে ছেলেটি কার সাথে কথা বলছে, কি বলছে। তাকে আরো মাথায় তোলা হয়। তবে একজন নারী যদি কারো সাথে কথা বলে তখন তাকে তার চরিত্র নিয়ে সন্দেহ করা হয়। তাকে নানান রকম গালিগালাজ ও মন্দ কথা বলা হয়। অথচ দেখা হয় না যে আসলে সে কার সাথে কথা বলছে এবং কেন ও কি বলছে। এমন উদাহরণ অনেক আছে। একজন নারীর চরিত্র নিয়ে সন্দেহ করার অধিকার কারো নেই। সত্যটি না জেনে শুধুমাত্র সন্দেহের বশে বশীভূত হয়ে একজন নারীকে তার চরিত্র নিয়ে সন্দেহ করার অধিকার কাউকে সৃষ্টিকর্তা দেননি। তাই নারীর চরিত্র নিয়ে না জেনে সন্দেহ করা উচিত নয়। পাশাপাশি সবার উচিত যে অপরাধের শিকার তাকে সাত্ত্বনা দেওয়া ও সহযোগিতা করা। যে অপরাধী তাকে উপযুক্ত শাস্তি দেওয়া। তাকে তার অপরাধ সম্পর্কে ভালোভাবে অবহিত করা প্রয়োজন। সর্বোপরি সবার উচিত নারীদের শ্রদ্ধা ও সম্মান করা। নারীদের যথাযোগ্য মর্যাদা দেওয়া। ছেলে-মেয়ে সবাইকে তাঁর পরিবারের উচিত চোখে চোখে রাখা। নারী-পুরুষ সবাইকে মানবিক, নৈতিক ও ধর্মীয় শিক্ষায় উদ্বুদ্ধ করতে হবে। নারীদের চরিত্র নিয়ে প্রমাণ ছাড়া সন্দেহ করা যাবে না। ছেলে-মেয়ে সবাইকে সমান চোখে দেখুন।

নূরতাজ তাফহিমা খান, অপর্ণাচরণ সিটি কর্পোরেশন বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের
৮ম শ্রেণির শিক্ষার্থী ।

x